Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ০৭ ভাদ্র ১৪২৬, ২০ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

বন্দুকযুদ্ধে দু’চারটি মাদক ব্যবসায়ী মরে গেলেও সমস্যা নেই -নিক্সন চৌধুরী এমপি

ফরিদপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৯ জুন, ২০১৯, ১১:৫৯ এএম

ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেতৃত্বে দেশে যেই মাদকবিরোধী যুদ্ধ শুরু হয়েছে সেই যুদ্ধে আমর জিতবো। এতে যদি দুই-চারটি মাদক ব্যবসায়ী বন্দুকযুদ্ধে মরেও যায় তাতেও কোন সমস্যা নাই। এই এলাকা (ফরিদপুর-৪) থেকে এতোবড় দানব সরিয়ে দিলাম আর মাদকতো মামুলি ব্যাপার। মাদককে সবাই মিলে প্রতিহত করবোই ইনশাআল্লাহ্‌। শুক্রবার বিকেলে ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার আজিমনগর ইউনিয়নের পুলিয়া বাজারে আয়োজিত এক মাদকবিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

এসময় সংসদ সদস্য নিক্সন চৌধুরী বলেন, সমাজে যারা মাদক ব্যবসায়ী রয়েছে তাদের বয়কট করুন সামাজিকভাবে। আপনাদের নির্দেশ দিচ্ছি মাদক ব্যবসায়ীকে বেঁধে রেখে প্রশাসনে খবর দিবেন। তিনি বলেন, বিগত নির্বাচনে আমার প্রতিশ্রতি ছিলো নির্বাচনী এলাকাকে মাদকমুক্ত করবো। আজ এই সভার মাধ্যমে সেই যুদ্ধ শুরু হলো। আজকের পরে যদি কোন মাদক ব্যবসায়ী এই এলাকায় মাদকের ব্যবসা চালু করেন, দয়া করে তারা ঘর হতে বের হওয়ার সময় মাবাবার দোয়া নিয়ে বের হবেন। কারণ, মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রশাসন যেই পদক্ষেপ নিবেন আমি তাদের সাথে একমত থাকবো।

মাদক ব্যবসা নির্মূলে একশ্রেণির রাজনীতিবীদ ও দালাল প্রতিবন্ধক উল্লেখ করে তিনি বলেন, থানায় কোন মাদক ব্যবসায়ীকে আটকের পর যদি কেউ তদবির করতে যায় তাকে আগে বেঁধে রাখবেন। মাদকের পক্ষে কোন মামলা বা হামলায় যদি আমার পক্ষ থেকেও কোন দালাল যায় তাকে আগে বাঁধবেন। আর মাদক ব্যবসায়ীকে আজ থেকে যেখানে পাবেন তাকেও বেঁধে রাখবেন। যেই নেতা থানায় তদবির করতে যাবেন মনে রাখবেন সেটিই তার রাজনীতির শেষ দিন হবে। আজ থেকে মাদকের বিরুদ্ধে সবাই শপথ করলাম।

মাদক ব্যবসায়ী কোন নেতা, কর্মী এমনকি ভোটারও তার দরকার নেই বলে সমাবেশে ঘোষনা দেন নিক্সন চৌধুরী। সমাবেশে মাদকের বিরুদ্ধে গঠিত সিভিল সোসাইটির গণস্বাক্ষর ও সমবেতভাবে মাদকের বিরুদ্ধে সবাই শপথ বাক্য পাঠ করেন। শপথ বাক্য পাঠ করান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোক্তাদিরুল আহমেদ। ভাঙ্গার আজিমনগর ইউনিয়নের শিমুলবাজার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে সৎসঙ্ঘ সামাজিক উন্নয়ন সোসাইটির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন আজিমনগর ইউপি চেয়ারম্যান মোতালেব হোসেন মাতুব্বর।

অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য দেন ফরিদপুরের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক মনিরুজ্জামান, র‌্যাব-৮ এর অধিনায়ক মেজর নাজমুল আরেফিন পরাগ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইফুজ্জামান, ভাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম হাবিবুর রহমান হাবিব, সদরপুর উপজেলার চেয়ারম্যান কাজী শফিকুর রহমান, চরভদ্রাসন উপজেলার চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন মোশা, ভাঙ্গা উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান ইসহাক আলী মোল্যা, ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী সাইদুর রহমান, ভাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোক্তাদিরুল আহমেদ, কালামৃধা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল হক প্রমুখ।

সমাবেশে মাদকের বিরুদ্ধে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করা হয়। বক্তাগণ মাদককে দেশ ও জাতির শত্রæ হিসেবে উল্লেখ করে সকলকে এর বিরুদ্ধে সচেতন হওয়ার আহবান জানান। একইসাথে মাদক নির্মূলে শুধু প্রশাসনিক পদক্ষেপই নয় বরং পারিবারীকভাবে এব্যাপারে সকলকে সচেষ্ট হওয়ার অনুরোধ জানান। সমাবেশস্থলে মাদকবিরোধী র‌্যালী সহযোগে স্থানীয় জনসাধারণ যোগ দেন। সমাবেশে সংসদ সদস্য নাজুরা মুজিব চৌধুরী তার পিতার সাথে যোগ দেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ