Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

অভ্যুত্থান ঠেকাতে গিয়ে ইথিওপিয়ার সেনাপ্রধান নিহত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ জুন, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

ইথিওপিয়ার রাজধানী আদ্দিস আবাবায় নিজ দেহরক্ষীর গুলিতে নিহত হয়েছেন দেশটির সেনাপ্রধান জেনারেল সিয়ারে মেকোনেন। ইথিওপিয়ার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমগুলোতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। ইথিওপিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় আমহারা এলাকার প্রশাসনের বিরুদ্ধে একটি অভ্যুত্থানের চেষ্টা ঠেকানোর কাজ করার কারণে জেনারেল মেকোনেন ও তার আরেক ঘনিষ্ঠ সহযোগী কর্মকর্তা জেনারেল গেজাই আবেরাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ।

হামলাকারী দেহরক্ষীকে আটক করে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে বলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে। প্রায় কাছাকাছি সময়ে আমহারাতে সেখানকার গভর্নর আমবাচিউ মেকোনেন এবং তার এক সিনিয়র উপদেষ্টা এজেজ ওয়াসিকে হত্যা করা হয়েছে বলে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোর বরাতে জানিয়েছে বিবিসি। ওই হামলায় আঞ্চলিক অ্যাটর্নি জেনারেল আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আপাতত লাকে আয়ালিউকে ভারপ্রাপ্ত গভর্নর হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ রোববার সেনাবাহিনীর পোশাক পরে জাতির উদ্দেশে টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে তথ্যগুলো নিশ্চিত করেন। তিনি শনিবার হওয়া এ হামলার তীব্র নিন্দা জানান।

এ ঘটনার পর ষড়যন্ত্রকারীদের ধরতে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ঘটনার পর ইথিওপিয়ায় ইন্টারনেট বন্ধ রাখা হয়েছে। ঘটনাস্থলের বাসিন্দারা ব্যাপক গোলাগুলির শব্দ শোনার কথা জানিয়েছেন। রাজধানী আদ্দিস আবাবাতেও গোলাগুলির শব্দ শোনা গিয়েছে। সেখানকার মার্কিন দূতাবাসের মাধ্যমেও জারি হয়েছে সতর্কতা।

বিবিসি জানায়, গত কয়েক বছর থেকেই আমহারা এবং এর আশপাশের অঞ্চলগুলোতে জাতিগত সহিংসতা চলছে। এর মাঝেই আমহারার প্রশাসনের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থান চালানোর চেষ্টা চলছে বলে খবর পায় সরকার। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এই অভ্যুত্থান চেষ্টার জন্য আমহারার আঞ্চলিক নিরাপত্তা প্রধান আসামিনিউ সিজে’কে দায়ী করা হয়েছে। অবশ্য এ অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে কিনা, সেটি স্পষ্ট নয়।

রাজধানী আদ্দিস আবাবার এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, জেনারেল আসামিনিউ জাতিগত মিলিশিয়াদের যেভাবে খোলামেলা নিয়োগ দিচ্ছেন কীভাবে তা বন্ধ করা যায় সে বিষয়ে কেন্দ্রীয় কর্মকর্তাদের সাথে আমহারার গভর্নর আমবাচিউ বৈঠক করছিলেন। এ সময় গোলাগুলি শুরু হয়ে যায়।

এর এক সপ্তাহ আগে জেনারেল আসামিনিউ প্রকাশ্যে আমহারার জনগণকে অস্ত্র তুলে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। এই আমহারার জনগণ হচ্ছে ইথিওপিয়ার অন্যতম বৃহৎ উপজাতি।

আমহারাসহ আঞ্চলিক ক্ষমতাবানদের অব্যাহত চাপের মুখে আছেন প্রধানমন্ত্রী আবিএ আহমেদ। এই আমহারাতেই জাতিগত সহিংসতা বেড়ে চলছে। গত বছর নির্বাচনের মধ্য দিয়ে ক্ষমতায় আসেন তিনি। সরকার গঠনের পর থেকেই তিনি দেশ জুড়ে চলমান রাজনৈতিক দমনপীড়ন দূর করার চেষ্টা শুরু করেন। এর অংশ হিসেবে রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তিদান, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ আছে, এমন সরকারি কর্মকর্তাদেরকে বিচারের আওতায় আনার মতো বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছেন তিনি। সূত্র : রয়টার্স।



 

Show all comments
  • RH Rakib ২৪ জুন, ২০১৯, ১:০৩ এএম says : 0
    Egypt a eirokom dorkar
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Sirajul Hoque ২৪ জুন, ২০১৯, ১:০৪ এএম says : 0
    ভালো
    Total Reply(0) Reply
  • MD Manik Usman ২৪ জুন, ২০১৯, ১:০৪ এএম says : 0
    Very sad
    Total Reply(0) Reply
  • M.K. Hossain ২৪ জুন, ২০১৯, ১:০৪ এএম says : 0
    সব স্বৈরাচার স্বৈরশাসক একনায়কতন্রী শাসকদের জন্য একজন নিবেদিত দেহরক্ষী প্রস্তুত হওয়া প্রয়োজন যাতে বুঝিয়ে দিতে পারে স্বে
    Total Reply(0) Reply
  • Saeedul Mostafa ২৪ জুন, ২০১৯, ১:০৫ এএম says : 0
    সেনাপ্রধানের দেহরক্ষী লাগে?
    Total Reply(0) Reply
  • Samiul HaSan Ashek ২৪ জুন, ২০১৯, ১:০৫ এএম says : 0
    Aita kamne ki...?
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন