Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯, ০৫ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৬ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

পাবনায় এক রাতে ৯টি গরু চুরি

পাবনা থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১ জুন, ২০১৯, ৩:৩১ পিএম

পাবনায় ঈদের আগে সংঘবদ্ধ গরু চোরের উৎপাত বৃদ্ধি পেয়েছে। পুলিশের ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ ও অন্যান্য ব্যস্ততা বেড়ে যাওয়ার সুযোগ নিচ্ছে চোর দল। পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় গত ৩১ মে দিবাগত রাতে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে দুইটি গরুর খামার থেকে ৯টি গরু নিয়ে গেছে চোর দল। ঐ ইউনিয়নের পাটুলীপাড়া গ্রামের আব্দুর রবের খামার থেকে ৫টি ও নিকটবর্তী কাশীপুর গ্রামের আব্দুল আলিমের খামার থেকে ৪টি গরু সংঘবদ্ধ গরু চোর দল নিয়ে যায়। এলাকাবাসী ও ক্ষতিগ্রস্ত ভূমিহীন খামারী জানান, ঐ রাতে তিনি সেহেরী খেয়ে বাড়ি মধ্যে ঘরে বসে ছিলেন। এই সময় মুখোশপরা একদল অস্ত্রধারী ঘরে প্রবেশ করে তাঁর কণ্ঠনালীর কাছে অস্ত্র ধরে আর কয়েকজন বাইরে গিয়ে তাঁর খামারে অনুপ্রবেশ করে গরু খুলে নিয়ে যায়। তিনি পরে দেখেন ৫টি গরু নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এই ঘটনার কয়েকদিন আগে তাঁর গোয়াল থেকে একটি ষাঁড় চুরি হয়ে যায়। এদিকে, শুক্রবার একই রাতে উপজেলার কাশীপুর গ্রামে একই কায়দায় আব্দুল আলিমের ৪টি গরু নিয়ে সংঘবদ্ধ গরু চোর দল নির্বিঘ্নে চলে যায়। ভাঙ্গুড়া থানার অফিসার ইনচার্জ জানান, তিনি এখনও কোনো লিখিত অভিযোগ পাননি। পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন, পুলিশ সুপার পদোন্নতি প্রাপ্ত) গৌতম কুমার বিশ্বাস তিনি মোবাইলে জানান, বিষয়টি অবগত হলাম। গরু চুরি, ছিনতাই, ছিঁচকে চুরি , ডাকাতি রোধে থানা পুলিশের তৎপরতা আরও বাড়ানো হবে। আর ভাঙ্গুড়ার গরু চোর ধরতে পুলিশী তৎপরতা বাড়াতে ওসিকে জানানো হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাবনা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ