Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

বিচার সহজলভ্য করার উদ্দেশ্যে গ্রাম আদালত চালু হয়েছে : সিলেট জেলা প্রশাসক

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৭ জুন, ২০১৯, ৫:১২ পিএম

সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম বলেছেন, বাংলাদেশে বিচার ব্যবস্থার সর্বনিম্ন স্তর হচ্ছে গ্রাম আদালত। গ্রামাঞ্চলের কিছু মামলা নিষ্পত্তি এবং তৎসম্পর্কীয় বিষয়াবলী বিচার সহজলভ্য করার উদ্দেশ্যে গ্রাম আদালত অধ্যাদেশ ১৯৭৬ এর আওতায় এ আদালত গঠিত হয় এবং এটি একটি মীমাংসামুলক আদালত। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্যরা এলাকার সম্মানিত ব্যক্তি এবং জনপ্রতিনিধি, তাই তাদের দ্বারা আসল ঘটনার সত্যতা যাচাই করে একটি শান্তিপূর্ণ সমাধান খুঁজে বের করাই গ্রাম আদালতের উদ্দেশ্য। তিনি আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রামের প্রতিটি মানুষের ন্যায় ও সঠিক বিচারের লক্ষে গ্রাম আদালত আইন ২০১৬ প্রণীত করেন। এর ফলে গ্রামের নিরীহ জনগণ ন্যায় বিচার পাচ্ছেন। 

সোমবার সকালে নগরীর বন্দরবাজারস্থ একটি অভিজাত হোটেলে বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ প্রকল্প (২য় পর্যায়) স্থানীয় সরকার বিভাগ এর আওতায় সিলেট জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও প্যানেল চেয়ারম্যানদের গ্রাম আদালত বিষয়ক রিফ্রেশার্স প্রশিক্ষক প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, গ্রামীণ জনগণ বিশেষ করে নারী, দরিদ্র ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মধ্যে গ্রাম আদালত সম্পর্কে ব্যাপক জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের আহবান জানান।

স্থানীয় সরকার বিভাগ সিলেটের উপ-পরিচালক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে ও বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ প্রকল্প (২য় পর্যায়), ইউএনডিপি, সিলেটের ডিস্ট্রিক্ট ফ্যাসিলিটেটর খন্দকার রবিউল আউয়াল নাসিম এর পরিচালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার শাম্মা লাবিবা অর্নব, সুমাইয়া ফেরদৌস ও রিফাত আরা। সিলেট জেলার বিয়ানীবাজার উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও প্যানেল চেয়ারম্যান এবং গোলাপগঞ্জ উপজেলার ৩টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও প্যানেল চেয়ারম্যানগণ প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেছেন।
রিফ্রেশার্স প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষণ পরিচালক হচ্ছেন সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম, প্রশিক্ষণ সমন্বয়কারীর দায়িত্ব পালন করছেন স্থানীয় সরকার বিভাগ সিলেটের উপ-পরিচালক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান। বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি বিষয়ে সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার মতিয়ার রহমান, গ্রাম আদালত আইন ও বিধি এবং গ্রাম আদালতের বিচার প্রক্রিয়ার ধাপসমূহ বিষয়ে সিনিয়র সহকারী জজ ও জেলা লিগ্যাল এইড অফিসার মোঃ মামুনুর রহমান ছিদ্দিকী, শুদ্ধাচার, মূল্যবোধ ও গ্রাম আদালত বিষয়ে গোলাপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মামুনুর রহমান প্রশিক্ষণ প্রদান করেন। পরে উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন