Inqilab Logo

শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৩ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

ঈদে ঘরে ফেরা দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যাত্রীদের সুবিধার্থে পুরাতন কাওড়াকান্দি লঞ্চঘাট চালু

মাদারীপুর জেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ১ জুন, ২০১৯, ১০:৪৫ পিএম | আপডেট : ১০:৫৬ পিএম, ১ জুন, ২০১৯

ঈদের আর মাত্র ক’দিন বাকি তাইতো ঘাটে বাড়ছে ঘরমুখো মানুষের চাপ। শনিবার সকাল থেকে মাদারীপুরের শিবচরের কাঁঠালবাড়ী ঘাটে দেখা গেছে ঘরমুখো মানুষের ভিড়। কাঁঠালবাড়ী ঘাটে যাত্রীদের চাপ কমিয়ে সড়কে যানজট নিরসনে চালু করা হয়েছে পুরাতন কাওড়াকান্দি লঞ্চ ঘাটটিও। শনিবার সকাল থেকেই শিমুলিয়া ঘাট থেকে পরিবহনের যাত্রীবাহী লঞ্চগুলো এসে ভিড়ছে কাওড়াকান্দি ঘাটে। পুরাতন ঘাটটি চালু হওয়ায় যাত্রীরা স্বাচ্ছন্দে বাড়তি ভীড় ছাড়াই তাদের গন্তব্যে যেতে পারছে।


বিআইডবিøউটিএ কাঁঠালবাড়ী লঞ্চ ঘাট সূত্র জানায়, ঘরমুখো যাত্রীদের স্বাচ্ছ্যন্দে ঘরে ফেরা নিশ্চিত করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কাঁঠালবাড়ী ঘাটে নেয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি। ঘাট এলাকায় যানজট নিরসনে ও যাত্রীদের চাপ কমাতে লঞ্চের একটি সার্ভিস কাঁঠালবাড়ী থেকে সরিয়ে কাওড়াকান্দি ঘাটে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ফলে কাঁঠালবাড়ী ঘাটে লঞ্চ যাত্রীদের একটি বড় অংশের চাপ কমে গেলো। এছাড়াও ঘাটের টার্মিনালেও দূরপাল্লার পরিবহনের বড় একটি অংশ থাকছে না। পরিবহনগুলো কাওড়াকান্দি ঘাট থেকে যাত্রী নিয়ে গন্তব্যে যাচ্ছে। ফলে কাঁঠালবাড়ী ঘাটে যাত্রী ও পরিবহনের চাপ অনেকটাই কমে আসবে। দূরপাল্লার পরিবহনের যে যাত্রীরা লঞ্চ পারাপার হয় তাদের লঞ্চ ঘাটটি পুরাতন ঘাটে শনিবার সকালে নেয়া হয়েছে। কাঁঠালবাড়ী ঘাটে শুধুমাত্র লোকাল যাত্রীদের লঞ্চ রয়েছে।


ঢাকা থেকে মাদারীপুরগামী যাত্রী আমীর হোসেন নয়ন বলেন, পুরাতন লঞ্চ ঘাটটি চালু করায় আমাদের যাত্রীদের চলা ফেরায় খুব সুবিধা হলো। আমরা ভীড় ছাড়াই লঞ্চ থেকে নেমে বাসে উঠতে পারছি। কাঁঠালবাড়িতে ঘাট থাকলে আমাদের পরিবার পরিজন নিয়ে বাড়ী ফিরতে খুব সমস্যা হতো। ভালো একটা সিদ্ধান্ত নেয়ায় ঘাট কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানাই।


কাঁঠালবাড়ী লঞ্চ ঘাটের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর আক্তার হোসেন জানান, শনিবার সকাল থেকেই পুরাতন কাওড়াকান্দি ঘাটটি চালু রয়েছে। লঞ্চের কাটা সার্ভিসগুলো যাত্রী নিয়ে কাওড়াকান্দি ঘাটে চলে যাচ্ছে। কাঁঠালবাড়ী ঘাটে শুধুমাত্র লোকাল যাত্রীদের লঞ্চ রয়েছে। একটি লঞ্চঘাট সরিয়ে নেয়ায় যাত্রীদের চাপ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। অনেকটা স্বাচ্ছন্দে যাত্রীরা ঘাটে নেমে গন্তব্যের পরিবহনে উঠতে পারছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঈদে ঘরে ফেরা দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যাত্রী
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ