Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ২৪ জুলাই ২০১৯, ০৯ শ্রাবণ ১৪২৬, ২০ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

ওয়াসার পানিতে এবার জোঁক

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৬ জুন, ২০১৯, ১২:০৮ এএম

পশ্চিম শেওড়াপাড়ার বাসিন্দা আহমেদ মাহী বুলবুল তার বাড়ির পানি ব্যবহার করতে গিয়ে হঠাৎ ভয় পাচ্ছেন। গত কয়েকদিন থেকে পানিতে বিভিন্ন ধরনের পোকা আসছিল। গত বৃহস্পতিবার তিনি দেখেন অন্যান্য পোকার সঙ্গে দুটি জোঁকও রয়েছে। পাঁচ বছর বয়সী একটি ছোট্ট শিশু আছে বুলবুলের। তার স্ত্রী একটি কলেজে শিক্ষকতা করেন। দিনের একটি অংশ শিশুটি বাবার সঙ্গে, কিছুক্ষণ মায়ের সঙ্গে কাটায়। কখনো কখনো সে একাই থাকে। আর এখানেই ভয় বুলবুলের। জোঁক যদি শিশুটাকে কামড়ে দেয়!

ঢাকায় বসবাসকারীদের ওয়াসার পানি নিয়ে অভিযোগের অন্ত নেই। কখনও পানি সরবরাহ স্বাভাবিক না থাকার অভিযোগ। কখনও সরবরাহ স্বাভাবিক থাকলেও নোংরা বা দুর্গন্ধযুক্ত হওয়ায় তা ব্যবহার করা যায় না।
পশ্চিম শেওড়াপাড়ায় আহমেদ বুলবুলের মতো ধানমন্ডির গ্রিন রোড এলাকাতেও বেশ কয়েকজন গ্রাহক পানিতে জোঁক পাওয়ার অভিযোগ করেছেন সাংবাদিকদের কাছে। বুলবুলের বাসা পশ্চিম শেওড়াপাড়ার ১১৭/৬ ও ১১৮/৫ নাম্বার প্লটে। ১০তলা বিশিষ্ট প্লটটিতে বেশ কয়েকটি পরিবারের বসবাস। পুরো প্লটের পানির উৎস একই হওয়ায় সবাই একই সমস্যায় ভুগছেন। অতীতে বুলবুলের বাসায় পানিতে বিভিন্ন সময়ে পোকা পাওয়ার পর তারা ওয়াসাকে অভিযোগ করলে ওয়াসার পক্ষ থেকে তাদের বাসার পানির ট্যাংক বা হাউজ পরিস্কার না বলে উল্টো অভিযোগ করেন।

বুলবুল বলেন, অতীতে পানিতে পোকা পাওয়ার অভিযোগ করে কোনো লাভ হয়নি। ওয়াসার ভাষ্য, আমাদের পানির ট্যাংক থেকে এমনটি হচ্ছে। কিন্তু আমার কাছে অবাক লাগছে গত চার দিন আমাদের ট্যাংকি পরিস্কার করা হয়েছে। তাহলে এবার এবার এমন হবে কেন? গ্রিন রোড এলাকার বাসিন্দা জাকির হোসেন অভিযোগ করেন, পানির কল খুললে কোঁচো ও বিভিন্ন ধরণের পোকা আসছে। একইসঙ্গে পানিতে দুর্গন্ধ তো আছেই। পানি ব্যবহার করাই যাচ্ছে না।

গ্রিন রোড এলাকার ২০০ নাম্বার গলির তাকওয়া মসজিদের খাদেম বলেন, রোজার আগে থেকেই মসজিদের পানি ব্যবহার করা যাচ্ছিল না গন্ধের জন্য। এ নিয়ে মসজিদ কমিটি ওয়াসাকে অভিযোগ করেছে, কিন্তু তারা এখন পর্যন্ত ব্যবস্থা নেয়নি। ঈদের পর থেকে দেখছি, পানিতে ছোট ছোট কোঁচো বের হচ্ছে। গত রাতে এশার নামাজের আগে মুসল্লিরা অনেকেই অভিযোগ করেছে, পানির সঙ্গে জোঁক দেখা গেছে।

এই মসজিদের পঞ্চম তলায় একটি আবাসিক মেস রয়েছে। সেখানে থাকেন, এমন কয়েকজন জানান, তারা দোকান থেকে কিনে পানি খাচ্ছেন। গত কয়েকদিনের পোকা পাওয়ার ঘটনায় তারা ঠিকমত গোসল ও অন্যান্য কাজে ঠিকমতো পানি ব্যবহার করতে পারছে না।

এ বিষয়ে ওয়াসার পরিচালক প্রকৌশলী শহিদুল ইসলাম বলেন, এইরকম ঘটনা ঘটে থাকে। এটা আমরা স্বীকার করছি। সাধারণত এ ধরণের ঘটনা ঘটে পাইপ ছিদ্র হয়ে গেলে। যার কারণে বিভিন্ন ধরনের পোকা প্রবেশ করে। যেহেতু আমরা বিষয়টি জেনেছি, ঠিকানা অনুযায়ী এই সমস্যা দ্রুত সমাধান করব।



 

Show all comments
  • Md Mizanur Rahman Liton ১৬ জুন, ২০১৯, ১:৪৯ এএম says : 0
    ওয়াশা কর্তৃপক্ষকে আবার শরবত খাওয়াতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • AloCk MitRa ১৬ জুন, ২০১৯, ১:৪৯ এএম says : 0
    দুদিন পর কুমির আসবে সাবধান
    Total Reply(0) Reply
  • Nazmul Islam Sumon ১৬ জুন, ২০১৯, ১:৫০ এএম says : 0
    কয়দিন পড় সাপ ও পাওয়া যাবে
    Total Reply(0) Reply
  • Xaman Xaman ১৬ জুন, ২০১৯, ১:৫০ এএম says : 0
    ওয়াসার কিছু করার নাই এটা প্রাণী এবং মৎস সম্পদ মন্ত্রনালয়ের ব্যাপার
    Total Reply(0) Reply
  • Karima Sultana Mukti ১৬ জুন, ২০১৯, ১:৫০ এএম says : 0
    ওয়াসার পরিচালককে জোক দিয়ে তরকারি রান্না করে খাওয়ান
    Total Reply(0) Reply
  • Kalam Khan ১৬ জুন, ২০১৯, ১:৫১ এএম says : 0
    হুম ১০০% সঠিক কথা ঈদের ৩/৪ দিন ভালোই ছিলো ওয়াসার পানি এখন আবার পচা পানি আসছে
    Total Reply(0) Reply
  • Rahnuma Sultana ১৬ জুন, ২০১৯, ১:৫১ এএম says : 0
    ওয়াসায় কর্মরতদের খাওয়ানো হোক এসব জোঁকসহ।
    Total Reply(0) Reply
  • Nazera Zahir Chowdhury ১৬ জুন, ২০১৯, ১০:৪১ এএম says : 0
    Suspend wasa MD
    Total Reply(0) Reply
  • Sayed Hossin ১৬ জুন, ২০১৯, ১০:৪১ এএম says : 0
    Opekka koren kisudin pore saf o asbe ata Digital bangla...
    Total Reply(0) Reply
  • Md Belayet Hossain ১৬ জুন, ২০১৯, ১০:৪৩ এএম says : 0
    ইয়াক....!!!! আর এই টাই হলো বাংলাদেশের কথিত উন্নয়ন...!
    Total Reply(0) Reply
  • Chowdury Maruf ১৬ জুন, ২০১৯, ১০:৪৪ এএম says : 0
    ওয়াসার পানিতে এতদিন ময়লা আসত এখন আসছে জোঁক , চিন্তার কারণ নেই, অপেক্ষা করুন, কিছুদিনের মধ্যেই মাছ আসতে শুরু করবে
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ