Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮, ২১ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

চলতি মাসেই রাজধানীতে টিকিট সিস্টেম বাস- সাঈদ খোকন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

চলতি মাসেই রাজধানীতে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে টিকিট সিস্টেম বাস। এর আওতায় সব বাস টিকিট সিস্টেমে চলবে। প্রাথমিকভাবে মোহাম্মদপুর থেকে মতিঝিল রুটে চালু হবে এ সিস্টেম। গতকাল রোববার ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) নগর ভবনে বাস রুট রেশনালিজেশন কমিটির এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ডিএসসিসি মেয়র সাঈদ খোকনের সভাপতিত্বে বৈঠকে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন, ঢাকা মহানগর পুলিশ ও অন্যান্য সংশ্লিষ্ট সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠক শেষে মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, মোহাম্মদপুর ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর ব্রিজ পর্যন্ত রুটের সব বাস এক কোম্পানি ও এক রুটের আওতায় এনে বাস পরিচালনার কার্যক্রম শুরু করা হবে। এরপর অন্য রুটে আরো ৫টি কোম্পানিসহ মোট ৬টি কোম্পানির আওতায় বাস পরিচালনা করা হবে। প্রাথমিকভাবে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর পর্যন্ত মতিঝিল হয়ে যেসব বাস চলাচল করে সেগুলোর মালিকদের সঙ্গে সমন্বয় করে সব বাসকে এক রঙে আনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এসব বাস টিকিটিং সিস্টেমে চলবে।
এছাড়াও চলতি মাসের শেষেই পুরান ঢাকায় বিআরটিসির চক্রাকার বাস চলাচল শুরু করার ঘোষণা দিয়েছেন মেয়র। বৈঠক শেষে মেয়র সাঈদ খোকন সাংবাদিকদের বলেন, চক্রাকার বাস যাত্রা শুরু করবে বাবুবাজার ব্রিজ থেকে। বাবুবাজার থেকে ধোলাইখাল, দয়াগঞ্জ, যাত্রাবাড়ী, ডেমরা স্টাফ কোয়ার্টার, আমুলিয়া, মেরাদিয়া, রামপুরা, মালিবাগ হয়ে মগবাজার পর্যন্ত আসবে বাস। তবে সেখান থেকে বাবুবাজার ব্রিজ পর্যন্ত আপাতত এই বাস আসবে না। মগবাজার থেকে সদরঘাট পর্যন্ত বেসরকারি পরিবহনের অনেক বাস চলাচল করছে। যদি যাত্রীদের চাহিদা থাকে তাহলে বাসগুলো পুরান ঢাকায় যাবে। অন্যথায় মগবাজার থেকে মালিবাগ, রামপুরা, স্টাফ কোয়ার্টার, যাত্রাবাড়ী হয়ে বাবুবাজার চলে আসবে।
মোহাম্মদপুর- মতিঝিল রুটের বাসে টিকেটের মাধ্যমে যাত্রী পরিবহন বাধ্যতামূলক করার ঘোষণা দিয়ে মেয়র বলেন, এই রুটের কোনো বাস টিকেট সিস্টেমের বাইরে চলতে পারবে না। এ বিষয়ে মালিক সমিতি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এবং ঢাকা মহানগর পুলিশ এ বিষয়ে মালিক সমিতিকে প্রয়োজনীয় সহায়তা করবে। যাত্রীরা টিকেট কেটে বাসে চড়বেন, এতে বাসের মধ্যে অসুস্থ প্রতিযোগিতা কমে যাবে। ###



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ