Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯, ০৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৫ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

চীনের হুঁশিয়ারি : যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যুদ্ধ বিপর্যয় ডেকে আনবে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ জুন, ২০১৯, ১:২৯ পিএম

চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওয়েই ফেনঘি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যুদ্ধ হলে পুরো বিশ্বের জন্য একটি বিপর্যয় ডেকে আনবে। রোববার এই হুঁশিয়ারি দিয়ে তাইওয়ান এবং দক্ষিণ চীন সাগরে নিরাপত্তা বিতর্কে হস্তক্ষেপ না করতে ওয়াশিংটনকে সতর্ক বার্তা দিয়েছেন তিনি।

স্বশাসিত ও গণতান্ত্রিক তাইওয়ানের সমর্থন সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের নেয়া পদক্ষেপে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে চীন। একই সঙ্গে চীনের মূল ভূখণ্ড থেকে তাইওয়ানকে পৃথককৃত তাইওয়ান প্রণালীতে মার্কিন নৌ-বাহিনী টহল বৃদ্ধি করেছে।

সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত এশীয় প্রতিরক্ষা সম্মেলনের শাংগ্রি লা সংলাপে ওয়েই বলেন, তাইওয়ানের সঙ্গে বেইজিংয়ের সম্পর্কে কেউ যদি হস্তক্ষেপের চেষ্টা করে তাহলে চীন শেষ পর্যন্ত লড়াই করবে। তাইওয়ানকে পবিত্র ভূমি মনে করে চীন, প্রয়োজনে শক্তিপ্রয়োগ করে দখল করা হবে।

২০১১ সালের পর শাংগ্রি লা সংলাপে ওয়েই প্রথম চীনা প্রতিরক্ষামন্ত্রী হিসেবে অংশ নিয়েছেন। তিনি বলেন, এশিয়ায় বেইজিংয়ের সামরিক কার্যক্রম মূলত আত্মরক্ষার লক্ষ্যে পরিচালিত হয়। তবে স্বার্থের ওপর আঘাত এলে পাল্টা আঘাত হানতে দ্বিধা করবে না চীন।

ওয়েই ফেনঘি বলেন, আক্রান্ত না হলে চীন কখনই কাউকে আক্রমণ করবে না। যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের মধ্যে সংঘাত হলে এর ফল ভয়াবহ হবে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন তিনি। উভয় পক্ষ বুঝেছে যে, সংঘাত অথবা যুদ্ধ হলে দুই দেশের জন্য এবং বিশ্বের জন্য চরম বিপর্যয় ডেকে আনবে।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সরকারি সম্পর্ক না থাকলেও তাইওয়ানের শক্তিশালী সহায়তাকারী এবং অস্ত্রের মূল জোগানদাতা হলো ওয়াশিংটন। চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির জেনারেল পদমর্যাদার পোশাক পরিহিত ওয়েই বলেন, চীনকে বিভক্ত করার কোনো চেষ্টাই সফল হবে না। তাইওয়ান ইস্যুতে যে কোনো ধরনের হস্তক্ষেপের চেষ্টা ব্যর্থতায় পর্যবসিত হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চীন-যুক্তরাষ্ট্র


আরও
আরও পড়ুন