Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯, ০৪ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৫ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

চলতি সপ্তাহে মুখোমুখি মোদি ও জিংপিন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ জুন, ২০১৯, ৪:৫৫ পিএম

সাংহাই শীর্ষ সম্মেলনের ফাঁকে বৈঠকে বসতে পারেন চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিংপিন এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেখানে দ্বিপাক্ষিক ও আন্তর্জাতিক বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করতে পারেন দুই রাষ্ট্রনেতা। বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে দ্বিতীয় বার ক্ষমতাসীন হওয়ার পর এটাই হতে পারে জিংপিনয়ের সঙ্গে মোদির প্রথম সাক্ষাৎ।

চিনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লু কাং সোমবার জানিয়েছেন, সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনের (এসসিও) শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে কিরঘিজস্তান যাবেন জিংপিন। আগামী ১২ জুন থেকে ১৬ জুন কিরঘিজস্তান ও তাজাকিস্তান সফর করবেন তিনি। কিরঘিজস্তানের বিশকেক-এ আগামী ১৩ ও ১৪ জুন এসসিও সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। চিনে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত বিক্রম মিসরি গত সপ্তাহে জানিয়েছেন, মোদি এবং জিংপিন ওই সম্মেলনের ফাঁকে সাক্ষাৎ করবেন। গত বছরের উহানে দুই রাষ্ট্রনেতার বৈঠক যথেষ্টই সফল হয়েছিল। ওই বৈঠকের কথা উল্লেখ করে মিসরি বলেন, ‘বিভিন্ন বহুপাক্ষিক সম্মেলনে গত বছর দুই নেতার চার বার সাক্ষাত হয়েছিল।’ এ বার বিশকেক-এ আবার মোদি-জিংপিন বৈঠক করবেন বলে জানান তিনি।

ভারতের উপর থেকে ‘জেনারেইলাজড ট্রেডিং প্রেফারেন্স’-এর সুবিধা প্রত্যাহার করেছে আমেরিকা। যা মোদির সরকারের কাছে নিঃসন্দেহে দুঃসংবাদ। বেইজিংয়ের উপর আরও চাপ বাড়াতে আমেরিকা ২০,০০০ কোটি ডলার চিনা পণ্যের উপর শুল্ক বাড়িয়ে ২৫ শতাংশ করেছে। ফলে বাড়ছে শুল্ক-যুদ্ধের উত্তাপ। এই পরিস্থিতিতে মোদি-জিংপিন বৈঠককে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেছে দু’দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সাউথ ব্লক সূত্রের খবর, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে নিয়ে যেমন আলোচনা হবে, তেমনই দুই রাষ্ট্রনেতার বৈঠকে শুল্ক-যুদ্ধের প্রসঙ্গও উঠে আসবে। সূত্র: ইকোনমিক টাইমস।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন