Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬, ০৭ শাবান ১৪৪১ হিজরী

ফিঞ্চের দেড়শ’র পর শ্রীলঙ্কার রেকর্ডযাত্রা

স্পোর্টস রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ১৬ জুন, ২০১৯, ২:১৪ এএম

বিশ্বকাপে নিজেদের পঞ্চম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে রেকর্ড রান তাড়ার চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। এরপরও আক্ষেপ হওয়ারই কথা বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। অ্যারোন ফিঞ্চ ও স্টিভ স্মিথ যে ভিত গড়ে দিয়ে যান তাতে যে দলীয় সংগ্রহ সাড়ে তিনশ’ অনায়াশেই হওয়ার কথা।

শনিবার লন্ডনের কেনিংটন ওভালে বিশ্বকাপের ২০তম ম্যাচে ৭ উইকেটে ৩৩৪ রানের সংগ্রহ গড়ে অস্ট্রেলিয়া। ফিঞ্চ একাই করেন ১৩২ বলে ১৫ চার ও পাঁচ ছক্কায় ১৫৩ রান। স্মিথের ব্যাট থেকে আসে ৫৯ বলে ৭৩। শেষ দিকে গে্লন ম্যাক্সওয়েলের ২৫ বলে ৪৬ রানের ক্যামিও সংগ্রহটা বড় করতে ভূমিকা রাখে।

ডেথ ওভারে শ্রলঙ্কার বোলিং ছিল অসাধারণ। স্মিথের সঙ্গে তৃতীয় উইকেটে ১৭৩ রানের জুটির গড়ে ৪৩তম ওভারে ফিঞ্চ আউট হওয়ার পর অস্ট্রেলিয়া করতে পারে ৬১ রান। এর মধ্যে ম্যাক্সওয়েলের একার রানই ৪৬। এসময় দ্রুত উইকেট হারানোয় অজিদের সংগ্রহটা প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি।

ডেভিড ওয়ার্নার এদিন ছিলেন খোলোসাবৃত। ১৭তম ওভারে ৮০ রানের জুটি গড়ে ওয়ার্নার যখন আউট হন তখন তার নামের পাশে ৪৮ বলে ২৬, বাউন্ডারি মাত্র দুটি। যা তার নামের সঙ্গে একেবারেই বেমানান। অথচ আগের ম্যাচে তার ঝড়ো শতকে ভর করেই পাকিস্তানকে হারিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া।

স্কোরবোর্ডে রানের গতি ধরে রাখেন ফিঞ্চ। ৫৩ বলে ফিফটি করার পর ৯৭ বলে ক্যারিয়ারের ১৪তম শতক পূর্ণ করেন এই ডানহাতি। চলতি আসরে অধিনায়ক হিসেবে প্রথম সেঞ্চুরি করলেন তিনি। দেড়শ পূর্ণ করেন ১২৮ বলে। লঙ্কান বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঝড় গেছে নুয়ান প্রদীপের উপর দিয়ে। ১০ ওভারে ৮৮ রান দিয়ে উইকেটশূন্য ছিলেন ডান-হাতি পেসার। ১০ ওভারে ৫৭ রানে ২ উইকেট নিয়ে ইনিংসের সেরা বোলার ইশুরু উদানা। মালিঙ্গা ১০ ওভারে ৬১ রান দিয়ে নেন স্মিথের উইকেটটি।

লঙ্কানদের জিততে হলে গড়তে হত রেকর্ড। বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ৩২৭ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড আছে।২০১১ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের দেওয়া ৩২৭ রান তাড়া করে জিতেছিল আয়ারল্যান্ড। এই রিপোর্ট লেখার সময় রেকর্ডটা হালনাগাদ করার পথেই ছিল ছিয়ানব্ববইয়ের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। ১৩ ওভারেই তাদের স্কোরবোর্ডে জমা পড়ে বিনা উইকেটে ১০৩। ৪৯ বলে ৫২ রানে ব্যাট করছিলেন দিমুথ করুনারতেœ, ৩১ বলে ৪৮ রানে কুসল পেরেরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন