Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯, ০২ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

পাবনায় ঠাকুর ও ঘোষদের মধ্যে মারামারি, ইউপি চেয়ারম্যানসহ আহত ৪

পাবনা থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ জুন, ২০১৯, ৩:৩০ পিএম

পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় ঠাকুর ও ঘোষ পরিবারের মধ্যে মারামারির ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৪ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার দিলপাশার ইউনিয়নের দিলপাশার গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জেরে এই মারামারির ঘটনা ঘটে। 

আহতরা হলেন, উপজেলার দিলপাশার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অশোক কুমার ঘোষ প্রণো এবং তার দুই ভাই তপন কুমার ঘোষ (৫৮) ও তরুণ কুমার ঘোষ (৪৬)।
সূত্রে জানা যায়, গ্রামের হিন্দু সম্প্রদায়ের সবাইকে ঠাকুর পরিবারের এক ব্যক্তির মায়ের শ্রাদ্ধে নিমন্ত্রণ করা হয়। কিন্তু পূর্ব শত্রতার কারণে প্রণো ঘোষকে শ্রাদ্ধে যেতে নিষেধ করা হয়। ফলে দুপুর গড়িয়ে গেলেও অনেকে অনুপস্থিত থাকেন। এর কারণ জানার পর বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান অশোক কুমার ঘোষ প্রণো প্রভাত কুমারসহ কয়েকজন তার কাছে যায় এবং শ্রাদ্ধে অংশ নিতে জন্য অনুরোধ করেন। তিনি রাগান্বিত হয়ে প্রভাত কুমার সহ কয়েকজনকে কিল ঘুষি মারেন ও প্রাণ নাশের হুমকী দিয়ে তাড়িয়ে দেন। প্রভাত কুমারের ভাষ্য, ‘আমারা শুধু চেয়ারম্যানকে শ্রাদ্ধে অংশ নিতে বলতে গিয়েছিলাম। অশোক কুমার ঘোষ বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে দেবু ঠাকুরের মায়ের শ্রাদ্ধের নিমন্ত্রণে ‘আমি উপস্থিত না হওয়ায় আমাকে ও আমার দুই ভাইকে তারা প্রহার করেছে। দুই ভাইকে আহতদের ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
ভাঙ্গুড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মাসুদ রানা জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পুনরায় সংঘর্ষ-সংঘাত যাকে না হয়ে সেজন্য এখনও পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এ ছাড়াও থানা পুলিশের গাড়ি মাঝে মধ্যে এলাকায় টহল দিচ্ছে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আহত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ