Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

আমি বাংলাদেশী নই ভারতীয়, বিজেপিতে যোগ দিয়ে বললেন অঞ্জু ঘোষ

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ জুন, ২০১৯, ৮:৪৭ পিএম
‘আমার সবকিছুই ভারতে…’ ব্যাস এ টুকু কথাতেই সব জল্পনার উত্তর দিয়ে দিলেন ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ খ্যাত অঞ্জু ঘোষ।
গতকাল বুধবার বিকেলে গোটা কলকাতাকে চমকে দিয়ে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) রাজনীতিতে পা রাখলেন অঞ্জু ঘোষ। বিজেপিতে অঞ্জু ঘোষ পা রাখতেই প্রশ্ন ওঠে- ‘অঞ্জু ঘোষ কি ভারতীয়, নাকি বাংলাদেশি?’
 
‘বেদের মেয়ে জোসনা’ সিনেমা দিয়ে দুই বাংলায় আলোড়ন তোলা এই অভিনেত্রীর জন্ম, বেড়ে ওঠা ও অভিনয় সবই ছিল বাংলাদেশে। তাঁর আসল নাম অঞ্জলি ঘোষ। জন্ম বাংলাদেশের ফরিদপুরে। তবে কায়দা করে তিনি তার জন্মস্থানও বদলে নিয়েছেন।
 
এর সমর্থনে তিনি এমনকী পশ্চিমবঙ্গে জন্মগ্রহণের সনদও সংগ্রহ করেছেন। তার বার্থ সার্টিফিকেট প্রকাশ করেছে বিজেপি। তাতে দেখা যাচ্ছে তার জন্ম কলকাতা শহরের এক নার্সিংহোমে। তবে তা কলকাতা পৌরসভায় নথিভুক্ত হয়েছে ২০০৩ সালের ডিসেম্বরে। কলকাতা পৌরসভার জারি করা সেই সনদে অঞ্জু ঘোষের জন্ম তারিখ ১৭ সেপ্টেম্বর ১৯৬৬। বাবার নাম সুধন্য ঘোষ ও মায়ের নাম বীণাপানি ঘোষ। মধ্য কলকাতার ইস্ট এন্ড নার্সিং হোমে জন্ম হয়েছিল তাঁর।
 
১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার আগে থেকেই বাংলাদেশের বিভিন্ন যাত্রাপালায় অভিনয় করেছেন তিনি। যাত্রাজগত থেকেই চলচ্চিত্র দুনিয়ায় পা রাখেন।
 
গতকাল বুধবার বিকেলে অঞ্জু ঘোষ বিজেপিতে নাম লেখাতেই তাঁর নাগরিকত্ব নিয়ে ওঠে প্রশ্ন। যাঁর হাত ধরে এ দিন অঞ্জু ঘোষ বিজেপির পতাকা হাতে তুলে নেন, সেই পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়ে দেন, ‘নাগরিকত্বের বিষয়ে অঞ্জু দেবীই উত্তর দিতে পারবেন।’
 
তবে অঞ্জু ঘোষ বিষয়টি নিয়ে বিশেষ কিছু বলতে না চাইলেও শুধু বলেন, ‘আমার সবকিছুই ভারতে। ভারতে আমার পিতা-মাতা শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন।’
 
‘বেদের মেয়ে জোসনাকে’ বিজেপিতে পেয়ে স্বভাবতই খুশি রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘আসল বেদের মেয়ে জ্যোসনা এখন আমাদের দলে।’
 
তবে অঞ্জু ঘোষ বিজেপিতে নাম লেখালেও তাঁর সিনেমার নায়ক চিরঞ্জিত বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের বারাসত কেন্দ্রের বিধায়ক।
 
১৯৯৬ সালে বাংলাদেশ ছাড়েন অঞ্জু ঘোষ। তখন থেকেই কলকাতায় বসবাস করছেন এই নায়িকা। কলকাতায় বেশ কিছু চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন তিনি।
 
১৯৭২ থেকে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত একটানা বাংলাদেশের চট্টগ্রামে যাত্রা ও নাটকে অভিনয় করে এসেছেন অঞ্জু ঘোষ। সেই সময়ে বাংলাদেশের অন্যতম মঞ্চ-সফল জুটি ছিলেন অঞ্জু ঘোষ ও পঙ্কজ বৈদ্য। এরপর তিনি চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন। ১৯৮২ সালে চলচ্চিত্র নির্মাতা এফ কবির চৌধুরী চলচ্চিত্রে আনেন তাঁকে। অঞ্জুকে নিয়ে তৈরি করেন ‘সওদাগর’।
 
১৯৮৯ সালে বাংলাদেশের অন্যতম সফল নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের সঙ্গে জুটি বেঁধে অঞ্জু ঘোষ সাড়া জাগান ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ ছবি দিয়ে। যে চলচ্চিত্র গোটা বাংলাদেশে আলোড়ন ফেলে দেয়। যার ফলশ্রুতিতে বাণিজ্যিক লাভের আশায় পশ্চিমবঙ্গের টলিউডেও তৈরি হয় ‘বেদের মেয়ে জ্যোৎস্না’।
 
সেই ছবিতে অঞ্জু ঘোষের বিপরীতে অভিনয় করেন টলিউড নায়ক চিরঞ্জিত। চলচ্চিত্রটি পশ্চিমবঙ্গেও বিপুল জনপ্রিয়তা লাভ করে। এই ছবির বদৌলতে অঞ্জু ঘোষ পশ্চিমবঙ্গের মানুষের কাছে হয়ে ওঠেন পরিচিত নাম।


 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অঞ্জু ঘোষ
আরও পড়ুন