Inqilab Logo

শনিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৮ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের ৮ জন শিক্ষককে ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর : ৮ শিক্ষক সাময়িক বরখাস্ত

নেত্রকোনা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১ জুলাই, ২০১৯, ৭:৩১ পিএম

নেত্রকোনায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের ঘটনায় ১২ নারীসহ ৩২ জনকে আদালতে সোপর্দের পর ৮ জন শিক্ষককে ২ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

সোমবার দুপুরে নেত্রকোনা সিনিয়র জ্যুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট-১ এর আদালতে হাজির করে ৭ দিনে রিমান্ড চাইলে বিজ্ঞ আদালত তাদের ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এ ব্যাপারে সোমবার বিকালে নেত্রকোনা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এস এম আশরাফুল আলমের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি দুই দিনের রিমান্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ সময় তিনি বলেন, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ ওবায়দুল্লাহ প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের ১১ সদস্যদের মধ্যে ৮ জন প্রাথমিক সহকারী শিক্ষককে বরখাস্ত করেছেন। বাকি তিনজন প্রধান শিক্ষক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে বরখাস্তের আবেদন করে বিভিগীয় পর্যায়ে পাঠিয়েছেন।

তিনি আরো জানান, প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রটির ৩২ জনকে আটকের পর বেরিয়ে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। এদের সাথে জেলার নামী দামী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আরো পাঁচজন রয়েছে। যারা পলাতক। আটকদের মধ্যে মূল আসামী বলাই শিমুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্নান ছোটন ওরফে ছোটন মাস্টারের অর্থের উৎস্য সহ অন্যান্যদের সর্ম্পকেও পুলিশ তদন্ত করছে।

গত ২৮ জুন অনুষ্ঠিতব্য প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা চলাকালে প্রশ্নপত্র ফাঁস ও জালিয়াতি চক্রটি কেন্দুয়া উপজেলার ছয়আনী গ্রামের প্রভাবশালী আওয়ামীলীগের নেতা মনিরুজ্জামান শামীমের বাড়িতে আস্তানা গেড়ে তারা বিভিন্ন এক্সপার্টসহ শিক্ষকদের ম্যানেজ করে উন্নত প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে পরীক্ষার্থীদের মাঝে প্রশ্নপত্র ফাঁস করে আসছিল। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৩২ জনকে আটক করে। তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের সাথে আরো পাঁচজন জড়িত রয়েছে। যারা পুলিশ অভিযানের খবর পেয়ে আগেই পালিয়ে যায়। কেন্দুয়া থানার এস আই আবুল বাশার বাদী হয়ে ৩৭ জনের নামউল্লেখ পূর্বক আরো ৬০ জনকে অজ্ঞাত আসামী রেখে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও পাবলিক পরীক্ষা অপরাধ আইনে মামলা দায়ের করে। আটক ৩২ জনকে কোর্টে সোপর্দ করে ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত ৮ জন শিক্ষককে ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ডের আসামীরা হচ্ছেন, বলাই শিমুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক আব্দুল মান্নান ছোটন ওরফে ছোটন মাস্টার, সহকারী শিক্ষক মরিয়ম আক্তার, নওপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আজহারুল ইসলাম, শরিফুজ্জামান ভূইয়া মিন্টু, বড়বাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ সাকি, দিগ্দাইর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মজিবুর রহমান, তেলিগাতী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক স্মৃতি খানম, জঙ্গলটেঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়েরর সহকারী শিক্ষক জেবুন্নাহার ডলি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: প্রশ্নপত্র ফাঁস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ