Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ০৫ ভাদ্র ১৪২৬, ১৮ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

সায়ীদ আবদুল মালিকের কলমে ‘ক্রিকেটের উন্মাদনায় মেতেছে দেশ’

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ জুলাই, ২০১৯, ৭:৩০ পিএম

ইউটিউবে শ্রোতা-দর্শকদের নজর কেড়েছে সাংবাদিক সায়ীদ আবদুল মালিকের ক্রিকেট বিশ^কাপ নিয়ে লেখা গান ‘ক্রিকেটের উন্মাদনায় মেতেছে দেশ’। এস এ কিরনের সুর ও এস কে সমীরের সঙ্গীতায়োজনে গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন কর্নিয়া, রাজিব, নওরীন, পুলক, লুৎফর হাসান, টুম্পা খান, এস কে সমীর ও এস এ কিরনসহ ৮জন সংগীত শিল্পী। গত ৪ জুন এসএস মাল্টিমিডিয়ার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেল থেকে প্রকাশিত হয় এই গানটির মিউজিক ভিডিও। প্রকাশের পর গানটি সঙ্গীতানুরাগীদের মাঝে বেশ ইতিবাচক সাড়া ফেলেছে।


গানটি প্রসঙ্গে গীতকার সায়ীদ আবদুল মালিক বলেন, ‘গানটি লেখার পরই আমি এটির জনপ্রিয়তা নিয়ে আশাবাদী ছিলাম। তবে এতো তাড়াতাড়ি এতোটা জনপ্রিয়তা পাবো, তা আশা করিনি। বলতে পারেন প্রত্যাশার চেয়ে প্রাপ্তিটা বেশি পেয়েছি। হৃদয়কাড়া সুরের জন্য সুরকার এস এ কিরন ও এস কে সমীর প্রচুর পরিশ্রম করেছেন। এছাড়া ৮জন শিল্পী নিজেদের গায়কীতে শৈল্পিকতার পাশাপাশি আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার ছাপ রেখেছেন। এজন্য আমি তাদের প্রতি আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ। অনেকদিনের স্বপ্ন ছিল আমার কোন গান মানুষের মুখে মুখে থাকবে। এই গানটির মাধ্যমে হয়তো সেই স্বপ্নের কিছুটা হলেও পূরণ করতে পেরেছি।’


গানটির বিষয়ে সংগীত পরিচালক এসকে সমীর বলেন, ‘হঠাৎ করে ক্রিকেটের উপর এমন একটি গানের কাজ নিয়ে গীতিকার সায়ীদ আবদুল মালিক ভাই যখন আমার কাছে আসলেন। তখন বিশ্বকাপ ক্রিকেট শুরু হতে আর কয়েকদিন মাত্র বাকি। যেকোনো ভালো কাজের জন্য সময়ের প্রয়োজন হয়। কিন্তু আমার হাতে সময় ছিল খুবই কম। অল্প সময়ের মধ্যে নিজের সর্বচ্চো দিয়ে চেষ্টা করেছি ভালো কিছু করার। জানি না কতোটুকু পেরেছি। তবে নিজের কাজের উপর বিশ্বাস রেখে বলতে পারি ভালো কিছুই করতে পেরেছি। যার প্রমাণ এখন পাচ্ছি।’


গানটির মিউজিক ভিডিও নির্মাণ করেছেন সাইফুল ইসলাম রোমান। তিনি বলেন, ‘অনেক পরিশ্রম করেছি গানটির মিউজিক ভিডিও নির্মাণের কাজে। আসলে এটি ছিল একটি টিম ওয়ার্ক। সবার সহযোগিতা ছিল বলেই এমন একটি সুন্দর গান আমরা উপহার দিতে পেরেছি।’


গানটির ভিডিও লিঙ্ক 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সঙ্গীত


আরও
আরও পড়ুন