Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

টানা জয়ের রেকর্ড ধরে রাখল ভারত

আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১৯

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ জুন, ২০১৯, ১২:৩৩ এএম

রোহিত শর্মার সেঞ্চুরিতে ভর করে পাকিস্তানের বিপক্ষে বিশ্বকাপে জয়ের ধারা বজায় রাখলো ভারত। এ নিয়ে বিশ্বকাপ আসরে টানা সাতবার জয় নিয়ে মাঠ ছাড়লো দুইবারের চ্যাম্পিয়নরা। আজ প্রথমে ব্যাট করে ৩৩৬ রানের পাহাড় গড়ে কোহলির দল। বৃষ্টির হানায় ম্যাচের দৈর্ঘ্য কমে হয় ৪০ ওভার। জবাবে ৪০ ওভার ব্যাট করে ৬ উইকেট হারিয়ে ২১২ রান তোলে পাকিস্তান। ডার্কওয়াথ লুইস পদ্ধতিতে ভারত ম্যাচটি জিতে নেয় ৮৯ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত: ৩৩৬/৫ (৫০ ওভার) (রাহুল ৫৭, রোহিত ১৪০, কোহলি ৭৭, পান্ডিয়া ২৬, ধোনি ১, বিজয় ১৫, জাদব ৯; আমির ৪৭/৩, হাসান ৮৪/১, ওয়াহাব ৭১/১, ইমাদ ৪৯/০, শাদাব ৬১/০, মালিক ১১/০, হাফিজ ১১/০)

পাকিস্তান: ২১২/৬ (৪০ ওভার/৪০ ওভার) (ইমাম ৭, ফখর ৬২, বাবর ৪৮, হাফিজ ৯, সরফরাজ ১২, মালিক ০, ইমাদ ৪৬*, শাদাব ২০*; ভুবেনেশ্বর ৮/০, বুমরাহ ৫২/০, বিজয় ২২/২, পান্ডিয়া ৪০/২, কুলদিপ ৩২/২, চাহাল ৫৩/০)

ফল: ভারত ৮৯ রানে জয়ী (ডার্কওয়াথ লুইস পদ্ধতিতে)

ম্যাচসেরা: রোহিত শর্মা

পাক-ভারত ম্যাচে ফের বৃষ্টির বাধা

শুরুর ধাক্কা সামলে উঠতে না উঠতেই কুলদ্বীপ-পান্ডিয়ার এক স্পেলেই লণ্ডভণ্ড পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইন আপ। ১১৭ রান এক উইকেট থেকে মূহুর্তেই পাকিস্তান বনে যায় ১২৯ পাঁচে! সেই ধ্বস মেরামতে যখন কাঠ-খড় পুড়ছিলেন শরফরাজের দল, ঠিক তখনই ফের ওল্ড ট্র্যাফোর্ড নামে বৃষ্টি।

৩৫ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারানো পাকিস্তানের সংগ্রহ ১৬৬। ২২ রানে অপরাজিত আছেন ইমাদ ওয়াসিম, তাকে সঙ্গ দিতে ক্রিজে আসা শাদাব খানের ঝুলিতে মাত্র ১ রান।

জয় থেকে তখনও ১৭১ রান দূরে বিরানব্বই বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। বৃষ্টিতে যদি আর খেলা না-ও হয়, তাহলে ডার্ক ওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে ভারতের জয়টি হবে ৮৬ রানের।

পাকিস্তান শিবিরে হঠাৎ ধ্বস

নিজের দুই ওভারে দুই সেট ব্যাটসম্যান ফখর জামান আর বাবর আজমকে ফিরিয়েছিলেন কুলদ্বীপ যাদব। পরের ওভারে এসে পরপর দুই বলে মোহাম্মদ হাফিজ আর সোয়েব মালিককে ফিরিয়ে ভারতকে ম্যাচে ফেরালেন হার্দিক পান্ডিয়া।

২৮ ওভার শেষে মুহুর্তেই ৫ উইকেট বনে যাওয়া পাকিস্তানের সংগ্রহ ১৩২। ক্রিজে এসেছেন নতুন দুই ব্যাটসম্যান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ ও ইমাদ ওয়াসিম। জয়ের জন্য এখনও প্রয়োজন ২০৫ রান।

ফখর-বাবরকে ফেরালেন কুলদ্বীপ

শুরুর ধাক্কা সামলে দু’জনে টেনে নিচ্ছিলেন দলকে। ফিফটি তুলে দারুণ খেলছিলেন ফখর জামান, তাকে যোগ্য সঙ্গ দিয়ে সেই একই পথে হাঁটছিলেন বাবর আজমও। কিন্তু কুলদ্বীপ যাদবের ৬ বলের ব্যবধানে দুজনকে তুলে নিয়ে পাকিস্তানের লড়াইয়ে বড় ধাক্কা দিলেন কুলদ্বীপ যাদব। ৬২ রানে ফিরেছেন ফখর, ফিফটি থেকে ২ রান আগে ফিরেছেন বাবর।

২৬ ওভার শেষে ৩ উইকেট হারানো পাকিস্তানের সংগ্রহ ১২৬। তাকে সঙ্গ দিতে ক্রিজে এসেছেন মোহাম্মদ হাফিজ।

ফখর-বাবরে এগোচ্ছে পাকিস্তান

মাত্র ১৩ রানে ইমামকে হারানো পাকিস্তানকে এগিয়ে নিচ্ছেন ফখর-বাবর জুটি। এই দুই ব্যাটসম্যান এখন পর্যন্ত স্কোরবোর্ডে ৫১ রান যোগ করেছেন। ফখর ২৮ রানে ও বাবর ২৭ রানে অপরাজিত আছেন।

দলীয় সংগ্রহ ১৫ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে ৬৪ রান। জয়ের জন্য আরো প্রয়োজন ২৭৩ রান।

ইমামকে ফেরালেন বিজয়

চতুর্থ ওভারের ৪টি বল করে ইনজুরিতে পড়েন ভুবেনেশ্বর। পরের দুটি বল করতে এসে প্রথম বলেই ইমামকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন তিনি। ইমাম ফেরার আগে ৭ রান করেন। ফখর ও বাবর দুজনেই ৬ রানে অপরাজিত আছেন।

দলীয় সংগ্রহ ৬ ওভার শেষে ১ উইকেটে ২০ রান।

জিততে হলে রেকর্ড করতে হবে পাকিস্তানকে

রোহিত শর্মার সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বড় সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছে ভারত। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ৩৩৬ রানে তুলেছে কোহলির দল। জয়ের জন্য রেকর্ড করতে হবে পাকিস্তানকে। বিশ্বকাপে ৩২৭ রান তুলে জয় পেয়েছিলো আয়ারল্যান্ড, ২০১১ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।

এছাড়া পাক-ভারত বিশ্বকাপ লড়াইয়েও সর্বোচ্চ রান করল ভারত। বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে এতদিন সর্বোচ্চ রান ছিল ৩০০। চার বছর আগের বিশ্বকাপে ভারত এই রান করেছিল। এবার সেই স্কোর টপকে ভারত করল ৩৩৬ রান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত: ৩৩৬/৫ (৫০ ওভার) (রাহুল ৫৭, রোহিত ১৪০, কোহলি ৭৭, পান্ডিয়া ২৬, ধোনি ১, বিজয় ১৫, জাদব ৯; আমির ৪৭/৩, হাসান ৮৪/১, ওয়াহাব ৭১/১, ইমাদ ৪৯/০, শাদাব ৬১/০, মালিক ১১/০, হাফিজ ১১/০)

কোহলিকে ফিরিয়ে শীর্ষে আমির

ভারতীয় অধিনায়ক কোহলিকে ফিরিয়ে দিয়ে যুগ্মভাবে এবারের বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক হলেন আমির। বিশ্বকাপের এবারের আসরে স্টার্ক ও আমির দুজনের উইকেট সংখ্যাই ১৩। বিজয় ৫ রানে ও জাদব ১ রানে অপরাজিত আছেন।

৪৮ ওভারে ভারতের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৩১৪ রান।

বৃষ্টির কারনে খেলা বন্ধ

ভারতীয় ইনিংসের ২০ বল বাকি থাকতে বৃষ্টির বাধায় খেলা বন্ধ রয়েছে। বৃষ্টির আগ পর্যন্ত বিজয় ৩ রানে ও কোহলি ৭১ রানে অপরাজিত আছেন। বৃষ্টির পর খেলা শুরু হলে ৪৬ ওভারে পাকিস্তানের টার্গেট দাঁড়াবে ৩২৭ রান। যদি ম্যাচটি কমপক্ষে ২০ ওভার গড়ায়, তাহলে পাকিস্তানকে করতে হবে ১৮৪ রান।

স্কোর-৪৬.৪ ওভারে ৩০৫/৪

আমিরের দ্বিতীয় শিকার ধোনি

পান্ডিয়ার বিদায়ের পর ক্রিজে ব্যাট করতে আসা ধোনিকে ক্রিজে টিকতে দেননি আমির। মাত্র ১ রানেই ধোনিকে সরফরাজের ক্যাচে পরিণত করেন এই পেসার। কোহলি ৭০ রানে ও বিজয় ১ রানে অপরাজিত আছেন।

৪৬ ওভারে ভারতের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৩০২ রান।

পান্ডিয়াকে ফেরালেন আমির

দুই চার ও এক ছয়ে ২৬ রান করা পান্ডিয়াকে ফেরালেন আমির। কোহলি ৫৬ রানে ও ধোনি ০ রানে ব্যাট করছেন।

৪৪ ওভার শেষে ভারতের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ২৮৬ রান।

রোহিত ঝড় থামালেন হাসান

ভারতকে শক্ত ভিতের উপর দাঁড় করিয়ে দিয়েছেন রোহিত। রাহুল ফেরার পরে কোহলির সঙ্গেও বড় জুটি করেছেন। কিন্তু হাসানের বলে স্কুপ করতে গিয়ে রিয়াজের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন এই বিধ্বংসী ওপেনার। ফেরার আগে ১১৩ বলে ১৪০ রান করেন তিনি। কোহলি ৩০ রানে ও পান্ডিয়া ৪ রানে অপরাজিত আছেন।

৩৯ ওভারে ভারতের সংগ্রহ ২ উইকেটে ২৩৮ রান।

সাকিবকে টপকে রোহিতের সেঞ্চুরি

বিশ্বকাপে সাকিবের ২৬০ রান অতিক্রম করার পর ব্যক্তিগত ২৪তম সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন রোহিত। এবারের বিশ্বকাপে এটা তার দ্বিতীয় শতরানের ইনিংস। মাত্র ৮৫ বলে করা এই সেঞ্চুরিতে ৯টি চার ও ৩টি ছক্কার মার আছে। কোহলি অপরাজিত আছেন ৯ রানে।

৩০ ওভার শেষে ভারতের সংগ্রহ ১ উইকেটে ১৭২ রান।

রাহুলকে ফেরালেন ওয়াহাব

দুর্দান্ত খেলতে থাকা রাহুলকে ফেরালেন ওয়াহাব। ব্যক্তিগত ৫৭ রান করে বাবরের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। অবশ্য এর আগেই দলকে বড় সংগ্রহের ভিতে দাঁড় করিয়েছেন এই ওপেনার। রোহিত ৭৫ রানে ও কোহলি ০ রানে অপরাজিত আছেন।

২৪ ওভার শেষে দলীয় সংগ্রহ ১ উইকেটে ১৩৬ রান।

রোহিত-রাহুলে বড় সংগ্রহের পথে ভারত

দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান রোহিত ও রাহুলে বড় সংগ্রহের দিকে যাচ্ছে ভারত। মাত্র ১৮ ওভারেই দলীয় শতরান পূর্ণ করে কোহলির দল। রোহিত ৭৪ রানে ও রাহুল ৫৭ রানে অপরাজিত আছেন।

২৩ ওভার শেষে সংগ্রহ বিনা উইকেটে ১৩৪ রান।

ভুলের মাশুল দিচ্ছে পাকিস্তান

ওয়াহাবের ১০ম ওভারে ও ইমাদের ১১তম ওভারে রোহিতের দুটি সহজ রান আউটের সুযোগ হাতছাড়া করে পাকিস্তান। সেই ভুলের মাশুল গুণতে হচ্ছে তাদের। মাত্র ৩৪ বলেই ব্যক্তিগত অর্ধশত রান পূর্ণ করেন এই ওপেনার। রোহিত ৫০ রানে ও রাহুল ২৭ রানে অপরাজিত আছেন।

১২ ওভার শেষে সংগ্রহ বিনা উইকেটে ৭৯ রান।

ভারতের দুর্দান্ত শুরু

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা ভারতের শুরুটা হয়েছে দুর্দান্ত। নিয়মিত ওপেনার শেখর ধাওয়ানের ইনজুরির কারনে রোহিত শর্মার সঙ্গে ভারতীয় ইনিংস উদ্বোধন করেন লোকেশ রাহুল। ইনিংসের প্রথম ৮ ওভারেই রোহিত ৪টি চার ও একটি ছক্কা হাঁকান। রাহুল মেরেছেন একটি চার। রোহিত ৩১ রানে ও রাহুল ১০ রানে অপরাজিত আছেন।

৮ ওভারে ভারতের সংগ্রহ বিনা উইকেটে ৪২ রান।

টসে জিতে বোলিংয়ে পাকিস্তান

টসে জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ।ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলিও টসে জিতলে বোলিং নিতেন বলে জানিয়েছেন। পাকিস্তান দল আজ দুইজন স্পিনার দলে রেখেছে। শাদাব খান ও ইমাদ ওয়াসিম ফিরেছেন মূল একাদশে। অন্যদিকে ভারতীয় স্কোয়াডে শেখর ধাওয়ানের পরিবর্তে খেলবেন বিজয় শঙ্কর।

স্পিন আক্রমন শক্তিশালী করেছে পাকিস্তান

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে একজন স্পিনারও খেলায়নি পাকিস্তান। আজ ভারতের বিপক্ষে দুইজন স্পিনার দলে নিয়েছে দলটি। ভারতের স্কোয়াডে কুলদীপ-চাহাল আক্রমনের বিপরীতে পাকিস্তান ব্যবহার করবে ইমাদ-শাদাব আক্রমন।

ভারতের একাদশ: রোহিত শর্মা, লোকেশ রাহুল, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), বিজয় শঙ্কর, কেদার জাদব, মহেন্দ্র সিংহ ধোনি (উইকেটরক্ষক), হার্দিক পান্ডিয়া, ভুবেনেশ্বর কুমার, কুলদিপ যাদব, যুগবেন্দ্র চাহাল, জসপ্রিত বুমরা।

পাকিস্তান একাদশ: ফখর জামান, ইমাম উল হক, বাবর আজম, মোহাম্মদ হাফিজ, সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), শোয়েব মালিক, ইমাদ ওয়াসিম, শাদাব খান, হাসান আলী, ওয়াহাব রিয়াজ, মোহাম্মদ আমির।

দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর লড়াই

বিশ্বকাপের ২২তম ম্যাচে মুখোমুখি লড়াইয়ে অবতীর্ণ হচ্ছে ভারত ও পাকিস্তান। ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে বাংলাদেশ সময় দুপুর সাড়ে তিনটায় খেলাটি অনুষ্ঠিত হবে। খেলার আগেই মিডিয়াতে বিজ্ঞাপনী লড়াইয়ে সমানে সমানে লড়েছে ভারত-পাকিস্তান। এবার খেলার মাঠেও তাই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই আশা করছেন ক্রিকেটভক্তরা।

পরিসংখ্যান:

মুখোমুখি লড়াইয়ের সমীকরনে বেশ এগিয়ে আছে ১৯৯২ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। কিন্তু বিশ্বকাপের লড়াইয়ের ময়দানে এগিয়ে ১৯৮৩ ও ২০১১ সালের চ্যাম্পিয়নরা।

ওয়ানডেতে:

ম্যাচ: ১৩১

পাকিস্তান জয়ী: ৭৩

ভারত জয়ী: ৫৪

পরিত্যক্ত: ৪

বিশ্বকাপে:

ম্যাচ: ৬

ভারত জয়ী: ৬

পাকিস্তান জয়ী: ০



 

Show all comments
  • Kazi Romjan Ali ১৭ জুন, ২০১৯, ১:১৪ এএম says : 1
    ৪০ ওভারে ২১২ রান,, ৫০ ওভারে ৩৩৭ সম্ভব ছিলো,, বৃষ্টি আইন ভারতের জয় এনে দিলো! সবই কপাল।
    Total Reply(0) Reply
  • Hasan Shikdar ১৭ জুন, ২০১৯, ১:১৫ এএম says : 1
    ম্যাচের শুরুতেই বলেছিলাম টস জিতে বোলিং নেয়াটা পাকিস্তানের ভুল সিদ্ধান্ত ছিলো,! এইতো গত কদিন আগেই বিশ্বকাপের সবচেয়ে শক্তিশালী টিম ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আগে ব্যাটি করে ৩৪৮ রানের বিশাল স্কোর করে ম্যাচ জিতে ছিলো পাকিস্তান,। গত চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে এই ইন্ডিয়ার বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ১৮০ রানের বিশাল ব্যবধানে ম্যাচ জিতেছিল তারা, রোহিত শর্মা, শিকর দাওয়ান,বিরাট কোহলির মতো ব্যাটসম্যান দের ১৫৮ রানে অল-আউট করে চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনাল জিতে ছিলো এই সারফরাজের পাকিস্তান,। যে কোন বড় দলের সাথে টস জিতে ব্যাট করা আমার কাছে যৌক্তিক ও বুদ্ধিমানের কাজ মনে হয়,। গত দিন নিউজিল্যান্ডের সাথে বাংলাদেশ আগে ব্যাটিং করলে ম্যাচ জেতার সম্ভাবনাই ছিলো প্রবল,। প্রথমে ব্যাটিং করে ৩০০ আপ রান করতে পারলে প্রতিপক্ষকে অনেকটা কাবু করা সম্ভব বলে আমার মনেহয় ।
    Total Reply(0) Reply
  • Nurul Huda Shumon ১৭ জুন, ২০১৯, ১:১৪ এএম says : 0
    অষ্টেলিয়া সাথে মিডেল অডার ২৪ রানে ৪ উইকেট পরছে!! ভারতের সাথে ১২ রানে ৪ উইকেট!! আর উইন্ডিজেন সাথে তো কথাই নাই!! এই টিম লইয়া পাকিস্তানের সাপোর্টার রা বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখতে পারলে!!! আফগানিস্তানের রশিদ খান দেখলে দোষ কিসের!!! সবাই আমরা রশিদ খানের কথা নিয়া হাসাহাসি করি!!! এখন পাকিস্তানদের সাপোর্টর দের নিয়া এখন একটু হাসাহাসি করি!!!!!!
    Total Reply(0) Reply
  • Md Erfan ১৭ জুন, ২০১৯, ১:১৬ এএম says : 1
    বৃষ্টি না হলে আজ ইন্ডিয়ার কপালে দুঃখ ছিল। বৃষ্টি আইনে হেরে গেল পাকিস্তান
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Jabad ১৭ জুন, ২০১৯, ১:১৯ এএম says : 0
    হারুক জিতুক হৃদয়ে দুটো নাম লেখা থাকবেই। প্রথমে নিজের দেশ বাংলাদেশ, আর নিজের দেশের দলের বাইরে পাকিস্তান।
    Total Reply(0) Reply
  • রাজ্যেহীন রাজা ১৭ জুন, ২০১৯, ১:২০ এএম says : 1
    পাত্তা না পেলেও আমি পাকিস্তান কে পছন্দ করি ,কোন .. খোরদের একে বারেই পছন্দ করি না। কারণ ভারত পৃথিবীর নিকৃষ্ট জাতি,আমার প্রিয় খেলা ফুটবল আর সব চেয়ে অপছন্দের দেশ ভারত।
    Total Reply(0) Reply
  • Riaz Thejonyjumbo ১৭ জুন, ২০১৯, ১:২১ এএম says : 0
    এখন আর আগের মতো ভারত,পাকিস্তানের খেলা জমে না। এখন বাংলাদেশ আর ভারতের খেলা ভাল জমে। উত্তেজনা তুঙ্গে থাকে।
    Total Reply(0) Reply
  • habib ১৭ জুন, ২০১৯, ১১:৪১ এএম says : 0
    bowling first after wining toss this is huge made mistake by Pakistan. if Pakistan first batting just score about 285 total then Mohammed Amir is a game changer player. Pakistan should realize this...
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১৯


আরও
আরও পড়ুন