Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯, ০২ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

বাংলাদেশ-ভারতে তরুণ বয়সে হৃদরোগের জন্য দায়ী খাদ্যাভ্যাস -ডা. দেবী শেঠী

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৫ জুন, ২০১৯, ১০:০০ পিএম

বাংলাদেশ-ভারতে তরুণ বয়সেই যেভাবে হৃদরোগ বেড়ে যাচ্ছে তার পেছনে দায়ী খাদ্যাভ্যাস। একথা বললেন বিশ্বখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠী। আজ শনিবার চট্টগ্রামে আধুনিকমানের ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে ডা. দেবী শেঠী তার এ পর্যবেক্ষণের কথা জানান। প্রসঙ্গত ভারত ছাড়াও বাংলাদেশ থেকে প্রচুর হৃদরোগী খ্যাতনামা কার্ডিয়াক সার্জন ও ব্যাঙ্গালোর নারায়ণা হৃদয়ালয় হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ডা. দেবী শেঠীর কাছে চিকিৎসার জন্য যান।
চট্টগ্রামে এ মতবিনিময়ে ডা. দেবী শেঠী আরও বলেন, ইউরোপে হৃদরোগ হয় অবসরকালীন সময়ে। অর্থাৎ ষাট বছরের পর। তবে বাংলাদেশ-ভারতসহ এ অঞ্চলের মানুষের হৃদরোগ হয় তরুণ বয়স থেকেই। এর প্রধান কারণ জিনগত। এ অঞ্চলের মানুষের জীবনধারা, খাদ্যাভাস, ধূমপান, ডায়াবেটিস হৃদরোগের জন্য দায়ী বলে তিনি উল্লেখ করেন।
তিনি বলেন, ভারত ও বাংলাদেশের মানুষ অসুস্থ হওয়ার পর চিকিৎসকের কাছে যান। কেন তারা সুস্থ থাকার সময় যাবেন না? সুস্থ থাকার সময়ও চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে। সবকিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখতে হবে কতটা সুস্থ আছি আমি।
বাংলাদেশ ও ভারতের চিকিৎসা পদ্ধতি প্রায় একই ধাঁচের একথা জানিয়ে ডা. শেঠী বলেন, তা সত্ত্বেও কিছু লোক দেশের বাইরে যাচ্ছে বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থার কারণে।
নিজের ইচ্ছার কথা জানিয়ে সদালাপী এই কার্ডিয়াক সার্জন বলেন, চট্টগ্রামে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো হৃদরোগের আধুনিক চিকিৎসাসেবা দেয়ার ইচ্ছা তার রয়েছে। চট্টগ্রামে উদ্বোধন হওয়া ইম্পেরিয়াল হাসপাতালের বৈশিষ্ট্য প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এ হাসপাতালে আমাদের নারায়ণা হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ দল কাজ করবে। মাঝেমধ্যে আমিও আসব। আশা করি এখানকার মানুষ আধুনিক চিকিৎসা পাবেন।



 

Show all comments
  • মুরশাদ সুবহানী ১৭ জুন, ২০১৯, ২:৫৫ এএম says : 1
    বিশ্বখ্যাত কর্ডিয়াক সার্জন , চিকিৎসক ডা. দেবী শেঠী চট্টগ্রামে ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল উদ্বোধন করে বাংলাদেশে হৃদরোগীদের জন্য এক যুগান্তকরী কাজ করলেন। দৈনিক ইনকিলাব-এর চট্টগ্রাম ব্যুরো পরিবেশিত খবরটিও ভাল হয়েছে ।
    Total Reply(0) Reply
  • Zulfiquar Bhotto ১৬ জুন, ২০১৯, ৫:১২ এএম says : 0
    Its not genetic Dr. Shetti. Its the hot and hostile weather that the hearts of Indo-BD people need to combat constantly which reduces the lifespane of our hearts. Also you ignore the water and sound polution which Europeans dont face but indo-Bd people face. Remember 70-90% of our heart cell is water. These causes Indo-Pak-BD people to have heart deases at younger age as compared to Europeans. Dr Sheti you are scientist but it seems he does not lecture like a scientist.
    Total Reply(0) Reply
  • Sarwar kamal ৯ জুলাই, ২০১৯, ১১:০০ এএম says : 0
    Dr Sheri is great he admit suggestions of our prophet predicted 1400yrs ago plain living avoiding tension not to be money monger etc
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন