Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ০৫ ভাদ্র ১৪২৬, ১৮ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

গোবিন্দগঞ্জে দরিদ্র যুবক ও তাঁর পরিবারকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানালেন পুলিশ সুপার

ঘুষমুক্ত এবং নিজ যোগ্যতায় পুলিশে চাকুরী পাওয়ায়

গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৬ জুলাই, ২০১৯, ৬:২২ পিএম

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কোচাশহর গ্রামের অসচ্ছল পরিবারের স্নাতক পড়ুয়া যুবক পংকজ কুমার রায়। ছোট বেলা থেকেই তাঁর স্বপ্ন ছিল বড় হয়ে পুলিশে চাকুরী করার। কিন্তু দরিদ্র কৃষক পরিবারে জন্ম নেয়া এ যুবকের সাধ্য ছিলনা মোটা টাকা ঘুষ দিয়ে পুলিশে চাকুরী নেয়ার। সময়ের সাথে সাথে বদলে যায় সব কিছু। কিছুদিন আগে গাইবান্ধার পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়ার ঘোষণা করেন ঘুষ ও দুর্নীতিমুক্তভাবে উপযুক্ত যোগ্যতা সম্পন্ন প্রার্থীদের পুলিশে নিয়োগ দেয়া হবে। সে অনুযায়ী পংকজ কুমার রায় কয়েকদিন আগে ১০৩ টাকা দিয়ে পুলিশে চাকুরীর আবেদন ফরম সংগ্রহ করে চাকুরীর আবেদন করে। কিন্তু তখনও তাঁর বিশ্বাস ছিলনা যে বিনা টাকায় পুলিশে তাঁর চাকুরী হবে। ছোট বেলার পুলিশে চাকুরী করার স্বপ্ন এবার সত্যি হলো। নিজ যোগ্যতায় সে পুলিশের চাকুরীর জন্য নির্বাচিত হয়েছে সে।

গাইবান্ধার পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া ঘুষ-দালালমুক্ত, নিজ মেধা ও যোগ্যতায় পুলিশের চাকুরী পাওয়ায় পংকজ কুমার রায় ও তাঁর পরিবারকে ফুল ও মিষ্টি দিয়ে শুভেচ্ছা ফুল আর মিষ্টি উপহার দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। শনিবার দুপুরে উপজেলার কোচাশহর গ্রামের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে গ্রামবাসীদের উপস্থিতিতে এ শুভেচ্ছা জানান। গোবিন্দগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম মেহেদী হাসান এবং কোচাশহর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান মন্ডল সহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

গাইবান্ধার পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া এসময় সাংবাদিকদের জানান, পুলিশের চাকুরীতে ঘুষ ও দুর্নীতির অধ্যায় শেষ। উপযুক্ত যোগ্যতা সম্পন্ন প্রার্থীদেরকেই পুলিশে চাকুরীর জন্য নির্বাচন করা হয়েছে। আমরা পংকজ কুমার রায়কে চাকুরী দেইনি, বরং সে নিজ যোগ্যতায় চাকুরী পেয়েছে।

পংকজের মা স্বপ্নার রাণী রায় কান্নাভেজা কন্ঠে বলেন, জীবনে অনেক কষ্ট করেছি। আশা করেছি ছেলের একটি ভাল চাকুরী হলে আমাদের কষ্ট দূর হবে। আমাদের মনের আশা পূর্ণ হয়েছে। তিনি বিনা টাকায় তাঁর ছেলের পুলিশে চাকুরী হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পুলিশ সুপার আব্দুল মান্নান মিয়াকে কৃতজ্ঞতা জানান।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ