Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ সফর ১৪৪১ হিজরী

আলোচিত ওসি মোয়াজ্জেম ঢাকায় গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ জুন, ২০১৯, ১২:০৬ এএম


পরোয়ানা জারির ২০ দিন পর অবশেষে ঢাকায় গ্রেফতার হলেন ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেন। গতকাল রোববার রাজধানীর শাহবাগ থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তাকে ফেনী পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে। পুলিশ সদর দফতরের জনসংযোগ বিভাগের এআইজি সোহেল রানা ও রমনা বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) মারুফ হোসেন সরদার এসব বিষয় জানান।

মারুফ হোসেন সরদার গতকাল বিকেলে বলেন, হাইকোর্টের পাশ থেকে মোয়াজ্জেমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বর্তমানে শাহবাগ থানায় রাখা হয়েছে। ফেনীর পুলিশকে খবর দেয়া হয়েছে। যেহেতু মামলা তারা তদন্ত করছেন, তাই মোয়াজ্জেমকে তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আদালত থেকে জামিন নেওয়ার উদ্দেশ্যে গ্রেফতারি পরোয়ানা এড়িয়ে গত ২০ দিন আত্মগোপনে ছিলেন মোয়াজ্জেম। এজন্য দাড়ি-গোঁফ বড় করে চেহারাও পাল্টানোর চেষ্টা করেন। পরে গতকাল কৌশলে আদালত চত্বরে যাওয়ার সময় তাকে নজরদারিতে রাখা পুলিশ সদস্যরা বিষয়টি টের পেয়ে যায়। পরে আদালত চত্বরে ঢোকার আগেই শাহবাগ থানার একটি দল তাকে গ্রেফতার করে। এছাড়া সাদা পোশাকের পুলিশ সদস্যরা তাদের সহযোগিতা করেন।

সোনাগাজী থানার সাবেক এই ওসির সঙ্গে থাকা তার সাবেক গাড়িচালক মোহাম্মদ জাফর বলেন, জামিনের জন্য সকাল ১০টায় তারা অ্যাডভোকেট সালমা ইসলামের চেম্বারে যান। সেখান থেকে তারা আদালতে গিয়ে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনের মামলাটির শুনানির জন্য আবেদন করেন। দুপুর ১টার দিকে আবেদনটিতে নম্বর পড়ে। নম্বর: ৪২৭৭০। এ সময় তাদের জানানো হয়Ñ আজ সোমবার সকাল ১০টায় মামলাটির শুনানি হবে। এদিকে, দুপুরে মোয়াজ্জেম খাবার খেতে হাইকোর্ট চত্বরের বাইরে যান। কিন্তু সেখানে গোয়েন্দা পুলিশের উপস্থিতি বুঝতে পেরে কৌশলে ফিরে আসেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শহবাগ থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

প্রসঙ্গত, ফেনীর মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে তার মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে গত ২৭ মার্চ সোনাগাজী থানায় সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল সিরাজ উদ্দৌলার বিরুদ্ধে মামলা করেন। এরপর প্রিন্সিপালকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের নামে নুসরাতের বক্তব্য ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেন ওসি মোয়াজ্জেম। এ ঘটনায় ১৫ এপ্রিল ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা দায়ের করেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সুমন। পরে ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেন ২৭ মে মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেন।

এর আগে, গত ৬ এপ্রিল আলিম আরবি প্রথম পত্রের পরীক্ষা দিতে গেলে দুর্বৃত্তরা নুসরাত জাহান রাফিকে ছাদে ডেকে নিয়ে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতাল ও পরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে গত ১০ এপ্রিল নুসরাত মারা যায়।

 

 



 

Show all comments
  • Salim Humayun ১৭ জুন, ২০১৯, ১:৫১ এএম says : 0
    গ্রেফতারের ছবি প্রকাশ করুন
    Total Reply(0) Reply
  • Mohamad Rafiqul Islam ১৭ জুন, ২০১৯, ১:৫১ এএম says : 0
    নাটকের অবসান কি আসলেই হলো নাকি আরো নাটক দেখার জন্য দেশবাসীকে আর কতো সময় অপেক্ষা করতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Aaman Khan ১৭ জুন, ২০১৯, ১:৫২ এএম says : 0
    আলহামদুলিল্লাহ। মুয়াজ্জেমর পেছনের লোক গুলো কে এবার ধরেন।এটা কি লোক দেখানো গ্রেপ্তার???? সরকার চাইলে আগেই কাজ টা করতে পারতো মাঝ থেকে একটু জল ঘোলা করে ক্রেডিট নিলো।
    Total Reply(0) Reply
  • Lutfor Rahman Jahangir ১৭ জুন, ২০১৯, ১:৫২ এএম says : 0
    পাপের বোঝা বেশি হলে যা হওয়া উচিত । ওসির ঘুষ খাওয়ার প্রবণতা এবং দায়িত্বহীনতার কারণে ই নুসরাত কে হত্যা করার সাহস যুগিয়েছে এ কথাটি পুরোপুরি সত্য ।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Arif Bhuiyan ১৭ জুন, ২০১৯, ১:৫৩ এএম says : 0
    সাইবার ক্রাইম অনেক কঠিন মামলা। ওসির কুকর্ম দেশবাসী দেখেছেন এবং পিবিআই এর তদন্তে ও সুস্পষ্ট ভাবে দোষী তা প্রমাণিত হয়েছে। এখন ওসি ও ওসির দোসরদের কোন তকদির বা অনুতপ্ততা কাজে আসবে না। যতক্ষণ না ওসির সর্ব্বোচ শাস্তি নিশ্চিত হবে ততক্ষণ ওসি ও ওসির অনুসারীরা ও বুঝবে না মোয়াজ্জেম কত কত কত কঠিন কঠিন কঠিন অপরাধ অপরাধ অপরাধ করেছেন।
    Total Reply(0) Reply
  • Azad Ashraf ১৭ জুন, ২০১৯, ১:৫৩ এএম says : 0
    নিশ্চিত থাকুন ওনাকে সাতখুন মার্ডার আসামি মেজর তারেক সাঈদের সাথে জামাই আদরে রাখাহবে ভি আইপি মর্যাদায় আর নাহয় কোনো বিলাসবহুল প্রাইভেট হসপিটালে শত হলেও গত ডে নাইট নির্বাচনের ফেনী সোনাগাজীর সভাপতি ছিলেন
    Total Reply(0) Reply
  • মাশরুল আহমেদ ১৭ জুন, ২০১৯, ১:৫৪ এএম says : 0
    সুধু মোয়াজ্জেম নয়,এদের মতো আরো কিছু ঘৃন্যতম পুলিশ সারাদেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে।তাদের নজরাদিতে রাখতে হবে,।তা হলে আস্তে আস্তে পুলিশের মধ্যে দািয়ত্ত বোধ ফিরে আসবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Kamal ১৭ জুন, ২০১৯, ১১:২৬ এএম says : 0
    আলোচিত না ঘৃনিত।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গ্রেফতার


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ