Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫, ১২ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

আসামে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত পুরোপুরি বন্ধ হচ্ছে ২০১৭ সালের জুনে

প্রকাশের সময় : ৪ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : ভারতের কেন্দ্রীয় বিজেপি সরকার ২০১৭ সালের জুনের মধ্যে আসামে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত বন্ধ করে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে। গত বৃহস্পতিবার বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকার এই নির্দেশ দেয়। আসামে বিজেপি’র সরকার ক্ষমতায় আসার এক সপ্তাহের মাথায় নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির অংশ হিসেবে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে ভারতের একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল এ খবর দিয়েছে।
খবরে বলা হয়, বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রবেশ ও চোরাচালান ঠেকাতেই মূলত এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং নতুন দিল্লীতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তা ও সামরিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করার পর এই নির্দেশ জারি করেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, বৈঠককালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসামে ইন্দো-বাংলা সীমান্ত পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়ার নির্দেশ দেন।
এদিকে সমালোচকরা বলছেন, সাম্প্রতিক বিধানসভা নির্বাচনে আসামবাসী বিজেপিকে নিরাশ না করায় ক্ষমতায় আসার পর পরই তারা দ্রুত নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পালনের একটি নমুনা তুলে ধরেছেন আসামবাসীর সামনে।
আসামের ২২৩.৭ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে বাংলাদেশ-ভারত আন্তর্জাতিক সীমানা রয়েছে। ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সীমান্ত বন্ধ করে দেয়ার যাবতীয় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে প্রক্রিয়া পুরোপুরি সম্পন্ন করতে বেশকিছু সময় লাগবে। আশা করা হচ্ছে, এক বছরের মধ্যেই সম্পূর্ণ প্রক্রিয়া শেষ হয়ে যাবে।
আসামের মূখ্যমন্ত্রী সর্বনন্দ সোনোয়াল বলেছেন, দু’বছরের মধ্যে বাংলাদেশের সাথে সীমান্ত বন্ধ করে দেয়া ছিলো তার দু’টি প্রধান নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির একটি এবং সেটি হতে চলেছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেছেন, সীমান্তের স্পর্শকাতর এলাকাগুলোর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহারের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
এসব প্রযুক্তিগত ব্যবস্থার মধ্যে থাকবে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ক্যামেরা, রাডার, আন অ্যাটেনটেড গ্রাউন্ড সেন্সর, অপটিক ফাইবার, ইনফ্রা রেড সেন্সর, অ্যারোস্ট্যাটস, হাতে বহনযোগ্য থার্মাল ইমেজারস ইত্যাদি।
ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের মোট সীমান্ত এলাকা হচ্ছে ৪ হাজার ৯৬ কিলোমিটার। এরমধ্যে ২৮৪ কিলোমিটার হচ্ছে আসামের সঙ্গে। নতুন দিল্লীতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে আরও বলা হয়, আসামে আরও অতিরিক্ত বিএসএফ মোতায়েনের পাশাপাশি সীমান্ত বন্ধ করার জন্য ২২৪ কিলোমিটার কাঁটা তারের বেড়াও নির্মাণ করা হয়েছে। আসামের ১২২টি পয়েন্টে কোনো মানব প্রহরা থাকবে না। ভারত-বাংলাদেশের আসাম সীমান্তে ১১.৯ কিলোমিটার এলাকার একশো স্থানে বিএসএফের প্রহরাসহ বেড়া থাকবে এবং ৪৮.৮ কিলোমিটার নদীসংশ্লিষ্ট এলাকার ২২টি স্থানে প্রযুক্তিগত ব্যবস্থা থাকবে। ইন্ডিয়া টুডে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ