Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯, ০৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৯ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

সাড়ে পাঁচ হাজার কোটি টাকার ঋণের জালে ফারুক!

বিনোদন রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ জুন, ২০১৯, ৭:৪০ পিএম | আপডেট : ৬:৩৮ এএম, ২৭ জুন, ২০১৯

চলচ্চিত্র অভিনেতা ফারুক, যিনি চলচ্চিত্রের মিয়া ভাই খ্যাতি পেয়েছেন সর্বস্তরের মানুষের কাছে। তার নামের আগে এখন যোগ হয়েছে আরো একটি পদবী। তিনি এখন দর্শকদের প্রিয় অভিনেতা থেকে হয়েছেন সাধারণ জনগণের নেতা। হয়েছেন একজন সংসদ সদস্য। গেল নির্বাচনে তিনি ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ থেকে ঢাকা-১৭ আসন থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন।

সম্প্রতি এই অভিনেতা সম্পর্কে একটি অজানা তথ্য সামনে এসেছে। ইতোমধ্যে বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমেও সংবাদ প্রচার হয়েছে। তিনি নাকি বিশাল অঙ্কের ব্যাংক ঋণের জালে ফেঁসে আছেন। ৫ হাজার ৫০০ শত ৩৩ কোটি টাকার ব্যাংক ঋণ রয়েছে এই অভিনেতার কাঁধে। কিন্তু এতো টাকা কিভাবে তিনি ঋণী হলেন?

ইতোমধ্যেই এমন প্রশ্নের জন্ম হয়েছে তার ভক্ত-দর্শক সহ সর্ব সাধারণের মনেও। বিষয়টি নিয়ে ফারুক মুখও খুলেছেন গণমাধ্যমে। তিনি ইঙ্গিত দিয়েছেন তাকে ফাঁসানো হয়েছে। তিনি নিজেও জানেন না কেনো, কিভাবে এতো টাকার ঋণ তার ঘাড়ে পড়লো। তবে হ্যাঁ, বিএনপি জামাত সরকারের সময় তিনি একটি টেক্সটাইল মিল করার জন্য ব্যাংক ঋণ চেয়েছিলেন।

বিষয়টি সম্পর্কে জানতে আজ বুধবার (২৬ জুন) বিকেলে ফারুকের সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেন। কিন্তু কিছুক্ষন চুপ থেকে কোনো কথা না বলেই লাইটি কেটে দেন। এরপর আবারো তাকে মোবাইলে কয়েক বার কল দেওয়া হয়। কিন্তু তিনি আর কল রিসিভ করেননি।

তবে সম্প্রতি ফারুক একটি গণমাধ্যমে জানিয়েছেন, তার একটি টেক্সটাইল মিল আছে। যেটা তিনি তার জীবনের সমোস্ত রক্ত ঘামানো টাকা দিয়ে বানিয়েছেন। অভিযোগের সুরে ফারুক জানিয়েছেন তৎকালীন সময়ে যারা ব্যাংকের বড় বড় চেয়ারে বসে ছিলেন তারা সবাই চার দলীয় জোট এবং জামাতের লোক ছিলেন। তারা ফারুককে দেখে হাসতেন এবং বলতেন, এই যে আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধা নায়ক এসেছেন।

গণমাধ্যমে ফারুক জানিয়েছেন, পরিবারের ভবিষ্যতের জন্য তিনি কিছু করতে চেয়েছিলেন। কারণ তার জমি ছিল। কিন্তু ব্যাংক কর্মকর্তারা তাকে তখন প্রায় দুই বছর ঘুরিয়েছে। এরপর চলে আসে ২১ শে আগষ্ট। ব্যাংক কর্মকর্তারা তখন মোড় ঘুরিয়ে দিলো। তারা (ব্যাংক কর্মকর্তা) পুরো জমিতে বিল্ডিং করতে বলেন ফারুককে। এরপর যেতে বলেন তাদের কাছে। কিন্তু তিনি তখন এতো টাকা কোথায় পাবেন? লাগবে ৫ হাজার স্কোয়ার ফিট। কিন্তু তাকে বলেছে লাগবে ৪৫ হাজার স্কোয়ার ফিট। এরপর তারা (ব্যাংক কর্মকর্তা) বললেন পুরোটা ফারুকের অর্থ দিয়েই শুরু করতে হবে। নইলে পুরো লোনের বিষয়টি ক্যান্সেল করে দেবে। সেখান থেকে যুদ্ধ করতে করতে আরো দুই বছর পার হয়ে যায়।

এরপর ফারুক ঘুরতে ঘুরতে ব্যাংক কর্মকর্তাদের বললেন, এলসি করে দিতে। ব্যাংক কর্মকর্তারা তখন বললেন টাকা জমা দেন। ফারুক তখন টাকা জমা দিয়েও এলসি পেলেন না। সেটা ২০০৬ সালের কথা। অনেক কষ্টে তিনি মেশিন আনলেন। এরপর আবারো ব্যাংকে গিয়ে ফারুক বললেন, তাকে ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল দিতে। তখন তাকে মাত্র ১ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা দেওয়া হলো ব্যাংক থেকে। যেটা প্রয়োজনের তুলনায় সামান্য। যেখানে দেওয়ার কথা ছিল ১০ কোটি টাকা। এরপর অনেকটা সময় পার হলো।

এদিকে ফারুখ দাবি করেছেন, ২০১৩ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর কারো কারো নীল নকশায় ব্যাংক তাকে চিঠি দিয়ে জানায় তিনি নাকি ৫ হাজার ৫০০ শত ৩৩ কোটি টাকা ঋণী!



 

Show all comments
  • Md ali ২৬ জুন, ২০১৯, ৭:৫৯ পিএম says : 0
    who will bell the cat ?
    Total Reply(0) Reply
  • S M Babul Hossain ২৬ জুন, ২০১৯, ৮:৩৫ পিএম says : 0
    You are a stupid.
    Total Reply(0) Reply
  • khairul ২৬ জুন, ২০১৯, ৯:১১ পিএম says : 0
    মিয়া ভাই টাকাটা মেরে দেয়ার ধান্দায় আছে...
    Total Reply(0) Reply
  • Md.Shahanshah ২৬ জুন, ২০১৯, ১০:১১ পিএম says : 0
    Faruk bhai R koto Natok korba . Eibar tumi taka ferot dao . Natok bondo koro. Jamat & BNP bolle jonogon maf korbe na .
    Total Reply(0) Reply
  • রোকনুজ্জামান ২৬ জুন, ২০১৯, ১০:১৪ পিএম says : 0
    দল ক্ষমতায় ধৈর্য ধরেন সব ঠিক হয়ে যা।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohaimen ২৭ জুন, ২০১৯, ৫:৪২ এএম says : 0
    Mia via told very true but why he not to attend high court immediately.
    Total Reply(0) Reply
  • MAHMUD ২৭ জুন, ২০১৯, ২:২১ পিএম says : 0
    Mia Bhai chitro jogote silen, vloi silen. Aponar onek sobi dekhesi, aponi asole vlo manush. ALLAH aponar rin sud korar towifik dan karun. Karor gare dush chapaben na, sob kisur malik ALLAH.
    Total Reply(0) Reply
  • azam faruque ২৭ জুন, ২০১৯, ৪:৩২ পিএম says : 0
    mr. faruk shaib don,t think this is filmi world ? film is dream and fake but bank loon is not fake. awami ligue m.p. no worry. world bank money loot, Bangladesh bank strong room inside all gold change to zink , your loon amount is nothing wait and see, your mother.... solve the problem.
    Total Reply(1) Reply
    • Md Habib Hasan ২ জুলাই, ২০১৯, ৭:১০ এএম says : 0
      You don't know spelling correctly. Don't write in English. Your comment proves that you are anti AL and supporter of BNP.
  • Rakib ২৭ জুন, ২০১৯, ৫:৪৩ পিএম says : 0
    5000 core unbelieveable??
    Total Reply(0) Reply
  • am iqbal ২৭ জুন, ২০১৯, ৬:১৮ পিএম says : 0
    He is trying to be innocence. But he cant escape. He is guilty off course. But As he is awami so called MP he should not worry about Bankruptcy.
    Total Reply(0) Reply
  • Alamgir Hussain ২৮ জুন, ২০১৯, ১১:১৯ পিএম says : 0
    জজ মিয়া নাটকের কাহিনি মনে হচ্ছে যাক ভালো চালিয়ে যান আপনারা পারবেন দেশটাকে ধংশ করতে অনেক হয়েছে বিএনপি জামাত বলে আরো কি বলে পার পেয়ে যাবেন ধন্যবাদসবাইকে
    Total Reply(0) Reply
  • Pallab ২৯ জুন, ২০১৯, ৯:২০ এএম says : 0
    শুনেছিলাম ঋণ খেলাপি নাকি নমিনেশন পায় না।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Ariful Kabir Parbez ২৯ জুন, ২০১৯, ৮:০১ এএম says : 0
    আরে আমরা বাজ্ঞালি নাকি অন‍্য কিছু।পরের চিন্তা না করে নিজেদের নিয়ে চিন্তা করুন।কাজে দিবে।আপনারা কি উনার টাকা দিয়ে দিবেন।এই জন‍্য বাজ্ঞালিদের বাহিরের দেশের লোক পছন্দ করে।
    Total Reply(0) Reply
  • ash ২ জুলাই, ২০১৯, ৯:০৯ এএম says : 0
    ARE 5 HAJAR 10 HAJAR KHUTHI TAKA NOTHING FOR BAL CHAMCHA !! ATO GULO BANK KHALI HOISE KI VABE?? BNP-JAMAT RA NISE?? ORA TO DOWRER WPORE E ASE, ORA TO BARITEO GUMOTE PARE NA ! SWICH BANK E ATO TAKAR PAHAR KI VABE JOMCHE?? FAROOQUE MIA R O 2-3 HAJAR KUTHI TAKA SWICH BNNK E ASE, SHOMOY MOTO KHOBOR PAWA JABE
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঢালিউড


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ