Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯, ০৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৯ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

রাজশাহীতে পিঠা উৎসব

প্রকাশের সময় : ২৯ জানুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

রাজশাহী ব্যুরো : শীত আর পিঠা যেন অপরের সঙ্গী। শীত নামলে পিঠা পায়েসের আয়োজন হবে না, তা কি হয়। নগরের কর্মজীবনে ঘরে খুব একটা পিঠা পায়েস তৈরি অনেকেরই সম্ভব হয় না। তাই বলে কি এর স্বাদ নেওয়া যাবে না। এমনটি ভেবেই প্রতিবছর ডিস্ট্রিক্ট উইমেন বিজনেস ফোরাম আয়োজন করছে পিঠা উৎসবের। গতকাল থেকে দু’দিনব্যাপী শুরু হয়েছে নানা নামের ও স্বাদের পিঠা নিয়ে উৎসব। কত নাম পানখিলি, পাটিসাপটা, গোলাপ, নকশি, রসচিতাই, কুশলী, হৃদয় হরণ, লবঙ্গ-লতিকা, মাছ পিঠা, বিস্কুট পিঠা, নারকেলের শাঁস কুসলি, দুধ কুশলি, সবজির চাকা পিঠা, বিবিখানা, মুখশেলী, কালাই পিঠা, লেয়ার পিঠা, বকুল পিঠা, পাকোয়ান পিঠাসহ নানান ধরনের পিঠা নিয়ে এ মেলা বসেছে নগরীর পদ্মা পাড়ের রিভারভিউ ফুড কর্নারের সামনে।
গতকাল সকালে ডিস্ট্রিক্ট উইমেন বিজনেস ফোরাম রাজশাহী’র আয়োজনে নগরীর রিভারভিউ ফুড কর্নারের সামনে শুরু হয়েছে দু’দিনব্যাপী পিঠা মেলা প্রতিযোগিতা। এ মেলার উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ড. ফরিদা সুলতানা। সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন ডিস্ট্রিক্ট উইমেন বিজনেস ফোরামের সভাপতি অধ্যাপিকা রেজেটি নাজনীল। পিঠা মেলায় হেঁশেল, কুঠুরী, রস, ফারহানার রান্নাঘর, নয়নতারা, হাসিন বুটিকসহ আরো অনেক পিঠা ঘর। আর এতে অংশগ্রহণকারী অনেক নারী উদ্যোক্তাদের পিঠা ঘরে অংশ নেয় ৫০ থেকে ৬০ রকমের পিঠা।
পানখিলি, পাটি সাপটা, গোলাপ, নকশি, রসচিতাই, কুশলী, হৃদয় হরণ, লবঙ্গ-লতিকা, মাছ পিঠা, বিস্কুট পিঠা, নারকেলের শাঁস কুসলি, দুধ কুশলি, সবজির চাকা পিঠা, বিবিখানা, মুখশেলী, কালাই পিঠা, লেয়ার পিঠা, বকুল পিঠা, পাকোয়ান পিঠা, কোলসি পিঠা, লেয়ার পিঠা, মুগ পাকন, বৌ-পিঠা, ছাচাপিঠা, ডিমচোরা, বোম্বাই পিঠা, পাতা পিঠা, চুটকি পিঠা, দুধপুলি, ফুল পিঠা, মুসুর পিঠা, কড়ি পিঠা, কালাইরস মালাই, গুড়ের শাহী পিঠা, আলুর প্যান কেক পিঠাসহ নানান রঙের বর্ণের এবং নানান স্বাদের পিঠা। যার নাম শনেই মুগ্ধ হচ্ছেন দর্শনার্থীরা ভিন্ন ধাঁচের এই পিঠা প্রতিযোগিতায় প্রতিবারই নতুন পিঠার সন্ধান পাওয়া যায়। এবারো তার ব্যাতিক্রম হয়নি। এবারের অনেক নতুন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করে তাদের নিজেদের স্টলগুলো পিঠা দিয়ে সুসজ্জিত করে রেখেছে। মেলায় আগতরা যেমন নানা নামের ও স্বাদের পিঠা খেয়ে তৃপ্তি লাভ করেছে। তেমনি তাদের ভালো লাগার কথাও চেপে রাখতে পারেনি। অনেকেরই মন্তব্য ছিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ