Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯, ০৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৯ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

‘এক দফা এক দাবি ডিজি তুই কবে যাবি!’

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

এক দফা এক দাবি, ইফা ডিজি সামীম তুই কবে যাবি। এক দফা এক দাবি ইফা ডিজি এক্ষুনি যাবি। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের জালেম ডিজি সামীম মোহাম্মদ আফজাল বিতাড়িত না হওয়া পর্যন্ত আমরা কর্মস্থলে ফিরে যাব না। দুর্নীতিবাজ স্বৈরাচারী ও স্বেচ্ছাচারী ডিজিকে আর ইফায় ঢুকতে দেয়া হবে না। তাকে ইফায় ঢুকতে হলে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের লাশের ওপর দিয়ে ঢুকতে হবে। দুর্নীতিবাজ ডিজি সামীমের স্বেচ্ছাচারিতার দরুণ আজ ইফার সর্বত্র অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল ১১টায় রাজধানীর আগারগাঁওস্থ ইফার প্রধান কার্যালয়ে ডিজির পদত্যাগ দাবিতে অবস্থান কর্মসূচিতে বিক্ষুব্ধ নেতৃবৃন্দ একথা বলেন। অবস্থান কর্মসূচিতে ঘোষণা করা হয়, বিতর্কিত দুর্নীতিবাজ ডিজি সামীমের অব্যাহতি না হওয়া পর্যন্ত কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারীই স্ব স্ব কর্মস্থলে ফিরে যাবে না। ডিজির বিরুদ্ধে চলমান আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। নেতৃবৃন্দ বলেন, দুর্নীতিবাজ ডিজির বিরুদ্ধে চলমান আন্দোলন নস্যাৎ করার লক্ষ্যে গতকাল বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের নিচে বৈদ্যুতিক সাব-স্টেশনে নাশকতামূলক অগ্নিকান্ড ঘটানো হয়েছে।

ইফার উপ-পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে অবস্থান কর্মসূচিতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পরিচালক মুহীউদ্দিন মজুমদার বাদল, উপ-পরিচালক আবু বকর সিদ্দিক, মুফতি আব্দুল্লাহ, ইফার কর্মকর্তা হাজেরা খাতুন, শফিকুর রহমান সরকার, সহকারি পরিচালক মাওলানা আব্দুল্লাহ আল মামুন, অর্থ বিভাগের হিসাব রক্ষক শরিফ উদ্দিন, চট্টগ্রামের উপ-পরিচালক সেলিম উদ্দিন, সিনিয়র সুপারভাইজার মুজিবুর রহমান, বাংলাদেশ সম্মিলিত ইসলামী জোটের সভাপতি হাফেজ মওলানা জিয়াউল হাসান, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের সিনিয়র যুগ্ম সাংগঠনিক সচিব সাইয়্যিদ মুজাফফর আহমদ মুজাদ্দেদী, বি-বাড়িয়ার মাওলানা আব্দুল আজিজ, আওয়ামী ওলামা লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ কাজী মাওলানা মো. আবুল হাসান শেখ শরীয়তপুরী, হাফেজ মাওলানা আব্দুস সাত্তার, শওকত আলী, মাওলানা নুরুদ্দিন, আশিকুর রহমান ও ইমাম সিরাজুল ইসলাম। অবস্থান কর্মসূচিতে ঢাকা জেলাসহ সারাদেশের কর্মকর্তা-কর্মচারিরা অংশগ্রহণ করেন। আজ বৃহস্পতিবারও সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলে ঘোষণা দেয়া হয়।

অবস্থান কর্মসূচিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুর্নীতির বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করেছেন। আমরাও ইফার দুর্নীতিবাজ ডিজি সামীমকে বিতাড়িত করে দুর্নীতিমুক্ত ইফা প্রতিষ্ঠা করবো। এদেশের জনগণ স্বৈরাচার এরশাদকে ক্ষমতার মসনদ থেকে হটিয়েছে, আমরাও স্বৈরাচার ডিজি সামীমকে ক্ষমতা থেকে টেনে হেঁচড়ে নামিয়ে ছাড়বো ইনশা আল্লাহ। হাফেজ মওলানা জিয়াউল হাসান বলেন, যার হায়া নেই, শরম নেই তার ঈমানও নেই। বর্তমান ডিজিরও ঈমানই নেই। তিনি ইফার সকল কর্মকর্তা-কর্মচারির সাথে অবিচার করেছেন। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ডিজি সামীমকে পদত্যাগের দাবি জানিয়ে মওলানা জিয়াউল হাসান বলেন, দেশবাসীর প্রত্যাশা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আর কোনো বিতর্কিত ব্যক্তিকে ইফা ডিজি নিয়োগ দেবেন না। একজন যোগ্য, দ্বীনদার ও দক্ষ ব্যক্তিকেই ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ডিজি পদে নিয়োগ দিবেন।

নেতৃবৃন্দ বলেন, বহু দুর্নীতির জন্মদাতা ডিজি সামীম ইফায় দুর্নীতির সর্বোচ্চ রেকর্ড গড়েছেন। বঙ্গবন্ধুর প্রতিষ্ঠিত ইসলামিক ফাউন্ডেশনকে আমরা দুর্নীতিমুক্ত দেখতে চাই। নেতৃবৃন্দ বলেন, উচ্চ আদালত রায় দেয়ার পরেও দুর্নীতিবাজ ডিজি সামীম গণশিক্ষা প্রকল্পের জনবল রাজস্ব খাতে স্থানান্তর না করে আদালতকে অবজ্ঞা করেছেন। ডিজি বিভিন্ন জরিপের নামে বরাদ্দ না থাকা সত্তে¡ও কোটি কোটি টাকার ফরম ছাপানো, কর্মকতা-কর্মচারীদের বার বার জেলা পর্যায়ে পাঠিয়ে কোটি কোটি টাকা অপচয় করেছেন। ডিজি মক্তব ফাউন্ডেশনের নামে তার দুই আস্থাভাজন কর্মকর্তা (ইফার সাবেক লাইব্রেরি প্রধান হারুন উর রশিদ-তাহের)-এর মাধ্যমে গণশিক্ষার নিরীহ শিক্ষক-কেয়ারটেকারদের নিকট থেকে কোটি কোটি টাকার চাঁদা আদায় করেছেন। এছাড়া আলেম-ওলামার সম্মুখে আমেরিকান মডেল কন্যাদের দিয়ে ব্যালে ড্যান্স দিয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ভাবমর্যাদা ক্ষুণœ করেছেন বর্তমান বিতর্কিত ডিজি। বহু অপকর্মের হোতা ডিজিকে শুধু পদত্যাগই নয়; তার বিচারও করতে হবে বলেও নেতৃবৃন্দের দাবি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ