Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৩ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

বিভিন্ন পৌরসভার বাজেট ঘোষণা

অভ্যন্তরীণ ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ জুন, ২০১৯, ১২:০৮ এএম

দেশের বিভিন্ন পৌরসভায় ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণা করা করা হয়েছে। এ সংক্রান্ত আমাদের সংবাদদাতাদের পাঠানো প্রতিবেদন।

চাঁদপুর পৌরসভা
চাঁদপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার জানান, চাঁদপুর পৌরসভার ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের ৯১ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। চাঁদপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় আনুষ্ঠানিকভাবে বাজেট ঘোষণা করেন পৌর মেয়র নাছির উদ্দীন আহমেদ। এ সময়ে তিনি ৯১ কোটি ৬৪ লাখ ২৪ হাজার ২শ’ ২৩ টাকার বাজেট ঘোষণা করেন।

বাজেটে রাজস্ব উন্নয়ন খাতে ৯০ কোটি ১৮ লাখ ৫০ হাজার ৮শ’ ৬৭ টাকা এবং প্রারম্ভিক জের হিসেবে ১কোটি ৪৫ লাখ ৭৩ হাজার ৪শ’ ৪৫ টাকা আয় দেখানো হয়। রাজস্ব উন্নয়ন খাতে সমপরিমান ব্যয় দেখানো হয়।
বাজেট অনুষ্ঠানে সাংবাদিক, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, পৌর কাউন্সিলরসহ শহরের বিশিষ্টজনরা উপস্থিত ছিলেন।

ভাঙ্গুড়া পৌরসভা
পাবনা থেকে স্টাফ রিপোর্টার জানান, পাবনার ভাঙ্গুড়া পৌরসভার ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণা করা করা হয়েছে। বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় পৌরসভার সম্মেলন কক্ষে বাজেট ঘোষণা করেন, পৌর মেয়র ও ৩ আসনের এমপি আলহাজ মকবুল হোসেনের পুত্র গোলাম হাসনাইন রাসেল।

পৌর মেয়র রাসেল বলেন, বাজেটে কোনো নতুন করারোপ করা হয়নি। বাজেটে রাজস্ব ও উন্নয়ন খাতে সর্বমোট সম্ভাব্য আয় ধরা হয়েছে, ২১ কোটি ৬৬ লাখ ৮০ হাজার টাকা। সম্ভাব্য ব্যয় ধরা হয়েছে, ২১ কোটি ৪৬ লাখ ১৫ হাজার টাকা। রাজস্ব খাতে সমাপনী স্থিতি রয়েছে ২০ লাখ ৬৫ হাজার টাকা। নাগরিকদের উপর করের বোঝা না বাড়িয়ে ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের বাজেট করা হয়েছে।

এবারের বাজেটে উন্নয়নমূলক কাজ, স্যানিটেশন, পৌরসভা আলোকিতকরণ, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার জন্য ডাস্টবিন স্থাপন, পৌর এলাকায় পানির সরবরাহ, মাদকমুক্ত পৌরসভা ও জনকল্যাণকে অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে।
এই বাজেট ঘোষণার অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, প্যানেল মেয়র আব্দুর রহিম, কাউন্সিলর রফিকুল ইসলাম। এ সময় ভাঙ্গুড়া পৌরসভার সচিব উত্তম কুমার রায়, হিসাব রক্ষক মো. নাজমুল হুদ্দা ও কাউন্সিলরগণ।

মংলা বন্দর পৌরসভা
মংলা বন্দর সংবাদদাতা জানান, মংলা পোর্ট পৌরসভার ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে পৌর মেয়র মো. জুলফিকার আলী ১১৩ কোটি ৭৩ লাখ ৬৮ হাজার টাকার বাজেট ঘোষণা করেন। নতুন অর্থ বছরের বাজেটে মোট আয় ধরা হয়েছে ১শ’ ১৩ কোটি ৭৩ লাখ ৬৮ হাজার টাকা। ব্যয় ধরা হয়েছে মোট ১শ’ ১৩ কোটি ৭৩ লাখ হাজার ৬৮ হাজার টাকা।

আয়ের খাত গুলোর মধ্যে ট্যাক্স ধরা হয়েছে ৩ কোটি ৬৫ লাখ ২৫ হাজার টাকা, রেইটস ১০ লাখ টাকা, ফিস ৪১ লাখ ২০ হাজার টাকা, অন্যান্য খাতে ৪ কোটি ৭৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা, উন্নয়ন খাত ব্যতিত সরকারি অনুদান ২৫ লাখ টাকা, পানির ট্যারিফ খাতে ১ কোটি ১৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা, উন্নয়ন সহায়তা মন্জুরী ২ কোটি টাকা, প্রকল্প থেকে প্রাপ্ত ১›শ কোটি ২ লাখ টাকা ও রাজস্ব তহবিল থেকে উন্নয়নে স্থানান্তর ৩০ লাখ টাকা ও প্রারম্ভিক জের ৩৫ লাখ ৩৮ হাজার ৬৮ টাকা।

বাজেটে ব্যয়ের খাতগুলো হল সাধারন সংস্থাপন ২ কোটি ৫৮ লাখ ২৫ হাজার টাকা, শিক্ষা ব্যয় ১৭ লাখ টাকা, স্বাস্থ্য ব্যয় ১৩ লাখ টাকা, পিআরএপি জিএপি বাবদ বরাদ্দ ২০ লাখ টাকা, অন্যান্য ৬ কোটি ৩৫ লাখ ৪০ হাজার টাকা, পানি সরবরাহ শাখার ব্যয় ধরা হয়েছে ১ কোটি ১৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা, উন্নয়ন সহায়তা মন্জুরী ২ কোটি টাকা, উন্নয়ন প্রকল্প অবকাঠামো নির্মান খাতে ১›শ কোটি ২০ লাখ টাকা ও বৃক্ষ রোপন ও রক্ষনাবেক্ষন ২ লাখ টাকা এবং সমাপ্তি জের ৩৯ লাখ ৬৮ হাজার ৬৮ টাকা। এছাড়াও এ বাজেটে একটি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল, বিশেষায়িত হাসপাতাল করার ঘোষণা দেন পৌর মেয়র জুলফিকার আলী। বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক, টিএলসিসি কমিটি, ওয়ার্ড কমিটি, শিক্ষক, ইমাম, গনামান্য ব্যবসায়ীসহ পৌরসভার বিশিষ্ট নাগরিক বৃন্দ।


সান্তাহার পৌরসভা
আদমদীঘি (বগুড়া) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, বগুড়ার সান্তাহার পৌরসভার ২০১৯-২০ অর্থ বছরের জন্য ২৩ কোটি ৬৫ লাখ ৬৬ হাজার ৩০০ টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়। এর মধ্যে রাজস্ব খাতে ব্যয়ের লাখমাত্র ধরা হয়েছে ১০ কোটি, ৭৫ লাখ, ৬৬ হাজার, ৩০০ টাকা এবং আয়ের লাখমাত্রা ধরা হয়েছে ৯ কোটি ২০ লাখ ৬ হাজার ৫০০ টাকা। পানি শাখার আয়ের লাখমাত্রা ধরা হয়েছে ১৮, ২, ০০০০ টাকা। রাজস্ব খাতে ঘাটতি পরিমান ধরা হয়েছে ১, ৫৫, ০৫, ৮০০ টাকা। গতকাল বৃহস্পতিার দুপুর সাড়ে ১২টায় পৌসভার সভাকক্ষে পৌর মেয়র তোফাজ্জল হোসেন ভুট্টুর সভাপতিত্বে বাজেট অধিবেশনে প্যানেল মেয়র জার্জিস আলম রতন, মজিবর রহমান, কাউন্সিলন মমতাজ উদ্দীন, শাকিল আহমেদ, ওয়াহেদ, সান্তাহার পৌর আ.লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন, সান্তাহার প্রেস ক্লাবের সভাপতি, গোলাম আম্বিয়া লুলু, সাধারণ সম্পাদক খায়রুর ইসলাম, শহর পুলিশ ফাঁড়ির উপ পরিদর্শক ওয়াদুদ, পৌর এলাকার প্রাইমারী স্কুলের সকল প্রধান শিক্ষক গনসহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিতি ছিলেন। প্রথম শ্রেনীর এ পৌরসভার বাজেট অধিবেশনে পৌর এলাকার যানজোট, রাস্তা ঘাট ও ড্রেনেজ ব্যাবস্থা, নাগরিক সুযোগ সুবিধার ওপর ব্যাপক আলোচনা শেষে পৌর মেয়র তোফাজ্জল হোসেন ভুট্ট এ বাজেট ঘোষণা করেন।


বরুড়া পৌরসভা
বরুড়া (কুমিল্লা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, কুমিল্লার বরুড়া পৌরসভায় গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের বাজেট পৌর কার্যালয়ে পৌর মেয়র জসিম উদ্দিন পাটোয়ারী ২৮ কোটি ৬৯ লাখ ৫৮ হাজার ৭৪ টাকার বাজেট ঘোষণা করেন। কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে কার্যক্রম শুরু হয়। কোরআন তেলাওয়াত করেন হাফেজ মো. আমান উল্লাহ, বক্তব্য রাখেন বরুড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আবুল হাসেম, সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াছ আহমদ, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্য ও দৈনিক ময়নামতির প্রধান প্রতিবেদক শাহ আলম শফি, দৈনিক বরুড়া কন্ঠের সম্পাদক ইউছুফ আলী, সাপ্তাহিক মুক্তির লড়াইয়ের সম্পাদক কামরুজ্জামান জনি, পৌর কাউন্সিলর গোলাম মোস্তফা মিয়াজী, মো. আবুল কাসেম, মোবারক হোসেন, হিসাব রক্ষক মিজানুর রহমান। প্রস্তাবিত বাজেটে নতুন করে কোন কর আরোপ করা হয়নি। পৌর কাউন্সিলর, সুশিল সমাজ ও সাংবাদিকদের উপস্থিতে পৌর মেয়র জসিম উদ্দিন পাটোয়ারী এ বাজেট ঘোষণা করেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন পৌর সচিব আমজাদ হোসেন।


বিয়ানীবাজার পৌরসভা
বিয়ানীবাজার (সিলেট) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, নতুন করে কোন ধরণের করারোপ ছাড়াই বিয়ানীবাজার পৌরসভার ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের জন্য ৪৭ কোটি ১২ লাখ ৪৮ হাজার টাকার প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। মেয়র আব্দুস শুকুর গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে পৌরসভার হল রোমে বিয়ানীবাজার পৌরবাসী, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক-সাংস্কৃতিক, পেশাজীবি ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিবর্গ, পৌর পরিষদের কাউন্সিলরবৃন্দ, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দের উপস্থিতিতে এই বাজেট ঘোষণা করেন।

বাজেটে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৬ কোটি ৮১ লাখ ৩৬ হাজার ৬শ’ ৭৮ টাকা। বাজেটে রাজস্ব আয় ধরা হয়েছে ৪ কোটি ২৯লাখ ২০ হাজার টাকা এবং রাজস্ব ব্যয় ধরা হয়েছে ৪ কোটি ১ লাখ ৭১ হাজার ৬শ’ ৭৮ টাকা। ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে উন্নয়ন আয় ধরা হয়েছে ৪২ কোটি ৮৩ লাখ ২৮ হাজার টাকা এবং উন্নয়ন ব্যয় ৪২ কোটি ৭৯ লাখ ৬৫ হাজার টাকা। বাজেটে সার্বিক উদ্বৃত্ত ৩১ লাখ ১১ হাজার ৩শ’ ২২ টাকা।

এর আগে মেয়র আব্দুস শুকুর তার বাজেট বক্তৃতায় বলেন, এ শহরের প্রত্যেক নাগরিককে মেয়রের ভূমিকায় দেখতে চাই। নাগরিক সচেতনতাই পরিবর্তনের শক্তি। আমাদের অক্লান্ত ও আন্তরিক প্রচেষ্টার পাশাপাশি আমাদের নাগরিকগণ সচেতন হলেই আমাদের প্রিয় শহরকে একটি আধুনিক পরিচ্ছন্ন বাসযোগ্য সবুজ সুন্দর নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে পারবো বলে আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি। সেজন্য আপনাদের দোয়া চাই ও ভালোবাসা চাই।
মেয়র বিয়ানীবাজার পৌরসভার উন্নয়নে সকল নাগরিকসহ দলমত নির্বিশেষে সকলকে সহযোগিতা করার আহবান জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বাজেট

২৯ জুন, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন