Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২২ জুলাই ২০১৯, ০৭ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৮ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

সুস্থভাবে বাঁচতে হলে

| প্রকাশের সময় : ১১ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৭ এএম

যে খাদ্য দেহের জন্য ক্ষতিকর নয় বরং দেহের বৃদ্ধি, ক্ষয় পূরণ ও রোগ প্রতিরোধ করে, তাই স্বাস্থ্যসম্মত খাদ্য। কিন্তু অপ্রিয় হলেও সত্য, এ দেশের প্রতিটি খাদ্যই ভেজাল। স্বাস্থ্যসম্মত খাবার আজ যেন আমাদের নাগালের বাইরে। চাল, ডাল, আটা, মাছ, গোশত, তেল, ঘি, দুধ, দই, চিনি, মিষ্টি, চকলেট, আইসক্রিম, কেক, শিশুখাদ্য, গুঁড়া দুধ, ফলমূল, সবজি, মসলা, সবকিছুতে ভেজাল। শাকসবজিতে স্প্রে করা হয় কীটনাশক। স্প্রে করার পর ৭-৮ দিন অপেক্ষা না করে সঙ্গে সঙ্গে বিষাক্ত সবজি বাজারজাত করা হয়। এখন খাদ্য মানেই ফরমালিন, কার্বাইড, হাইড্রোজ, পারক্সাইড, এসপারটেম, ইথোপেনসহ নানা ক্ষতিকর রঙ ও রাসায়নিক বিষ। খাদ্যে ভেজালের কারণে মানুষ কিডনি ফেইল্যুর, হার্ট অ্যাটাক এমনকি ক্যান্সারসহ নানা মরণব্যাধিতে আক্রান্ত হচ্ছে এবং তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ধাবিত হচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে আমরা রুগ্ণ ও পঙ্গু জাতিতে পরিণত হবো। তাই জাতিকে সুস্থভাবে বাঁচতে হলে ভেজাল নামক দৈত্যকে রুখতেই হবে। ভেজালকারীকে দৃষ্টান্তমূলক ফাঁসি দিলে সুফল মিলতে পারে। আইনের মাধ্যমে সব ভেজাল ব্যবসায়ীকে শনাক্ত করে, আইনের মাধ্যমে উপযুক্ত শাস্তি প্রদান করতে হবে। সবাই মিলে গড়তে হবে ভেজালমুক্ত পরিবেশ। 

মাহফুজুর রহমান খান
মেলান্দহ, জামালপুর



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন