Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬, ২২ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

পুলিশের থেকে ছিনিয়ে নিয়ে তিন যুবককে গণপিটুনি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ জুলাই, ২০১৯, ৮:৩১ পিএম

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় ছেলেধরা সন্দেহে আটক তিন যুবককে পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়ে পিটুনি দিয়েছেন জনতা। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে উপজেলার চৌমুহনী চৌরাস্তা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পরে বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (ওসি) নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ এসে ওই তিন যুবককে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

আটক যুবকেরা হলেন বেগমগঞ্জের গনিপুর এলাকার মো. রাজু (২৮), ইকবাল হোসেন ওরফে হৃদয় (২৪) ও সোনাইমুড়ী উপজেলার নাটেশ্বর গ্রামের মো. আজাদ (২৮)। থানা-পুলিশ তাঁদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে দুপুরে আদালতে পাঠিয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে চৌমুহনী রেলস্টেশন এলাকায় ছেলেধরা সন্দেহে ওই তিন যুবককে আটক করেন লোকজন। এ সময় তাঁদের হালকা পিটুনি দিয়ে বেঁধে রাখা হয়। পরে খবর পেয়ে চৌমুহনী ফাঁড়ির পুলিশ ওই যুবকদের ফাঁড়িতে নিয়ে যায়। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আটক তিন যুবককে থানায় নেওয়ার পথে স্থানীয় লোকজন তাঁদের পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেন। এরপর তাঁদের দ্বিতীয় দফায় পিটুনি দেন তাঁরা। এ সময় কর্তব্যরত পুলিশের চার সদস্যও সামান্য আহত হন।

তিন যুবককে গণপিটুনি দেওয়ার ঘটনা নিশ্চিত করেছেন বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুন উর রশিদ চৌধুরী। তিনি বলেন, আটক যুবকদের বিরুদ্ধে ছেলেধরার অভিযোগের সুনির্দিষ্ট কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তবে তাঁদের মধ্যে আজাদ ও ইকবালের বিরুদ্ধে থানায় চুরির মামলা আছে। এ ছাড়া আরও একাধিক মামলার সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে তাঁদের মঙ্গলবার দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গণপিটুনি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ