Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৯, ০৮ কার্তিক ১৪২৬, ২৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

শহিদ কাপুরের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ জুন, ২০১৯, ৪:০১ পিএম

গত শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে শহিদ কাপুর অভিনীত ‘কবির সিং’। এরইমধ্যে ছবিটির আয় করেছে প্রায় শতকোটি রুপি। ইতোমধ্যেই শহিদ কাপুর সালমানকেও পরাজিত করেছেন একদিনের সেল রিপোর্টে। কারণ গেল রবিবার বক্স অফিসে সালমান খানের ‘ভারত’-এর চেয়ে শহিদ কাপুরের ‘কবির সিং’ আয় করেছে বেশি। সালমানের ‘ভারত’ আয় করেছিল ২৭.৯০ কোটি রুপি। অন্যদিকে শহিদের ‘কবির সিং’ আয় করেছে ২৭.৯১ কোটি রুপি। এই সফলতার মাঝে অভিনেতার এই সিনেমার বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন মুম্বায়ের ডাক্তার সমাজ। ইতোমধ্যে তারা পুলিশের কাছে লিখিত একটি অভিযোগও দায়ের করেছেন সিনেমাটির বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, অতিস্বত্তর সিনেমাটি প্রদর্শনে নিষিধাজ্ঞা দেওয়ারও আল্টিমেটাম দিয়েছেন তারা।
ডাক্তারদের দাবি সন্দীপ রেড্ডি পরিচালিত এই সিনেমাটি তাদের পুরো ডাক্তার সমাজকে কলঙ্কিত করা হয়েছে। কারণ সিনেমাটিতে শহিদ কাপুরকে একজন মদ্যপ ডাক্তারের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গেছে। কেউ কেউ আবার বলছেন, সিনেমাটিতে স্ত্রী-বিদ্বেষ এবং পুরুষালী বিষয়কে তুলে ধরা হয়েছে। পাশাপাশি হিংসাত্মক অনেক ঘটনায় তুলে ধরা হয়েছে।
সিনেমাটি সম্পর্কে ডাক্তাররা ইনফরমেসান অ্যাড ব্রডকাস্টিং মিনিস্টার, স্টেট হেলথ মিনিস্টার, সেন্ট্রাল হেলথ মিনিস্টার এবং সেন্সর বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশনের কর্তা ব্যক্তিদেরও দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। ডাক্তার সমাজ মনে করছেন সিনেমাটির মাধ্যমে সমাজ একটি বড় ধরণের বাজে প্রভাব পড়ছে।
এদিকে বিষয়টি নিয়ে শহিদ কাপুর জানিয়েছেন, ‘সিনেমাতে মদ্যপ এবং ধুমপানের দৃশ্য আছে। তবে সেটা পুরো সিনেমা জুড়ে নয়। যেমনটা অভিযোগ করেছেন ডাক্তার সমাজ।’
উল্লেখ্য, ‘কবির সিং’ তেলেগু সিনেমা ‘অর্জুন রেড্ডি’র রিমেক। ওই সিনেমাটিও পরিচালনা করেছিলেন সন্দীপ রেড্ডিই। তেলেগু ‘অর্জুন রেড্ডি’ মুক্তি পায় ২০১৭ সালে। এতে অভিনয় করেছিলেন বিজয় দেভারাকোন্দা ও শালিনি পান্ডে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বলিউড

২১ অক্টোবর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ