Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

আমদানি পণ্যে আগাম কর নিয়ে এনবিআর-এর নতুন নির্দেশনা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০১৯, ৭:৪৩ পিএম

আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত আগের শুল্কেই আমদানিকারকরা আমদানিকৃত পণ্য খালাস করতে পারবেন। তবে, ১ জুলাই থেকে আমদানিকারকদের ৫ শতাংশ আগাম কর পরিশোধ করেই পণ্য খালাস করতে হবে মর্মে ৩০০ টাকার স্ট্যাম্পে অঙ্গিকার নামা দিতে হবে। বৃহস্পতিবার (২০ জুন) এই সংক্রান্ত আদেশ জারি করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

আদেশে বলা হয়েছে, গত ১৩ জুন জাতীয় সংসদে অর্থবিল ২০১৯ উপস্থাপিত হয়। অর্থবিল ২০১৯ এর দফা ৭১ অনুযায়ী আমদানি পণ্য খালাসে আগাম কর আরোপ করা হয়। সরকারি প্রতিষ্ঠানসহ কিছু কিছু ক্ষেত্রে আগাম কর পরিশোধের পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ না থাকায় আমদানি পণ্য ছাড়করণে জটিলতা তৈরি হচ্ছে। তাই, ক্রান্তিকালীন সময়ে অর্থাৎ ২০ থেকে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত ১০ দিনের জন্য আমদানিকারকরা ৫ শতাংশ আগাম কর আইন অনুয়ায়ী পরিশোধ করবেন মর্মে ৩০০ টাকা স্ট্যাম্পে অঙ্গিকারনামা দিয়ে আগাম কর ছাড়া শুল্কায়ন ও খালাসের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

আরও বলা হয়েছে, সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্বশাসিত সংস্থা, দূতাবাস, বিশেষ সুবিধাপাপ্ত ব্যক্তি ও সংস্থা এবং আইন ও চুক্তিপত্রের মাধ্যমে সরকার থেকে অবহিত প্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান বা সংস্থা থেকে বিক্রয় বা হস্তান্তরের জন্য নয় এমন আমদানিকৃত পণ্য, বন্ড লাইসেন্স বা বন্ড রেজিস্ট্রেশন প্রাপ্ত সরাসরি রপ্তানিমুখি শিল্প প্রতিষ্ঠান, প্রচ্ছন্ন রপ্তানিমুখি শিল্প প্রতিষ্ঠান ও ডিপ্লোম্যাটিক বন্ডেডওয়্যার হাউস থেকে বন্ড লাইসেন্সের আওতায় আমদানিকৃত পণ্য, প্রেসিডেন্ট থেকে আমদানিকৃত পণ্য, অন্ধ ও বধিরদের জন্য আমদানিকৃত পণ্য, ডিফেন্স স্টোর হিসেবে আমদানিকৃত পণ্য, সরকারি প্রকল্পের আওতায় আমদানিকৃত পণ্য, তুলা, পলিস্টার ইয়ার্ন, ভিসকস ইয়ার্ন আমদানির ক্ষেত্রে, সরকার অনুমোদিত বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান থেকে আমদানিকৃত যন্ত্রপাতি, যন্ত্রাংশ ও শুধুমাত্র বিদ্যু উৎপাদন সংশ্লিষ্ট উপকরণ এবং কোনো নিবন্ধিত উৎপাদনকারী থেকে মূলধনী যন্ত্রপাতি সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে রেয়াতী সুবিধাপ্রাপ্ত যন্ত্রপাতি ও যন্ত্রাংশ আমদানিকৃত পণ্য শুল্কায়ন হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: এনবিআর


আরও
আরও পড়ুন