Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬, ২৪ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

সউদী প্রি-অ্যারাইভাল ইমিগ্রেশন: ঢাকায় শুরু ২১ ফ্লাইটে ৭ হাজার ৩৭১ হজযাত্রী পরিবহন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৬ এএম

হযরত শাহজালাল (রহ.)আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে হজযাত্রীদের সউদী প্রি-অ্যারাইভাল ইমিগ্রেশন শুরু হয়েছে। এতে হজযাত্রীদের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে। হজযাত্রীদের জেদ্দা আন্তর্জাতিক হজ টার্মিনালে নেমে ইমিগ্রেশনের জন্য আর ঘন্টার পর ঘন্টা দুর্ভোগ পোহাতে হবে না। ধর্ম মন্ত্রণালয় ও হাবে সম্মিলিত তদারকিতে এবার যাত্রীর অভাবে কোনো হজ ফ্লাইট খালি যাচ্ছে না। অহেতুক ঝামেলা এড়াতে পরিচালক হজ এবার হজযাত্রীদের বিদায় জানাতে আসা আতœীয়-স্বজনদের হজক্যাম্পে ঢুকতে দিচ্ছেন না। ফলে হজক্যাম্পের দরজার বাইরেই হাজার হাজার আত্মীয়-স্বজনকে ভিড় জমাতে দেখা যায়।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব এ বিএম আমিন উল্লাহ নূরী জানান, চলতি বছর সুষ্ঠু হজ ব্যবস্থাপনার স্বার্থে সরকার বেশ কিছু উদ্যোগ নেয়ায় হজ ফ্লাইট শিডিউল বিপর্যয় ঠেকানো গেছে। বিমান ও সাউদিয়া এয়ারলাইন্সের হজ ফ্লাইটের হজ টিকিট আগে ভাগেই বিক্রি হয়েছে গেছে। হজ এজেন্সিগুলো এখন নিজেদের তাগিদেরই হজ ফ্লাইট মিস করতে নারাজ। এ জন্য যথাসময়েই হজ ফ্লাইট জেদ্দার উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করছে। কোনো হজ ফ্লাইট আর খালি যাচ্ছে না। গত বছরও নির্ধারিত সময়ে যাত্রীর অভাবে বিমানের অনেক হজ ফ্লাইট বাতিল করতে হয়েছে। আবার অনেক সিটও খালি গেছে। এক প্রশ্নের জবাবে যুগ্ম-সচিব বলেন, সকলের সহযোগিতায় এবার অন্যান্য বছরের তুলনায় হজ ব্যবস্থাপনার কার্যক্রম অনেক বেশি ভালো হবে ইনশা আল্লাহ।

গত ৪ জুলাই থেকে ঢাকা বিমান বন্দরে হজযাত্রীদের সউদী প্রি-অ্যারাইভাল ইমিগ্রেশন কার্যক্রম চালু হবার কথা ছিল। কিন্ত সার্ভারে যান্ত্রিক ত্রæটির দরুণ সউদী কারিগরি প্রতিনিধি দল সউদী পর্বের ইমিগ্রেশন কার্যক্রম যথাসময়ে চালু করতে পারেনি। এতে প্রথম দিকের বেশ কিছু হজ ফ্লাইটের হজযাত্রীদের সউদী ইমিগ্রেশন ঢাকায় করা সম্ভব হয়নি। হজ অফিসের পরিচালক হজ সাইফুল ইসলাম গতকাল শুক্রবার তার দপ্তরে ইনকিলাবকে বলেন, সউদী কারিগরি দলের সদস্যরা আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে সউদী পর্বের হজযাত্রীদের প্রি-অ্যারাইভাল ইমিগ্রেশন কার্যক্রম চালু করতে সক্ষম হয়েছে। এখন আর হজযাত্রীদের সউদী পর্বের ইমিগ্রেশন নিয়ে কোনো সঙ্কট থাকবে না। তিনি বলেন, এবার প্রায় ৬০ হাজার বাংলাদেশী হজযাত্রীর সউদী পর্বের ইমিগ্রেশন ঢাকা বিমান বন্দরেই সম্পন্ন করা হবে।
ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম গতকাল দুপুরে হজক্যাম্প পরিদর্শনে যান। মেয়র হজক্যাম্পে আল্লাহর মেহমান হজযাত্রীদের সাথে কুশল বিনিময় করেন। হজযাত্রীদের সাথে হজক্যাম্প জামে মসজিদে তিনি জুমার নামাজ আদায় করেন। মেয়র হজযাত্রীদের উদ্দেশে ঘোষণা দেন হজক্যাম্পের পূর্ব পাশে সিভিল এভিয়েশনের ডোবার কচুরিপানা আগামীকাল রোববার থেকে সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে পরিষ্কার করা হবে। এতে হজযাত্রীরা মশার আক্রমণ থেকে রক্ষা পাবেন। তিনি বিমানবন্দর রেল গেইট থেকে হজক্যাম্পের দু’পাশের রাস্তা হকারমুক্ত রাখার কথাও উল্লেখ করেন। মেয়র বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রূহের মাগফেরাত কামনা ও প্রধানমন্ত্রীর জন্য হজযাত্রীদের কাছে দোয়া চান।

এদিকে, গত দু’দিনে বিমান ও সাউদিয়ার ২১টি হজ ফ্লাইট যোগে প্রায় ৭ হাজার ৩৭১ জন হজযাত্রী সউদী আরবে পৌঁছেছে। হজ অফিসের পরিচালক হজ সাইফুল ইসলাম গতকাল এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। হাব সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম বলেন, যান্ত্রিক ত্রæটির দরণ প্রথম দিনেই সউদী পর্বের ইমিগ্রেশন ঢাকায় চালু করা সম্ভব হয়নি। বৃহস্পতিবার রাতেই ঢাকা বিমান বন্দরে সউদী প্রি-অ্যারাইভাল ইমিগ্রেশন চালু হওয়ায় হজযাত্রীদের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হজযাত্রী

১৮ জানুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন