Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

সোহেলকে হারিয়ে বিপদে পাকিস্তান

বিশ্বকাপ ক্রিকেট ২০১৯

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ জুন, ২০১৯, ৯:৫৮ পিএম

গত দুই ম্যাচে ধারাবাহিক পারফর্ম করা সোহেলকে ২৭ রানে ফিরিয়ে পাকিস্তানকে বিপদে ফেলেছেন রশিদ। সোহেলকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন এই লেগি। সরফরাজ ১১ রানে ও ইমাদ ১ রানে অপরাজিত আছেন।

৩৬ ওভারে সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১৪৪ রান।

মুজিবের দ্বিতীয় শিকার হাফিজ

দ্বিতীয় স্পেলের প্রথম বলেই হাফিজকে ফিরিয়ে দিলেন মুজিব। ফেরার আগে তিনি ১৯ রান করেন। সোহেল ১৯ রানে অপরাজিত আছেন। সরফরাজ খেলছেন ১ রানে।

দলীয় সংগ্রহ ৩০ ওভারে ৪ উইকেটে ১২৪ রান।

বাবরের বিদায়ে চাপে পাকিস্তান

দুর্দান্ত খেলতে থাকা বাবরকে ৪৫ রানে বোল্ড করে পাকিস্তানকে চাপে ফেলেছেন নবী। পরপর দুই ওভারে দুই সেট ব্যাটসম্যান ইমাম ও বাবরকে ফিরিয়ে দেন এই অফ স্পিনার। ক্রিজে কোন বল মোকাবেলা না করে হাফিজ অপরাজিত আছেন ০ রানে।

১৭.২ ওভারে পাকিস্তানের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৮১ রান।

ইমামকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙলেন নবী

ইমামকে স্ট্যাম্পিং করে ফিরিয়ে বাবরের সঙ্গে গড়া ৭২ রানের জুটি ভাঙলেন নবী। ফেরার আগে ইমাম ৩৬ রান করেন। বাবর ৩৬ রানে ও হাফিজ ০ রানে অপরাজিত আছেন।

দলীয় সংগ্রহ ১৬ ওভারে ২ উইকেটে ৭২ রান।

দ্বিতীয় বলেই ফখরকে ফেরালেন মুজিব

ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই মুজিবের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন ফখর। স্কোরবোর্ডে কোন রান যোগ হওয়ার আগেই শূণ্য রানে ফিরে যান ফখর। রিভিউ নিয়েও টিকতে পারেননি তিনি। বাবর ৬ রানে ও ইমাম ০ রানে অপরাজিত আছেন।

প্রথম ওভারে পাকিস্তানের সংগ্রহ ১ উইকেটে ৬ রান।

পাকিস্তানকে ২২৮ রানের লক্ষ্য দিল আফগানিস্তান

শুরুতে বড় রান করার আশা দেখালেও শেষ অবধি ব্যাটসম্যানরা জুটি করতে না পারায় ২২৭ রানের বেশি তুলতে পারেনি আফগানিস্তান। আফগান ব্যাটিংয়ের মূল ধ্বস তুলেছেন শাহিন আফ্রিদি। তরুন এ পেসার ৪টি উইকেট তুলে নিয়েছেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

আফগানিস্তান: ২২৭/৯ (৫০ ওভার)(রহমত ৩৫, নাইব ১৫, শহিদি ০, ইকরাম ২৪, আসগর ৪২, নবী ১৬, নাজিবুল্লাহ ৪২, শামিউল্লাহ ১৯*, রশিদ ৮, হামিদ ১, মুজিব ৭*; ইমাদ ৪৮/২, আমির ৪১/০, আফ্রিদি ৪৭/৪, হাফিজ ১০/০, ওয়াহাব ২৯/২, শাদাব ৪৪/১)

আফ্রিদির তৃতীয় শিকার নাজিবুল্লাহ

ব্যক্তিগত নবম ওভারে ৪২ রান করা নাজিবুল্লাহকে বোল্ড করে ফিরিয়ে দিলেন আফ্রিদি। ম্যাচে এটি তার তৃতীয় উইকেট। শামিউল্লাহ ১১ রানে ও রশিদ ১ রানে অপরাজিত আছেন।

৪৫ ওভারে সংগ্রহ ৭ উইকেট হারিয়ে ২০৩ রান।

জুটি ভাঙলেন ওয়াহাব

আসগর-ইকরামকে হারানোর পর নবী-নাজিবুল্লাহের ৪২ রানের জুটি ভেঙে দেন ওয়াহাব। ১৬ রানে নবীকে একটি বাউন্সারে আমিরের ক্যাচে পরিনত করে ফেরান ওয়াহাব। নাজিবুল্লাহ ২০ রানে অপরাজিত আছেন। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিজে নেমেছেন শামিউল্লাহ। তিনি ১ রানে অপরাজিত আছেন।

৩৭ ওভারে সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৬৮ রান।

শাদাব-ইমাদের আঘাতে চাপে আফগানরা

ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা আসগরকে ফেরালেন শাদাব। সরাসরি বোল্ড করে ৪২ রান করা আসগরকে ফেরান শাদাব। পরের ওভারেই আরেক সেট হওয়া ব্যাটসম্যান ইকরামকে (২৪) হাফিজের ক্যাচে পরিনত করেন ইমাদ। নবী ৩ রানে অ্যপরাজিত আছেন।

দলীয় সংগ্রহ ২৭ ওভারে ৫ উইকেটে ১২৫ রান।

আসগরের ব্যাটে একশ পেরুল আফগানিস্তান

রহমতের বিদায়ের পর আসগরের আক্রমনাত্বক ব্যাটিংয়ে মাত্র ১৯তম ওভারেই শতরান পেরিয়েছে আফগানরা। আসগর মাত্র ১৯ বলে ৩৩ রানে অপরাজিত আছেন। ইকরাম খেলছেন ১২ রানে।

দলীয় সংগ্রহ ১৯ ওভারে ৩ উইকেটে ১০১ রান।

ইমাদের শিকার রহমত

শুরু থেকে ভালো খেলছিলেন রহমত। দুই উইকেট পতনের পরও তার ব্যাটে আশা দেখেছে আফগানরা। কিন্তু ইমাদের ঘূর্ণি তাতে বাধা হয়ে দাঁড়ালো। ৩৫ রান করে ইমাদের বলে বাবরের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। ইকরাম ৩ রানে অপরাজিত আছেন।

দলীয় সংগ্রহ ১২ ওভারে ৩ উইকেটে ৫৯ রান।

দারুন শুরুর পর আফ্রিদির জোড়া আঘাত

আফ্রিদির প্রথম তিন বলে দুটি বাউন্ডারি হাকানোর পর চতুর্থ বলে আবারও আক্রমনাত্বক শর্ট খেলতে গিয়ে সরফরাজের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন নাইব। শাহিনের আবেদনে আম্পায়ার সাড়া না দিলে রিভিউ নেন সরফরাজ। তাতে দেখো যায় বল-ব্যাটে স্টর্শ করেছে। ঠিক তার পরের বলেই লেগ স্ট্য্যাম্পে পিচ করা বলে ইমাদের ক্যাচে পরিনত হয়ে প্রথম বলেই ফিরে যান শহিদি (০)। হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা তৈরি হলেও শেষ অবধি তা করতে দেননি ইকরাম। রহমত ১২ রানে ও ইকরাম ০ রানে অপরাজিত আছেন।

৫ ওভার শেষে সংগ্রহ ২ উইকেটে ৩১ রান।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে আফগানিস্তান

টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আফগান অধিনায়ক গুলবাদিন নাইব। টসে জিতলে পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদও ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিতেন বলে জানান। আফগানিস্তান দলে দৌলত জাদরানের পরিবর্তে আজ দেখা যাবে হামিদ হাসানকে। অন্যদিকে অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে মাঠে নামেবে পাকিস্তান।

আফগানিস্তান একাদশ: গুলবাদিন নাইব (অধিনায়ক), রহমত শাহ, হাশমতউল্লাহ শহিদি, আসগর আফগান, সামিউল্লাহ শেনওয়ারি, মোহাম্মদ নবী, নাজিবুল্লাহ জাদরান, ইকরাম আলি খিল (উইকেটরক্ষক), রশিদ খান, হামিদ হাসান, মুজিব উর রহমান।

পাকিস্তান একাদশ: ইমাম ‍উল হক, ফখর জামান, বাবর আজম, মোহাম্মদ হাফিজ, হারিস সোহেল, সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), ইমাদ ওয়াসিম, শাদাব খান, মোহাম্মদ আমির, ওয়াহাব রিয়াজ, শাহিন আফ্রিদি।

শেষ চারে এগিয়ে যেতে পাকিস্তানের সামনে আফগানিস্তান

বিশ্বকাপের ৩৬তম ম্যাচে পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে আফগানিস্তান। লিডসে বাংলাদেশ সময় দুপুর সাড়ে তিনটায় খেলাটি অনুষ্ঠিত হবে। নিজেদের অষ্টম ম্যাচে বহু সমীকরন সামনে নিয়ে মাঠে নামবে পাকিস্তান। সেখানে তাদের জয় এগিয়ে নেবে তাদের। অন্যদিকে বাংলাদেশ সমর্থকেরা তাকিয়ে থাকবে আফগানদের একটি ভালোদিনের প্রত্যাশা নিয়ে। স্বাগতিক ইংল্যান্ডও একইভাবে লক্ষ্য রাখবে এই ম্যাচটির দিকে। ছোট ম্যাচ হলেও ম্যাচের তাৎপর্য অনেক, তা বলাই বাহুল্য।

পরিসংখ্যান:

মুখোমুখি পাক-আফগান লড়াইয়ের ইতিহাস খুবই ছোট। তাতে শতভাগ জয় নিয়েই এগিয়ে আছে পাকিস্তান। তবে আফগানদের লড়াকু মানসিকতা পার্থক্য গড়ে দিতে পারে ম্যাচের।

ওয়ানডেতে:

ম্যাচ: ৩

পাকিস্তান জয়ী: ৩

আফগানস্তিান জয়ী: ০

দু’দল এখন অবধি বিশ্বকাপে মুখোমুখি হয়নি। এবারই প্রথম বিশ্বমঞ্চে লড়াই করেছে দল দুটি। এর আগে অবশ্য এশিয়া কাপে দুবার দেখা হয়েছে তাদের।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিশ্বকাপ ক্রিকেট ২০১৯

১৫ জুলাই, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন