Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯, ০২ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ

আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ জুন, ২০১৯, ৩:২৬ পিএম | আপডেট : ৯:৩৬ পিএম, ৭ জুন, ২০১৯

এশিয়ার দুই সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়নের লড়াই দেখলো না বিশ্ব। ম্যাচে পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কাকে ছাপিয়ে জিতল বৃষ্টি। বেরসিক বৃষ্টির তোপে ম্যাচের টসই হতে পারেনি। এর ফলে দুই দল ১টি করে পয়েন্ট পরেছে। পয়েন্ট টেবিলে ৩ পয়েন্ট নিয়ে শ্রীলঙ্কার অবস্থান তিনে। সমান পয়েন্ট নিয়ে পাকিস্তান আছে চারে। চার পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের ১ম স্থানে আছে নিউজিল্যান্ড ও সমান পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে অস্ট্রেলিয়া। ১২ জুন টন্টনে পাকিস্তানের পরবর্তী ম্যাচ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। আর শ্রীলঙ্কা তাদের পরবর্তী ম্যাচে ব্রিস্টলে ১১ জুন মুখোমুখি হবে বাংলাদেশের।

৯২ কি ফিরে আসছে?

২০১৯ সালে ১৯৯২ সালের প্রসঙ্গ কেন? পাঠকদের মনে প্রশ্ন জাগতেই পারে। কিন্তু কাকতালীয়ভাবে এখন পর্যন্ত পাকিস্তানের প্রথম তিনটি ম্যাচের ফল মিলে গেছে ৯২’ বিশ্বকাপের সঙ্গে। সেবার প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডজের কাছে হেরেছিলো ইমরান খানের পাকিস্তান। এবার হারলো সরফরাজের পাকিস্তান। ১৯৯২ বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জয় পেয়েছিলো পাকিস্তান। এবার স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয় পেয়েছে ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিজয়ী পাকিস্তান। সেবার তৃতীয় ম্যাচটি বৃষ্টিতে ভেসে গিয়ে ইংল্যান্ডের সাথে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেছিলো ইমরানের পাকিস্তান। আজকের ম্যাচে পাকিস্তান তাদের বিশ্বকাপের তৃতীয় ম্যাচে বৃষ্টির কারনেই পয়েন্ট ভাহ করে নিয়েছে ১৯৯৬ সালের চ্যাম্পিয়ন শ্রীলঙ্কার সাথে। ব্যাপারটা কতটা কাকতালীয়। তাহলে কি ইমরানের মতো সরফরাজও তুলতে যাচ্ছেন এবারের আসরের শিরোপা? প্রশ্নটা তোলাই থাকলো। এর উত্তর খুঁজতে হলে অপেক্ষা করতে হবে জুলাইয়ের ১৪ তারিখ পর্যন্ত।

পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কা ম্যাচে বৃষ্টির বাধা

বিশ্বকাপের ১১তম ম্যাচে এশিয়ার দুই দলের মধ্যকার লড়াই শুরুর আগে বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে বৃষ্টি। এখন পর্যন্ত বৃষ্টির বাঁধায় টসই হতে পারেনি। রিপোর্টটি লেখা পর্যন্ত (বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিট) ক্রমেই বাড়ছে বৃষ্টির তোড়। খেলাটি পন্ড হয়ে যাওয়ায় দুই দলই একটি করে পয়েন্ট পেয়েছে।

ফেভারিট হয়েই নামছে পাকিস্তান

টুর্নামেন্ট শুরু আগে একেবারেই ভঙ্গুর অবস্থা ছিলো পাকিস্তানের। টানা ১১ ম্যাচে হারার পর ১২তম ম্যাচে এসে জয়ের মুখ দেখলো পাকিস্তান। তাও এবারের আসরের অন্যতম শিরোপর দাবিদার ইংল্যান্ডকে হারিয়ে। পাকিস্তান যে ‘আনপ্রেডিক্টঅ্যাবল’ খেতাব পেয়েছে, তা এমনিতেই পায়নি। অথচ বিশ্বকপের প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মা্রত ১০৫ রানে অলআউট হয় সরফরাজের দল। পরের ম্যাচে ৩৪৮! অন্যদিকে শ্রীলঙ্কা প্রথম ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১০ উইকেটের হারের পর জয় পেয়েছে আফগানিস্তানের বিপক্ষে। তাও হারতে হারতে। অভিজ্ঞতার কারনেই ম্যাচটি হেরেছিলো আফগানরা। ব্যাট হাতে লঙ্কানদের দুর্বল পারফরমেন্স ভাবাচ্ছে দলটিকে। তাই ব্রিস্টলের কাউন্টিগ্রাউন্ডে আজ নিশ্চিতভাবেই ফেভারিটের তকমা নিয়েই মাঠে নামবে ১৯৯২ সালের শিরোপা জয়ীরা।

পরিসংখ্যান:

পাকিস্তান এবং শ্রীলঙ্কা দুই দলই বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচে হারার পর ঘুরে দাঁড়িয়েছে। তাই স্বস্তি ফিরেছে উভয় শিবিরেই। তবে শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কা জয় পেলেও তা পেয়েছে দুর্বল আফগানিস্তানের বিপক্ষে। অন্যদিকে পাকিস্তান সবশেষ ম্যাচে আসরের অন্যতম ফেবারিট ইংল্যান্ডকে হারিয়ে আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে অবস্থান করছে। আবার দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়েও এড়িয়ে পাকিস্তান। তাছাড়া পাকিস্তানের বিপক্ষে জিততে হলে রেকর্ড গড়েই জিততে হবে লঙ্কানদের। কারন, বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে এখন অবধি জয়ের মুখ দেখেনি শ্রীলঙ্কা।

ওয়ানডেতে:

ম্যাচ: ১৫৩

পাকিস্তান জয়ী: ৯০

শ্রীলঙ্কা জয়ী: ৫৮

পরিত্যক্ত: ৪

টাই: ১

বিশ্বকাপে:

ম্যাচ: ৭

পাকিস্তান জয়ী: ৭

শ্রীলঙ্কা জয়ী: ০



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১৯


আরও
আরও পড়ুন