Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২২ জুলাই ২০১৯, ০৭ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৮ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

তিন তালাক নিষিদ্ধে ফের বিল আনবে বিজেপি

বিরোধিতার কথা জানালো কংগ্রেস

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ জুন, ২০১৯, ১২:০৮ এএম

তিন তালাক প্রথা নিষিদ্ধ করতে কেন্দ্রের এনডিএ সরকার সংসদে নতুন বিল আনছে। আগামীকাল সোমবার শুরু হতে চলা সংসদের বাজেট অধিবেশনে নতুন বিলটি পেশ করা হবে। গত ফেব্উয়ারি কেন্দ্রের প্রাক্তন বিজেপি-এনডিএ সরকার যে অর্ডিন্যান্স এনেছিল, তার পরিবর্তে আসছে বিলটি। ষোড়শ লোকসভা গত মাসে ভেঙে গেছে। তাই রাজ্যসভায় বকেয়া থাকার ফলে আগের বিলটির আর বৈধতা নেই। এই প্রেক্ষাপটে নতুন বিলের বেশ কিছু বিষয়ের বিরোধিতা করবে, সেগুলি নিয়ে প্রশ্ন তুলে তর্ক-বিতর্ক করবে বলে জানিয়ে দিয়েছে কংগ্রেস। নতুন বিলটি গত বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় ছাড়পত্র পেয়েছে।

বিলের ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে কংগ্রেস মুখপাত্র অভিষেক মনু সিংভি বলেন, আমরা বেশ কিছু ইস্যু তুলেছি। আপত্তি করেছি। বেশ কয়েকটি বিতর্কিত বিষয়ে সরকারও সম্মত হয়েছে। সুতরাং দীর্ঘ সময়ের ব্যবধানে আমরা সফল হয়েছি। সরকার আমাদের তোলা পয়েন্টগুলি আগেই মানলে অনেকটা সময় বাঁচানো যেত। এখন দু-একটা বিষয় বাকি আছে। যেমন, সংশ্লিষ্ট পরিবারের আর্থিক নিরাপত্তার বিষয়টি। আমরা এ নিয়ে বিতর্ক, বিরোধিতা করব।

মুসলিম মহিলা (বিবাহ সংক্রান্ত অধিকার রক্ষা) বিলে তিন তালাক (তালাক-ই-বিদআত) প্রথাকে শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলা হয়েছে। বিরোধী দলগুলি বিলের তীব্র বিরোধিতা করে দাবি করে, তাতে একজন পুরুষকে স্ত্রীকে ডিভোর্স দেয়ার জন্য কারাবাসের শাস্তির যে বিধি আছে, তা আইনে টেকে না।

প্রসঙ্গত, সপ্তদশ লোকসভার প্রথম অধিবেশনে নতুন সরকার তাৎক্ষণিক তিন তালাক প্রথা বাতিলসহ ১০টি অর্ডিন্যান্সকে আইনে রূপান্তরিত করতে চায়। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি, মার্চে আগের সরকার সেগুলি জারি করেছিল ১৬তম লোকসভার শেষ অধিবেশনে আইনে বদলানো যায়নি বলে। এবার বর্তমান সরকারকে ৪৫ দিনের মধ্যে অর্ডিন্যান্সগুলিকে আইনে পরিণত করতে হবে, নইলে সেগুলির বৈধতা নষ্ট হয়ে যাবে। সূত্র : এবিপি আনন্দ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ