Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার , ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

নয় লাখ ‘বিদেশি’র জন্য ১০ কারাগার চায় আসাম

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ জুন, ২০১৯, ৬:৪২ পিএম

ভারতে বিতর্কিত জাতীয় নাগরিক পঞ্জীর (এনআরসি) তালিকা প্রকাশের আগেই দিল্লির কাছে আরও ১০টি কারাগার গঠনের প্রস্তাব পাঠাল আসাম রাজ্য সরকার। তাদের আশঙ্কা, এনআরসি তালিকা প্রকাশের পর বিদেশি ট্রাইব্যুনাল থেকে বহু ‘বিদেশি’ শনাক্ত হবে। অনুপ্রবেশকারীদের জন্য এই বন্দিশালাগুলো প্রয়োজন হবে মনে করছে সরকার।

চলতি বছরের ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে বিতর্কিত এনআরসির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশিত হবে। এ বার আরো অন্তত ৯ লাখ আসামবাসীর গায়ে ‘বিদেশি’ তকমা লাগতে চলেছে। তাদের বন্দিশালায় ঢোকানোর অগ্রীম বন্দোবস্ত করতে তৎপর হয়েছে সরকার।

এর মধ্যেই আসামের ছটি জেলে রয়েছে বিদেশি বন্দিশালা বা ফরেনার্স ডিটেনশন ক্যাম্প। এই ছটি বন্দিশালায় বর্তমানে আটক ‘বিদেশি’ রয়েছেন ৯৮৬ জন। এদের প্রায় সবাই ধর্মীয় ও ভাষিক সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সদস্য। গোয়ালপাড়া এলাকায় শুধুমাত্র ‘বিদেশি’দের জন্য বিশেষ বন্দিশালা বানানো হচ্ছে। তিন হাজার ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন এই কারাগারের জন্য খরচ ধরা হয়েছে ৪৬ কোটি টাকা।

আসামের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা তরুণ গগৈয়ের অভিযোগ, পক্ষপাতদুষ্ট ও বিপথ চালিত এনআরসি প্রক্রিয়ায় লাখ লাখ মানুষ তাদের নাগরিকত্ব হারাতে চলেছেন।

সূত্র জানায়, আসামের এনআরসি প্রক্রিয়ায় আবেদন করেন ৩ কোটি ২৯ লাখ ৯১ হাজার ৩৮৪ জন। গত বছরের ৩০ জুলাই প্রকাশিত চূড়ান্ত খসড়া তালিকায় ৪০ লাখ ৭ হাজার ৭০৭ জন আবেদনকারীর নাম বাদ পড়ে। গত বছর ৩১ ডিসেম্বর নাম সংযোজনের চূড়ান্ত সময়সীমা পর্যন্ত মাত্র ৩১ লাখ আবেদন জমা পড়েছে। অর্থাৎ নয় লাখ মানুষ আবেদনই করেননি। এ ছাড়া লক্ষাধিক মানুষের এনআরসি তালিকাভুক্তি নিয়ে আপত্তি রয়েছে। অর্থাৎ ৩১ জুলাই এনআরসির চূড়ান্ত তালিকায় প্রায় ১০ লাখ আসামবাসী নাগরিকত্ব হারাতে চলেছেন। ভারতীয় দণ্ডবিধি অনুযায়ী তারা অবৈধ বিদেশি অনুপ্রবেশকারী হিসেবে গণ্য হতে পারেন।

আসাম রাজ্যে বর্তমানে ৩৩টি জেলার জন্য ১০০টি ফরেনার্স ট্রাইব্যুনাল রয়েছে। রাজ্য সরকার আরও এক হাজার ট্রাইব্যুনাল গঠনের অনুমোদন দিয়েছে। এর মধ্যে আগামী সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যেই চালু হবে ২০০টি ট্রাইব্যুনাল। তিন মাস পর পর্যায়ক্রমে শেষ হবে অতিরিক্ত এক হাজার ফরেনার্স ট্রাইব্যুনাল বানানোর প্রক্রিয়া। সূত্র: টিওআই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আসাম


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ