Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার ২১ জুলাই ২০১৯, ০৬ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৭ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

মধুখালী রেলস্টেশনে ট্রেনের টিকেট নাই

মধুখালী (ফরিদপুর) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ১০ জুন, ২০১৯, ১১:৫১ পিএম

রাজবাড়ী , ফরিদপুর-গোপালগঞ্জ এ তিন জেলার মধ্যে অবস্থিত কালুখালী -ভাটিয়াপাড়া রেলপথ । কালুখালী -ভাটিয়াপাড়া এক্সপ্রেস লোকাল ট্রেনটি দিনে একবার আশা যাওয়া করে । মধুখালী রেলস্টেশনে লোকাল ট্রেনের ১৫/২০ দিন যাবৎ কোন টিকেট নাই।
সোমাবর দুপুর সাড়ে ১২ টা দিকে স্টেশনে গিয়ে দেখা যায়, কালুখালী -ভাটিয়াপাড়া এক্সপ্রেস ট্রেনটি কালু খালী থেকে ছেড়ে আসা ট্রেনটি মধুখালী রেলস্টেশনে প্রবেশের আগে রেলস্টেশনে প্রায় ১হাজার ১২শ যাত্রী ট্রেনের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে আছেন । ট্রেন যাত্রী টিকেট চাইলে দিতে পারছে না স্টেশন মাষ্টার। ট্রেনের ভিতরে টিকেট কালেশন করেন একজন মাত্র টিটি। সে পারছে না সব যাত্রীকে চেক করতে এর ফলে যাত্রী যে যার মত টিকেটের টাকা ফাঁকি দিয়ে গন্তব্য যাচ্ছেন। এতে প্রতিদিন রেলের হাজার হাজার টাকা লোকসান গুনতে হচ্ছে, সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব ।
মধুখালী রেলস্টেশন মাষ্টার মিন্টু কুমার রায় মোবাইলে জানান মধুখালী রেল স্টেশনে ১৫/২০ দিন কোন লোকাল ট্রেনের যাত্রী টিকেট নাই । চট্টগ্রাম থেকে টিকেট পাঠান হয়েছে হয়তো ২/৩ দিনের মধ্যে স্টেশনে পৌছাবে তখন যাত্রীদের টিকেট দিতে পারবো আশা করছি।


মধুখালী উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মির্জা মনিরুজ্জামান বাচ্চু জানান, দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকা রেললাইনটি বর্তমান সরকারের প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সদইচ্ছায় চালু করা সম্ভব হয়েছে। বিনা টিকিটে যাত্রী চলাচল করলে এ লাইনটি লোকসানের মুখে পড়বে। তিনি দ্রুত টিকিট সরবরাহের দাবী জানান।
মধুখালী পৌরসভার মেয়র খন্দকার মোরশেদ রহমান লিমন বলেন, লোকসান ঠেকাতে জরুরীভাবে কর্তৃপক্ষকে টিকিট সরববরাহ করতে হবে যাতে করে যাত্রীরা টিকিট কেটে গাড়ীতে উঠতে পারে।
বেশ কয়েকদিন যাবৎ ঘরমুখো ঈদ যাত্রীর বেশ চাপ রয়েছে কালুখালী -ভাটিয়াপাড়া এক্সপ্রেস ট্রেনটিতে । বর্তমানে স্ব-স্ব কর্মস্থলে ফিরতেও এ লাইনে চাপ রয়েছে যাত্রীদের। কিন্তু টিকিট না থাকার সুযোগে প্রতিদিন বিনা টিকেটে যাত্রী চলাচল করছে। এর ফলে সরকার লক্ষ লক্ষ টাকা ক্ষতির সম্মুখিন হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী ভিত্তিতে এ দিকে নজর দেওয়া দরকার বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করেন। তা না হলে রেলকে মোটা অংকের টাকা লোকসান গুনতেই হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ