Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ সফর ১৪৪১ হিজরী

সখিপুরে বিয়ের ৫ বছর পর পুলিশ দিয়ে ধরে এনে কাবিন

সখিপুর(টাঙ্গাইল)উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৭ জুন, ২০১৯, ১২:১৫ পিএম

টাঙ্গাইলের সখিপুরে বিয়ের পাঁচ বছর পর পুলিশ দিয়ে ধরে এনে বিয়ের নিবন্ধন (কাবিন বা নিকাহ রেজিস্ট্রেশন) করা হয়েছে। গত শনিবার রাতে সখিপুর পৌরসভার নিকাহ রেজিস্ট্রার (কাজি অফিস) কার্যালয়ে এ কাবিন করা হয়। নতুন রেজিস্ট্রি করা বরের নাম আরিফুল ইসলাম (৩০)। পেশায় তিনি অটোরিকশাচালক। তিনি সখীপুর পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের শিকদার রোড এলাকার খোরশেদ আলমের ছেলে। কনের নাম রুবি আক্তার (২৫)। তিনি একই ওয়ার্ডের রেজিস্ট্রিপাড়ার মৃত হাছেন আলীর মেয়ে। রুবি জানায়, আনুমানিক পাঁচ বছর আগে প্রেম করে তাদের বিয়ে হয়। একজন মৌলভী ধর্মীয়ভাবে তাদের বিয়ে পড়ালেও ওই সময় রাষ্ট্রীয় নীতিতে রেজিস্ট্রি (কাবিন) হয়নি। এভাবেই তাদের সংসার চলতে থাকে। সংসারে দুই বছরের একটি মেয়ে সন্তানও রয়েছে। মাঝে মধ্যেই তার স্বামী তাকে নানাভাবে মানসিক নির্যাতন ও মারধর করে। ঝগড়া বাধলে এই বলে হুমকি দেন যে, বিয়ের কাবিন নেই। তাই তালাক দিলেও কোনো মামলা হবে না। কারন মামলা করলে কাবিন লাগবে। রুবি বলেন, স্বজনদের মতামত নিয়ে তিনি বিষয়টি ওসিকে জানান। ওসি তার স্বামীকে থানায় ডেকে এনে কাজীর সঙ্গে কথা বলে কাবিনের ব্যবস্থা করেন। সখিপুর থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) মো. আমির হোসেন বলেন, রুবির মৌখিক অভিযোগ পেয়ে আরিফুলকে থানায় ডেকে এনে কাজীর সঙ্গে কথা বলে কাবিন করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এখন আর সহজে আরিফুল বলতে পারবে না যে তিনি বিয়ে করেননি। অটোরিকশাচালক আরিফুল এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। সখিপুর পৌরসভার কাজী(নিকাহ রেজিস্ট্রার) শফিউল ইসলাম বাদল কাবিন করার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পাঁচ লাখ টাকার কাবিন করা হয়েছে।



 

Show all comments
  • রফিকুলইসলাম ১৭ জুন, ২০১৯, ১২:৫৬ পিএম says : 0
    ভাল কাজ
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ