Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ২৪ জুলাই ২০১৯, ০৯ শ্রাবণ ১৪২৬, ২০ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

ময়মনসিংহে যুবলীগ কর্মী খুন, পুকুর থেকে লাশ উদ্ধার

ময়মনসিংহ ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৩ জুন, ২০১৯, ৭:০৬ পিএম

ময়মনসিংহ নগরীতে শফিকুল ইসলাম শপু(২৫) নামের এক যুবলীগ কর্মী খুন হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ
নগরীর আকুয়া হাবুন বেপারী মোড় এলাকার একটি পুকুর থেকে তার গলিত লাশ উদ্ধার করেছে।
পুলিশ ও পারিবারক সূত্র জানায়, শপু নগরীর বাশবাড়ি কলোনির সুরুজ মিয়ার ছেলে। সে মহানগর যুবলীগের আলোচিত সদস্য নিহত আজাদ শেখের ঘনিষ্টভাজন ছিল।
পুলিশ জানায়, গত ১০ জুন সন্ধ্যায় একজনের কাছে পাওনা টাকা উঠানোর জন্য বাসা থেকে বের হয়ে যায় শপু। এরপর সে আর বাসায় ফিরেনি। এ ঘটনায় গত ১১ জুন যুবলীগ কর্মী শপুর দ্বিতীয় স্ত্রী এবং প্রয়াত যুবলীগ নেতা আজাদ শেখের বোন আফরোজা শেখ ইতি কোতোয়ালী থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করে। ডায়েরী নং ৬৭৬।
স্থানীয়রা জানায়, শপুর প্রথম স্ত্রী মাহমুদা (২০) এর সাথে গত ৪ মাস আগে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। ওই স্ত্রীর সংসারে একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। তবে গত চার মাস যাবত শপু দ্বিতীয় স্ত্রী মৃত আজাদ শেখের সৎ বোন আফরোজা শেখ ইতিকে বিয়ে করে তার সঙ্গেই বসবাস করতেন।
সূত্র জানায়, এলাকার আধিপত্য এবং স্থানীয় পিকস্ট্যান্ডের চাঁদা উঠানো নিয়ে একই এলাকার একাধিক গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলছিল।
কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি তদন্ত মনসুর আহমেদ বলেন, নিখোঁজের তিন পর শপুর গলিত লাশ পাওয়া গেছে। ধারনা করা হচ্ছে ৩/৪ দিন আগে তাকে হত্যা করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তবে ঘটনার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ তৎপর রযেছে। ইতিমধ্যে শপুর মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লাশ উদ্ধার

১৯ জুলাই, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ