Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ০৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

পাল্টে যাচ্ছে জীবনের গল্প

পুলিশে স্বচ্ছ নিয়োগ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৬ এএম

মাত্র ১০৩ টাকায় চাকরি পেয়ে এখন অনেকেরই জীবনের গল্পটা পাল্টে যাচ্ছে। কোন উৎকোচ বা ঘুষ ছাড়াই যোগ্যতার ভিত্তিতে বাংলাদেশ পুলিশে ট্রেনিং রিক্রুটিং কনস্টেবল পদে দেশে বিভিন্ন স্থানে স্বচ্ছ নিয়োগে খুশি অভিভাবকরা। আমাদের ব্যুরো প্রধান ও সংবাদদাতাদের পাঠানো তথ্যে এ প্রতিবেদন :
নোয়াখালী : মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে মাত্র ১০৩ টাকায় পুলিশে চাকরি পেয়েছে নোয়াখালীর ২৩২জন যুবক-যুবতীর। গতকাল বুধবার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলা পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন। এরআগে মঙ্গলবার রাতে পুলিশ কনস্টেবল পদে তাদের নিয়োগের কার্যক্রম সম্পূর্ণ করা হয়। পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের ফুল ও মিষ্টি মুখ করে বরন করেন পুলিশ সুপার। পুলিশ সুপার জানান, কোন প্রকার অনিয়ম ছাড়াই ২৩২জনকে পুলিশ কনস্টেবল পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে ১৯০জন ছেলে ও ৪২জন মেয়ে রয়েছে। তিনি আরও বলেন, ১০০ টাকার ব্যাংক ড্রাফট ও ৩টাকার ফরম ছাড়া কোন টাকা লাগেনি উত্তীর্ণদের। এক কথায় ১০৩ টাকায় এ নিয়োগ সম্পন্ন করা হয়েছে।
চৌদ্দগ্রাম : কারও বাবা রিকশা চালক। কেউবা দিন মুজুর। কারও বাবা নেই। টিউশনি করে নিজের লেখাপড়ার খরচের পাশাপাশি কেউ কেউ সংসারের একমাত্র অবলম্বনও ছিলেন। কিন্তু এখন অনেকেরই জীবনের গল্পটা পাল্টে যাচ্ছে। বিনা টাকায় চাকরি পেয়ে হতদরিদ্র ওই পরিবারগুলোতে চলছে আনন্দের বন্যা। অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে অনেকেই কান্নায় ভেঙে পড়েন। এ নিয়োগে চাকরি পেয়েছেন গার্মেন্টস কর্মী, দিনমজুর, সবজি বিক্রেতা, কৃষক, ভ্যান ও রিকশাচালকের সন্তানসহ ৩০৭ জন
গত মঙ্গলবার বিকেল পর্যন্ত কুমিল্লা পুলিশ লাইন্সের শহীদ আরআই এবিএম আবদুল হালিম মিলনায়তনে জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলামসহ জেলা পুলিশের কর্মকর্তারা নতুন নিয়োগপ্রাপ্তদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। ওই অনুষ্ঠানে নিয়োগপ্রাপ্তদের বাবা-মা, পরিবারের সদস্য এবং নিয়োগ বোর্ডের সদস্য ছাড়াও জেলা পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও নগরীর বিশিষ্টজনরা উপস্থিত ছিলেন।
জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, চ‚ড়ান্ত নিয়োগে ছেলেদের ১৭৩ জনের মধ্যে সাধারণ কোটায় ১১৫ জন, এতিম কোটা ২, আনসার ৩, পোষ্য ৭ ও মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ৪৬ জন এবং মেয়েদের ১৩৪ জনের মধ্যে সাধারণ ১২৯, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ৩ জন, পোষ্য ও এতিম কোটায় ১ জন করে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। কুমিল্লা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং আইজিপি স্যারের নির্দেশনা ছিল পুলিশ কনস্টেবল পদে নিয়োগে কারো তদবির না শুনতে, সঠিক ও স্বচ্ছ প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে নিয়োগ কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে। যে কারণে সর্বোচ্চ সতর্কতার মধ্য দিয়ে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে।
ফরিদপুর : ফরিদপুরে ২৯ জন ছেলে ও ২৬ জন মেয়েকে একশত তিন টাকায় নয়, একশ টাকায় পুলিশে চাকরি দিলেন ফরিদপুরের পুলিশ সুপার। গতকাল বুধবার দুপুর ১২টায় ফরিদপুর জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় কালে জানালেন ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মোঃ জাকির হোসেন খান।
তিনি বলেন ১শত তিন টাকা লাগার কথা সেখানে আমরা ফরমের দামটিও দিয়ে দিয়েছি তাদের। ব্যাংকে যে টাকাটি লাগে সেই এক’শ টাকা শুধু তাদের লেগেছে। পুলিশ সুপার জানান, এবার চূড়ান্ত পর্যায়ে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তাদের বেশির ভাগই হতদরিদ্র, দিনমজুর ও চা বিক্রেতার সন্তান। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জামাল পাশা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আতিকুল ইসলামসহ সদ্য নিয়োগ প্রাপ্ত ও বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকরা।
আরিচা : কোন উৎকোচ বা ঘুষ ছাড়াই যোগ্যতার ভিত্তিতে বাংলাদেশ পুলিশে ট্রেনিং রিক্রুটিং কনস্টেবল পদে সদ্য নিয়োগে মানিকগঞ্জের শিবালয়ের হতদরিদ্র পরিবারের ১৮ তরুণ-তরুণী দেশ-সেবার মহান পেশায় যুক্ত হওয়ায় সকলের সহযোগিতা ও দোয়া কামনা করেছেন।
শিবালয় থানা ওসি মিজানুর রহমান জানান, বাহিনীর ভাবমূর্তি অক্ষুন্ন রাখতে পুলিশ সুপার মহোদয়ের বিশেষ নির্দেশনায় আন্তরিকতা ও নিষ্টার সহিত গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে কনস্টেবল পদে সদ্য নিয়োগে জেলার ১৩১জনের মধ্যে শিবালয়ের ১৮ তরুণ-তরুনী প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হয়েছে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পুলিশ


আরও
আরও পড়ুন