Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

সাবেক স্ত্রী ও সৎ মেয়েকে পুড়িয়ে আত্মহত্যা

পাথরঘাটা (বরগুনা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৪ জুন, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

বরগুনার পাথরঘাটায় সাবেক স্ত্রী ও সৎ মেয়েকে পেট্রল দিয়ে আগুনে পুড়ে আত্মহত্যা করেছে সাবেক স্বামী বেল্লাল (৩৮) নামে এক জেলে। ঘাতক বেল্লালের দেয়া আগুনে ঘটনা স্থলে কারিমা (১১) নামে বেল্লালের সৎ মেয়ে পুড়ে মারা গেছে এবং কারিমার মাতা মোসা. সাজেনুর (৩২) নামে বেল্লালের সাবেক স্ত্রীকে আশংকাজনক অবস্থায় বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান হয়েছে।

জানা যায়, ৬ মাস পূর্বে পাথরঘাটা উপজেলার পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড রুহিতা গ্রামের আ. মালেক আকনের তালাকপ্রাপ্তা মেয়ের সাথে বরগুনার নিদ্রারচর নামক স্থানের আব্দুছ ছত্তারের ছেলে মো. বেল্লাল (৩৮) নামে এক জেলের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পরে বেল্লাল স্ত্রীকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করতে থাকে। অবশেষে বাধ্য হয়ে ২০দিন পূর্বে সাজেনুর বেল্লালকে ডিভোর্স দেয়। এতে বেল্লাল ক্ষীপ্ত হয়ে ১২ জুন বুধবার দিবাগত রাত অনুঃ দুইটার দিকে সাজেনুরের পিতার বাড়ি রুহিতা গ্রামে গিয়ে সাজেনুরের পিতার বসত ঘরে পেট্রল দিয়ে আগুন দিলে ঘরের মধ্যে ঘুমিয়ে থাকা সাজেনুরের পিতা মাতাসহ ৭জনের মধ্যে ৫জন ঘর থেকে বের হতে পারলেও ঘটনা স্থলে কারিমা (১১) নামে সাজেনুরের পূর্বের সংসারের মেয়ে মারা যায় এবং কারিমার মাতা মোসা. সাজেনুর (৩২) এর শরীরের ৮০ভাগ পুড়ে গেলে তাকে আশংকাজনক অবস্থায় বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান হয়। এসময় ঘাতকের আগুনে ঘরের বারান্দায় বেধেঁ রাখে একটি গরু এবং ঘরে থাকা লক্ষাধিক টাকাসহ ঘরটি সম্পূর্ন পুড়ে ছাঁই হয়ে যায়। ঘাতক বেল্লাল আগুন দেওয়ার সময় নিজেও কিছুটা আগুনে পুড়ে গেলে ঘটনা স্থল থেকে বাঁচাও বাঁচাও চিৎিকার দিয়ে মাছেরখাল নামক খালের পাশের একটি আম গাছের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। পুলিশ ঘটনা স্থল থেকে বেল্লাল ও কারিমার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনায় পাঠিছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আত্মহত্যা


আরও
আরও পড়ুন