Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯, ০৫ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৬ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

পায়ের কাছে ঘুমাতে বাধ্য করায় খুন

কারাগারে অমিত খুনের দায় স্বীকার রিপনের

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১২ জুন, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

কারাগারের ৩২ নম্বর সেলে পায়ের কাছে ঘুমাতে বাধ্য করায় রাগের মাথায় অমিত মুহুরীকে হত্যা করেছে বলে জানিয়েছে আসামি রিপন নাথ। গতকাল মঙ্গলবার চট্টগ্রামের অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম মো. মহিউদ্দিন মুরাদের আদালতে রিপন এ জবানবন্দি দেন। জবানবন্দি রেকর্ড শেষে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে দুর্ধর্ষ যুবলীগ সন্ত্রাসী ১৭ মামলার আসামি অমিত মুহুরীকে ইটের আঘাতে মাথা থেতলে খুনের বর্ণনা দেন অস্ত্র মামলায় গ্রেফতার রিপন নাথ।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) মো. কামরুজ্জামান বলেন, রিপন নাথ হত্যাকান্ডের দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। জবানবন্দিতে সে জানিয়েছে, ঘটনার রাতে অমিত মুহুরীর সঙ্গে ঘুমোনোর জায়গা নিয়ে তার গÐগোল হয়। অমিত তাকে পায়ের কাছে ঘুমোতে বাধ্য করে। এতে রাগের মাথায় সে অমিতকে ইট দিয়ে আঘাত করে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক আজিজ আহমেদ বলেন, ৩২ নম্বর সেলে নেওয়ার পর রিপন ও অমিত একসঙ্গে ধূমপান করেছিল। অমিত তাকে গালিগালাজ করে এবং বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি এমনকি ‘জ্বীনের ভয়ও’ দেখায়। এতে সে অমিতের ওপর ক্ষুব্ধ হয়েছিল। ক্ষোভ থেকে রিপন নাথ একাই অমিতকে খুন করেছে বলে আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছে। গত ২৯ মে রাতে অমিতকে ৩২ নম্বর সেলে হত্যা করা হয়। পরদিন নগরীর কোতোয়ালী থানায় মামলা দায়ের করেন চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার নাসির আহমেদ। মামলায় অমিত যে কক্ষে খুন হয়েছেন অর্থাৎ ৩২ নম্বর সেলের ৬ নম্বর কক্ষের আরেক হাজতি রিপন নাথকে (২৭) আসামি করা হয়। নগরীর নন্দনকাননে বন্ধুকে নৃশংসভাবে খুনের পর ড্রামে ভরে এসিড দিয়ে লাশ গলিয়ে দিঘীতে ফেলার মামলায় ২০১৭ সালের ২ সেপ্টেম্বর ভয়ঙ্কর সন্ত্রাসী অমিত মুহুরীকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। অমিত যুবলীগের কেন্দ্রীয় উপ-অর্থ বিষয়ক সম্পাদক হেলাল আকবর চৌধুরী বাবরের বলয়ে সক্রিয় ছিল। তার বিরুদ্ধে হত্যা, অস্ত্র ও চাঁদাবাজিসহ ১৭টি মামলা ছিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কারাগার


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ