Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬, ১৫ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

চাঁদা না পেয়ে এবার আম সাবাড়

রাজশাহী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১২ জুন, ২০১৯, ১:৫৩ পিএম

চাঁদা না দেয়ায় এবার চাঁদাবাজরা ৩০মন আম লুটে নিল। এর আগে রাজশাহীর দুর্গাপুরের দেবীপুর বাগিচাপাড়া গ্রামের ডাহার বিলে মাছচাষি আবদুল আওয়ালের পুকুর পাড়ের প্রায় ৩৫০টি কলাগাছ কেটে ফেলা হয়। গত ২৫ মে উপজেলার এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর পাঁচজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন দেবীপুর আবদুল আওয়াল। জামিন নিয়ে আসামিরা এবার তার পুকুর পাড়ের ১২টি গাছ থেকে প্রায় ৩০ মণ আম পেড়ে নিয়ে গেছে বলে থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।
তার দাবি, আসামিরা মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছিলেন। মামলা না তোলার কারণে ওই পাঁচ আসামিসহ আরও কয়েকজন মিলে লাঠিশোটা নিয়ে গিয়ে প্রকাশ্যেই তার গাছ থেকে আম পেড়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। মোট ২০টি গাছের মধ্যে ১২টি আম পেড়ে নিয়ে যায়। আবদুল আওয়াল যে পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন তারা হলেন, দেবীপুর গ্রামের বাছের আজিজুর রহমান, জালাল উদ্দিন, দেলোয়ার হোসেন, শাওন রহমান ও সফির বাবু ওরফে দিনু। মামলা দায়েরের পর এদের কাউকেই গ্রেপ্তার করেনি পুলিশ। এ নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হলে সম্প্রতি আসামিরা আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন। আদালত তাদের ১০ দিনের জামিন মঞ্জুর করেন।
মাছচাষি আবদুল আওয়াল বলেন, গত ২৫ মে আসামিরা তার পুকুরে গিয়ে তাকে বলেন, এখানে মাছ চাষ করতে হলে তাদের পাঁচ লাখ টাকা দিতে হবে। তিনি চাঁদা না দেয়ার কারণে কলাগাছ কেটে ফেলা হয়। তিনি মামলা করার পর আসামিরা ১০ দিনের জামিনে নিয়ে এসে মামলা তুলে নেয়ার জন্য প্রতিনিয়ত হুমকি দিচ্ছিলেন। কিন্তু মামলা না তোলার কারণে তার গাছ থেকে আম পেড়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আওয়াল বলেন, আমি আর অত্যাচার সহ্য করতে পারছি না। দুর্গাপুর থানার ওসি বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাজশাহী


আরও
আরও পড়ুন