Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

সরকারের বিরুদ্ধে বৃহত্তর ঐক্যের ঘোষণা হাস্যকর

সাংবাদিকদের তথ্যমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১১ জুন, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মধ্যে ঐক্য নেই- দাবি করে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, যারা নিজেদের ঐক্য ধরে রাখতে হিমশিম খাচ্ছে তাদের আন্দোলনের ঘোষণা, সরকারের বিরুদ্ধে বৃহত্তর ঐক্য করার ঘোষণা হাস্যকর। গতকাল সোমবার সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ঐক্যফ্রন্টের অবস্থা দেখে আমার হাসিও পায়, আবার করুণাও হয়। তারা বারবার বলে আসছিলেন বৃহত্তর ঐক্য, জাতীয় ঐক্য এবং ফ্রন্টের নাম ঐক্যফ্রন্ট। এখন ঐক্যফ্রন্টের ঐক্য নেই। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে ঐক্যফ্রন্টের কয়েকজন নেতা জোট ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন। ঐক্য ধরে রাখার জন্য নাকি তারা আজ বৈঠক ডেকেছেন। গতকালের বৈঠক ডাকার মাধ্যমে তাদের মধ্যে যে ঐক্য নেই, সেটি আরো স্পষ্ট করে দেখালেন। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানকে নিয়ে করা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মন্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি একে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিহিংসার বহিঃপ্রকাশ বলে উল্লেখ করেছেন। বলেছেন, এই বক্তব্য শিষ্টাচারবহির্ভূত। মির্জা ফখরুলের এই বক্তব্যের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তথ্যমন্ত্রী বলেন, শিষ্টাচার তো বিএনপির কাছ থেকে আমাদের শিখতে হবে না। মির্জা ফথরুল ইসলাম আলমগীর সাহেবকে বলব তার নেত্রীকে শিষ্টাচার শেখানোর জন্য। তিনি এমন একটি দলের মহাসচিব যে দলের চেয়ারপারসনের ছেলে কোকো মারা যাওয়ার পর দেশের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার দুয়ারের সামনে গিয়ে ১৫-২০ মিনিট দাঁড়িয়েছিলেন। বেগম খালেদা জিয়া দরজা খোলেননি। কোনো শত্রুও যদি সহমর্মিতা জানানোর জন্য কারো বাড়িতে হাজির হয় আমাদের সামাজিক আচার হচ্ছে, তার জন্য দরজাটা খুলে দেয়া।
তিনি বলেন, ২০১৪ সালের নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে টেলিফোন করে গণভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। টেলিফোনে যে ভাষায় বেগম খালেদা জিয়া কথা বলেছেন, সেটি সব শিষ্টাচারবহির্ভূত ছিল। তাই আমি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে তার নেত্রীকে শিষ্টাচার শেখানোর জন্য বলব। প্রধানমন্ত্রী গতকাল যেটি বলেছেন, দেশের প্রধানমন্ত্রী ও সরকারপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব হচ্ছে কোনো শাস্তিপ্রাপ্ত আসামির শাস্তি কার্যকর করা। এটি রাষ্ট্রের দায়িত্ব।

বিএনপির সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা শপথ নিয়ে বলেছেন, এই সংসদ অবৈধ। এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে হাছান মাহমুদ বলেন, এই কথার মাধ্যমে ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা নিজেকে অবৈধ বলেছেন। শপথ নিয়ে বলছেন, এই সংসদ অবৈধ। এর মানে এই সংসদের সংসদ সদস্য হিসেবে তিনিও অবৈধ। এটিতে হাসব, নাকি কিছু বলব বুঝে উঠতে পারছি না। তাদের বক্তব্যে সব সময় দ্বৈততা।

নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধ করতে হবে : তথ্যমন্ত্রী
চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, নারীর প্রতি সহিংসতা ও শিশুর প্রতি নির্মমতা বন্ধ করতে হবে। উন্নত বাংলাদেশ গড়তে তাদের মাঝে মেধা, দেশাত্ববোধ ও মূল্যবোধের জাগ্রত করতে হবে। তিনি রোববার রাতে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা সৈকতে তথ্য মন্ত্রণালয়ের শিশু ও নারী উন্নয়নে সচেতনতামূলক যোগাযোগ কার্যক্রমের আওতায় বাংলাদেশ বেতারের বহিরাঙ্গন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক নারায়ন চন্দ্র শীলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ, আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ আজহারুল হক প্রমুখ।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা একটা ¯¦প্নের বাংলাদেশের কল্পনা করি। প্রধানমন্ত্রী সেই স্বপ্নের বাংলাদেশের রূপকল্প আমাদের সামনে উপস্থাপন করেছেন। সেই ধরণের দেশ যদি গঠন করতে হয় তাহলে সেই ধরণের মানুষ প্রয়োজন। সেই ধরণের মানুষ হচ্ছে মেধা সম্পন্ন বুদ্ধিদীপ্ত মূল্যবোধে উন্নত দেশাত্ববোধে জাগ্রত। মূল্যবোধ, দেশাত্ববোধ ও মেধার সমন্বয় যদি একটি মানুষের মধ্যে ঘটে তাহলে সে উন্নত হয়ে উঠে। আর এই সমন্বয় ঘটানোর সময় হচ্ছে শিশু ও তরুণ বয়স।

সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, সর্বক্ষেত্রে নারীরা এগিয়ে যাচ্ছে দক্ষতার সাথে। নারীদের অবজ্ঞা ও অবহেলা করে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। শিশুদের দায়িত্ব নিতে হবে আমাদেরকে। পরিবারের পক্ষ থেকে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি নৈতিক শিক্ষা দিতে হবে শিশুদের। নারী ও শিশুদের পেছনে ফেলে উন্নত জাতি হিসেবে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তথ্যমন্ত্রী


আরও
আরও পড়ুন