Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

বায়ুচাপ ও অমাবস্যার প্রভাবে সমুদ্র উত্তাল, মাছধরা ট্রলার নিরাপদে

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২ জুলাই, ২০১৯, ২:০৪ পিএম

অমাবস্যার প্রভাব ও বঙ্গোপসাগরে বায়ুচাপের কারণে সাগর উত্তাল রয়েছে। স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে সমুদ্র এবং নদ নদীতে ৩-৪ফুট পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়,উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্য অব্যাহত থাকার কারণে সমুদ্র বন্দর সমূহকে ০৩ (তিন) নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। সমুদ্র উপকূলে থাকা সকল ধরনের নৌ-যান চলাচলে সর্তক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন আবহাওয়া অধিদপ্তর। পর্যটন নগরী কুয়াকাটা সহ সমুদ্র উপকূলের বিভিন্ন স্থানে সকাল থেকে থেমে থেমে বৃষ্টি হচ্ছে। এমন বৈরী আবহাওয়ার মাঝেও অনেক পর্যটকরা সমুদ্রের উত্তাল ঢেউয়ের উন্মাদনা উপভোগ করছেন। বঙ্গোপসাগরে থাকা সকল নৌযান মৎস্যবন্দর আলীপুর-মহিপুর সহ উপকূলের বিভিন্ন স্থানে নিরাপদ আশ্রয়ে রয়েছে। উত্তাল ঢেউয়ের তান্ডবে কুয়াকাটা সৈকতে থাকা ক্ষুদ্র ব্যবসারা সাময়িক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ্য হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ্য হয়েছে সৈকত রক্ষা কাজে ব্যবহ্নত জিও ব্যাগ ও জিও টিউব।
সৈকতে ছাতা চেয়ার ব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেন জানান, সমুদ্রের উত্তাল ঢেউয়ের কারনে ছাতা চেয়ার নিরাপদে সরিয়ে নিয়ে গেছেন। সমুদ্রের পাড়ে থাকা কয়েকটি ক্ষুদ্র ব্যবসা প্রতিষ্ঠানও সরিয়ে নিতে বাধ্য হয়েছেন। কুয়াকাটা আশার আলো জেলে সমবায় সমিতি সুত্রে জানা যায়,অবরোধ অমান্য করে যে সকল মাছ ধরা ট্রলার আবহাওয়ার পুর্বাভাস পেয়ে গভীর সমুদ্রে থেকে উঠে এসে নিরাপদে আশ্রয় নিয়েছে।
কুয়াকাটা-আলীপুর মৎস্য আড়তদার সমবায় সমিতির সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান আনছার উদ্দিন মোল্লা জানান, সমুদ্রে অবরোধ চলমান থাকায় কোন ট্রলার মাছ ধরতে যায়নি। সকল মাছ ধরা ট্রলার নিরাপদে রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আবহাওয়া


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ