Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী

মুহুরী নদীতে ওষুধ প্রয়োগে মাছ শিকার

ছাগলনাইয়া (ফেনী) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৪ জুন, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

অসংখ্য মানুষকে নদীতে জাল নিয়ে মাছ ধরতে। বর্তমানে নদীর পানি অনেকটা কমে গেছে। ফলে কিছু দুর্বৃত্ত মাছ শিকারিরা এই সময়টাকে বেছে নিয়েছে। নদীর গ্রোত না থাকায় তারা বিষাক্ত ওষুধ দিয়ে রুই, কাতলা, মৃঘেল, কালিঘনি, বোয়াল, চিংড়ি, সরপুঁটিসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ নিধন করেছে। ৬২ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে ও ৭১ মিটার প্রস্থের নদীটি এখন পরিণত হয়েছে একটি সরু খালে। এক দিকে মাছ নিধন যেমন চলছে অন্যদিকে চলছে নদী ভরাট। ফলে আগামী দিনে এই নদী থাকবে কি না সংশয় দেখা দিয়েছে। স্থানীয় মাছ শিকারী শহীদুল্লাহ ও আবুল কালাম জানান, রাতে কে বা কাহারা নদীতে ওষুধ দেয়ায় মাছ ভেসে উঠেছে। তাই দ্রত তারা মাছ ধরতে যাচ্ছে।কারা ওষুধ দিয়েছে জানতে চাইলে, এ প্রতিবেদক কে তারা কারো নাম বলতে পারেনি। দীর্ঘদিন থেকে মুহুরী নদীর মাছগুলো একটা চক্র বিষাক্ত ওষুধ দিয়ে মেরে বাজারে বিক্রি করছে। আমরা এর বিরুদ্ধে কিছুই করতে পারছি না। ঈদের দুই দিন আগেও তারা একই কাজ করেছে। প্রতি মাসেই তারা মাছ নিধন করছে। যার ফলে এখন আর নদীতে আগের মত মাছ পাওয়া যায় না।কাশিপুর ১নং ওয়ার্ড মেম্বার হোসাইন আহমেদ বাচ্চু বলেন, মুহুরী নদীতে একটি চক্র ওষুধ প্রয়োগ করে প্রতিনিয়ত মাছ শিকার করছে। আমরা বিষয়টা জেনেছি। এই অপরাধি চক্রকে ধরার জন্য প্রশাসনসহ আমরা ব্যবস্থা নেব। এই চক্রের কারণে মাছ বিলিন হয়ে যাচ্ছে। নদীতে এখন ছোট ছোট পোনা মাছও আর দেখা যায় না। বিষাক্ত ওষুধে সব মরে গেছে।এ ব্যাপারে ছাগলনাইয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেজবাহ উদ্দিন আহমদ জানান, আমি এখানে নতুন যোগদান করেছি কে বা কারা ওষুধ দিয়ে মাছ শিকার করছে বা মাছ নিধন করছে এটা আমরা খতিয়ে দেখছি। যারা এর সঙ্গে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।



 

Show all comments
  • Assaduz Zaman ১৪ জুন, ২০১৯, ২:০৮ এএম says : 0
    শুধু অবৈধ সরকারের কারনে সব জায়গায় অবৈধ কাজ হচ্ছে।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Farash Uddin Yasin ১৪ জুন, ২০১৯, ২:০৯ এএম says : 0
    Very bad
    Total Reply(0) Reply
  • MD Abu Taher ১৪ জুন, ২০১৯, ২:০৯ এএম says : 0
    শাস্তিযোগ্য অপরাধ ।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মাছ শিকার

১১ এপ্রিল, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন