Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯, ০৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৯ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

নেক্সিয়াম যৌন গুরু দোষী সাব্যস্ত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০১৯, ৫:৫০ পিএম

মেয়েদের যৌন দাসত্বে বাধ্য করা সেক্স কাল্ট বা যৌন গোষ্ঠী ‘নেক্সিয়াম’ এর গুরু কেইথ রনিয়্যারিকে দোষী সাব্যস্ত করেছে নিউইয়র্কের একটি আদালত। প্রায় ছয় সপ্তাহ ধরে বিচার কার্যক্রমের পরে ৫৮ বছরের রনিয়্যারিকে দোষী বলে রায় দেন আদালতের জুরিরা। তিনি তার ‘নেক্সিয়াম’ গোষ্ঠীর মধ্যে পিরামিড আদলে যৌনতার জন্য ‘দাসী এবং প্রভু’ জাতীয় একটি ব্যবস্থা গড়ে তুলেছিলেন।

তার বিরুদ্ধে আনা সবগুলো অভিযোগই প্রমাণিত হয়েছে, যার মধ্যে আছে দলবাজি করে অপরাধ করা, যৌনতার জন্য মানব পাচার আর শিশু পর্নগ্রাফি। যদিও এসব অভিযোগে নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করেছেন রনিয়্যারি, তবে অপরাধের কারণে তার যাবজ্জীবন সাজা হতে পারে। আইনজীবীরা বলছেন, রনিয়্যারি নিজেকে ‘বিশ্বের সবচেয়ে চালাক’ ব্যক্তি হিসাবে দাবি করতেন, যিনি নিজেকে আইনস্টাইন এবং গান্ধীর সঙ্গে তুলনা করতেন। আইনজীবীদের অভিযোগ, তিনি নারীদের মগজ ধোলাই করে দাস হিসাবে সংগঠনে অন্তর্ভূক্ত করতেন এবং তার সঙ্গে যৌন মিলনে বাধ্য করতেন। এদের মধ্যে হলিউডের নায়িকা এবং মেক্সিকোর সাবেক একজন প্রেসিডেন্টের কন্যাও রয়েছে- যারা রনিয়্যারির বিরুদ্ধে আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। এই গোষ্ঠীর অন্য সদস্যরা অপরাধ স্বীকার করে নিয়েছেন। সেপ্টেম্বর মাসে রনিয়্যারির সাজা ঘোষণা করা হবে।

আদালতে উপস্থাপিত তথ্যে জানা যাচ্ছে, নেক্সিয়ামের ভেতর ‘ডস’ বা ‘ভোউ’ নামের আরেকটি গোপন চক্র ছিল। সেখানে অনেকটা পিরামিডের আদলে ‘দাসী’ আর ‘প্রভু’ ব্যবস্থা তৈরি করা হয়েছিল। এই চক্রের সর্বোচ্চ অবস্থানে ছিলেন রনিয়্যারি, পুরো গ্রুপের একমাত্র পুরুষ সদস্য। দাসীদের দায়িত্ব ছিল তাদের নিজেদের জন্য আরো ‘দাসীর’ নিয়োগ করা, যারা সবাই আসলে রনিয়্যারির সেবায় কাজ করতো। এখানে যোগ দিতে হলে নারীদের এমন সব স্পর্শকাতর তথ্য দিতে হতো, যারা তারা প্রকাশ করতে চান না। যার মধ্যে রয়েছে, নিজের বা পরিবারের সদস্যদের গোপন ছবি বা ভিডিও।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাষ্ট্র


আরও
আরও পড়ুন