Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

অস্ট্রেলিয়াকে শীর্ষে থাকতে দিলনা দক্ষিণ আফ্রিকা

ভারত-নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড সেমিফাইনাল

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ জুলাই, ২০১৯, ২:২৯ এএম | আপডেট : ৩:১৯ এএম, ৭ জুলাই, ২০১৯

দিনের আগের ম্যাচে জিতে শীর্ষ স্থানের জন্য দাবি জানিয়েই রেখেছিল ভারত। অপেক্ষা কেবল অপর ম্যাচটিতে অস্ট্রেলিয়ার হারের। ডেভিড ওয়ার্নারের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি (১২২) আর শেষ দিকে অ্যালেক্স ক্যারির লড়াকু ৮৫ রানে ভর করেও লক্ষ্য থেকে ১০ রান দূরে থেকে থামল অজিরা।

আগেই ছিটকে পড়া দক্ষিণ আফ্রিকার শেষ ম্যাচের এই জয় দুইয়ে নামিয়ে দিলো বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। শীর্ষে উঠে গেল বিরাট কোহলির দল।

বিশ্বকাপের লিগ রাউন্ডের শেষ ম্যাচে এসে সেমিফাইনালের লাইনআপের সঙ্গে সঙ্গে চূড়ান্ত হয়ে গেল প্রতিপক্ষও। আগামী মঙ্গলবার ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে শীর্ষে থাকা ভারতের প্রতিপক্ষ চারের শেষ দল নিউজিল্যান্ড। একদিন বাদে বার্মিংহামের এজবাস্টনের লড়াইটা দুই আর তিনে থাকা চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী যথাক্রমে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া আর স্বাগতিক ইংল্যান্ডের।

আগামী ১৪ জুলাই ক্রিকেটতীর্থ লর্ডসের ফাইনালের মধ্য দিয়ে পর্দা নামবে ক্রিকেট বিশ্বসেরার দ্বাদশ আসর।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

দক্ষিণ আফ্রিকা: ৫০ ওভারে ৩২৫/৬ (মারক্রাম ৩৪, ডি কক ৫২, দু প্লেসি ১০০, ফন ডার ডাসেন ৯৫, দুমিনি ১৪, প্রিটোরিয়াস ২, ফেলুকায়ো ৪; স্টার্ক ৯-০-৫৯-২, বেরেনডর্ফ ৮-০-৫৫-১, লায়ন ১০-০-৫৩-২, কামিন্স ৯-০-৬৬-১, স্মিথ ১-০-৫-০, স্টয়নিস ৩-০-১৯-০, ম্যাক্সওয়েল ১০-০-৫৭-০)।

অস্ট্রেলিয়া: ৩১৫/১০ (৪৯.৫ ওভার)(ওয়ার্নার ১২২, ফিঞ্চ ৩, খাজা ১৮, স্মিথ ৭, স্টোইনিস ২২, ম্যাক্সওয়েল ১২, ক্যারি ৮৫, কামিন্স ৯, স্টার্ক ১৬, বেরেনডর্ফ ১১*, লায়ন ৩; তাহির ৫৯/১, রাবাদা ৫৬/৩, প্রিটোরিয়াস ২৭/২, মরিস ৬৩/১, শামসি ৬২/০, ফেলকায়ো ২২/২, ডুমিনি ২২/০)।

ফল: দক্ষিণ আফ্রিকা ১০ রানে জয়ী।

ম্যাচসেরা: ফাফ ডু প্লেসিস।

--------------------------

কামিন্স-ক্যারি বিদায়ে ব্যাকফুটে অস্ট্রেলিয়া

৯ রান করে ক্যারি সঙ্গ দেয়া কামিন্সকে ডুমিনির ক্যাচে পরিনত করে ফেরালেন ফেলকায়ো। অজি দলের আশা জাগানিয়া ব্যাটসম্যান ক্যারিকে ৮৫ রানে ফেরান মরিস। স্টার্ক ১ রানে খেলছেন।

দলীয় সংগ্রহ ৪৫.২ ওভারে ৭ উইকেটে ২৭৫ রান। জয়ের জন্য প্রয়োজন ২৮ বলে ৫১ রান।

ওয়ার্নারের বিদায়ে প্রোটিয়া শিবিরে স্বস্তি

অস্ট্রেলিয়া আশার আলো হয়ে দাঁড়িয়ে থাকা ওয়ার্নারকে ফিরিয়ে দিয়ে প্রোটিয়া শিবিরে স্বস্তি ফিরিয়ে আনলেন প্রিটোরিয়াস। ফেরার আগে ১২২ রান করেন তিনি। ক্যারি ৫০ রানে অপরাজিত আছেন। তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন কামিন্স।

দলীয় সংগ্রহ ৪০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ২২৭ রান। জয়ের জন্য আরও প্রয়োজন ৬০ বলে ৯৯ রান।

ওয়ার্নারের সেঞ্চুরিতে জয়ের আশা দেখছে অস্ট্রেলিয়া

উদ্বোধনী উইকেটে ফিঞ্চকে হারানোর পর স্মিথ, স্টোইনিস ও ম্যাক্সওয়েল সবাই ফিরে গেছেন। কিন্তু একপ্রান্ত আগলে রেখে অস্ট্রেলিয়াকে জয়ের আশা দেখাচ্ছেন ওয়ার্নার। বিশ্বকাপে এটি তার তৃতীয় সেঞ্চুরি। মাত্র ১০০ বলেই তিনি তিন অঙ্কে প্রবেশ করেন। ওয়ার্নার ১০১ রানে ও ক্যারি ২৯ রানে অপরাজিত আছেন।

দলীয় সংগ্রহ ৩৪ ওভারে ৪ উইকেটে ১৮৩ রান।

ম্যাক্সওয়েলকে ফেরালেন রাবাদা

ব্যক্তিগত সপ্তম ওভারের প্রথম বলেই ম্যাক্সওয়েলকে উইকেটরক্ষক ডি ককের ক্যাচে পরিনত করে বিদায় করলেন রাবাদা। মাত্র ১২ রানেই ফিরলেন তিনি। ওয়ার্নার ৬৮ রানে ও ক্যারি ৫ রানে অপরাজিত আছেন।

দলীয় সংগ্রহ ২৫ ওভারে ৪ উইকেটে ১২৫ রান।

রান আউটে ফিরলেন ওয়ার্নার

ওয়ার্নার ও স্টোইনিসের ৬২ রানের জুটি ভেঙে দিলেন রাবাদা। দুর্দান্ত একটি থ্রোতে ডি ককের হাতে বল তুলে দিয়ে রান আউটে ফেরালেন ২২ রান করা স্টোইনিসকে। ওয়ার্নার ৫৬ রানে ও ম্যাক্সওয়েল ১ রানে অপরাজিত আছেন।

দলীয় সংগ্রহ ২০ ওভারে ৩ উইকেটে ৯৭ রান।

ফিঞ্চের পর স্মিথকেও হারাল অস্ট্রেলিয়া

শুরুতেই ফিরে গেলেন আসরজুড়ে তাণ্ডব চালানো অ্যারন ফিঞ্চ। একটুবাদে চোট নিয়ে মাঠ ছাড়লেন উসমান খাজাও। সিটেভেন স্মিথকে ফিরিয়ে চাপে পড়া অস্ট্রেলিয়াকে আরো আষ্টেপিষ্ঠে চেপে ধরেছে ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস।

১০ ওভার শেষে ২ উইকেট হারানো অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ৪৪। ডেভিড ওয়ার্নার অপরাজিত আছেন ২৩ রানে, রেকর্ড রানতাড়ায় তাকে সঙ্গ দিতে ক্রিজে আসা মার্কাস স্টয়নিসের ঝুলিতে ১৪ বলে ৪ রান।

শুরুতেই ফিঞ্চকে ফেরালেন তাহির

আসরজুড়েই তুলেছেন ঝড়, বোলারদের বুকের কাঁপন। রেকর্ডগড়া রান তাড়ার লক্ষ্যে নেমে সেই ফিঞ্চকে দাঁড়াতেই দিলনা দক্ষিণ আফ্রিকা! মাত্র ৫ রানে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনারকে ফিরিয়ে শুরুতেই বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের চেপে ধরেছে ফাফ ডু প্লেসিসের দল।

ইমরান তাহিরের চতুরতায়ভরা এক স্লোয়ার লেগব্রেকে ব্যাকফুটে উঁচিয়ে মারতে গিয়েছিলেন অজি অধিনায়ক। তবে ব্যাটে-বলের রসায়ন না জমে বল জমেছে শর্ট কভারে দাঁড়ানো এইডেন মার্করামের হাতে।

৫ ওভার শেষে ঐ এক উইকেট হারানো অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ২০। ডেভিড ওয়ার্নার ১১ আর এখনও রানের খাতা খোলাই হয়নি ও স্টিভেন স্মিথের।

ডু প্লেসিস-ডুসেন ঝড়ে দক্ষিণ আফ্রিকার রানপাহাড়

আগে ৮ ম্যাচে হয়নি একটিও। তবে শেষ ম্যাচে যেন নিজেদের ফিরে পেল দক্ষিণ আফ্রিকা, একই ম্যাচে পেতে পারতো জোড়া সেঞ্চুরির দেখা। ফাফ ডু প্লেসিস কাঁটায় কাঁটায় তিন অঙ্ক ছুঁতে পারলেও ভাগ্র সুপ্রসন্ন ছিলনা ভেন ডার ডুসেনের।

শেষ বলে প্রয়োজন ৫ রান। হাঁকিয়েছিলেন সজোরে। ছুটলে নিশ্চিত ছক্কা। তবে অনেকটা উঁচুতে লাফিয়ে শুধু বলটিই নয়, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল তালুবন্দী করেন তার শতকটিকেও।

তারপরও অস্ট্রেলিয়াকে বিশাল লক্ষ্য দিয়েছে প্রোটিয়ারা। নির্ধারিত ওভার শেষে ৬ উইকেট হারানো দক্ষিণ আফ্রিকা তুলেছে ৩২৫ রান!

সেঞ্চুরি করেই ফিরলেন ডু প্লেসিস

এবারের আসরে প্রথম আটটি ম্যাচে কোন প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরির দেখা পাননি। এবার প্রোটিয়াদের সেই সেঞ্চুরি খরা কাটালেন ডু প্লেসিস। মাত্র ৯৩ বলে তিনি দেখা পেয়ে যান শতরানের। কিন্তু তার পরের বলেই স্টার্কের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান তিনি। ডুসেন ৬০ রানে অপরাজিত আছেন।

দলীয় সংগ্রহ ৪৩ ওভারে ৩ উইকেটে ২৬৫ রান।

ডু প্লেসিসের ব্যাটে এগোচ্ছে প্রোটিয়ারা

ডি ককের বিদায়ের পরেইনিংসের হাল ধরেছেন ডু প্লেসিস। ব্যক্তিগত অর্ধত রান পূর্ণ করে ডুসেনের সঙ্গে ৬৫ রানের জুটি বেঁধেছেন তিনি। ডু প্লেসিস ৫৩ রানে ও ডুসেন ২৪ রানে অপরাজিত আছেন।

দলীয় সংগ্রহ ৩২ ওভারে ২ উইকেটে ১৭৯ রান।

লায়নের দ্বিতীয় শিকার ডি কক

ব্যক্তিগত অর্ধশত রান পূর্ণ করে আর ইনিংস লম্বা করতে পারলেন না ডি কক। ৫১ বলে ৫২ রান করে লায়নের বলে স্টার্কের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। ডু প্লেসিস ১৬ রানে অপরাজিত আছেন।

১৭.৪ ওভারে ২ উইকেটে সংগ্রহ ১১৪ রান।

দুর্দান্ত জুটি ভাঙলেন লায়ন

আমলার ইনজুরির কারনে ডি ককের সঙ্গে উদ্বোধনী জুটিতে নামেন মারক্রাম। দুর্দান্ত শুরু করেছেন দুই ব্যাটসম্যান। তবে ব্যক্তিগত ৩৪ রানে মারক্রাম লায়নের বলে স্ট্যাম্পিং হলে ভেঙে যায় ৭৯ রানের জুটি। ডি কক ৩৮ রানে ও ডু প্লেসিস ৪ রানে অপরাজিত আছেন।

দলীয় সংগ্রহ ১৩ ওভারে ১ উইকেটে ৮৪ রান।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে দক্ষিন আফ্রিকা

টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দক্ণি আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস। অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ জানিয়েছেন তিনিও টসে জিতলে ব্যাটিং নিতেন এবং তার দল আজ অপরিবর্তিত। আমলার ইনজুরির কারনে তার পরিবর্তে খেলছেন শামসি।

শীর্ষস্থান ধরে রাখার লড়াই অস্ট্রেলিয়ার

বিশ্বকাপের পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষস্থান ধরে রাখার লড়াইয়ে আসরের শেষ (৪৫তম ) ম্যাচে দক্ষিন আফ্রিকার মুখোমুখি অস্ট্রেলিয়া। এবারের আসরের প্রথম দল হিসেবে সেমি ফাইনাল নিশ্চিত করা দলটি পয়েন্ট টেবিলে রয়েছে এক নম্বর অবস্থানে। অন্যদিকে দক্ষিন আফ্রিকার আরও আগেই আসর থেকে নিজেদের বিদায় নিশ্চিত করেছে। আজকের ম্যাচ জিতলে অস্ট্রেলিয়া শেষ করবে শীর্ষস্থানে থেকেই।

পরিসংখ্যান:

অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিন আফ্রিকার মুখোমুখি শততম ম্যাচে প্রায় সমানে সমানে লড়াই করছে দল দুটি। অবশ্য এগিয়ে আছে অস্ট্রেলিয়া।

ওয়ানডেতে:

ম্যাচ: ৯৯

অস্ট্রেলিয়া জয়ী: ৪৮

দক্ষিন আফ্রিকা জয়ী: ৪৭

টাই: ৩

পরিত্যক্ত: ১

বিশ্বকাপে:

ম্যাচ: ৫

অস্ট্রেলিয়া: ৩

দক্ষিন আফ্রিকা: ১

টাই: ১



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১৯


আরও
আরও পড়ুন