Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২২ জুলাই ২০১৯, ০৭ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৮ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

ছাগলনাইয়ায় অর্ধশতাধিক পৌর সড়ক পাকাকরণ ও ড্রেনেজ উন্নয়ন

ছাগলনাইয়া (ফেনী) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১২ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৭ এএম

ছাগলনাইয়া পৌরসভা ক শ্রেণীতে উওীর্ণ হয়েছে। এবিষয়ে পৌর মেয়র এম মোস্তফা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই এখন এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ। উন্নয়নের মহাসড়কে বাংলাদেশ› ছাগলনাইয়া পৌরসভায় চলছে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী উন্নয়নের জোয়ার। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ছাগলনাইয়া পৌরসভার কলেজ রোডে ড্রেন নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেছেন পৌর মেয়র এম মোস্তফা। তিনি প্রতিদিনই কোন না কোন উন্নয়ন কাজের তদারকি করে কাজের গুনগত মান উন্নয়নে ঠিকাদার ও প্রকৌশলীদের নির্দেশনা দিচ্ছেন। ২০১৬ সালে মেয়র নির্বাচিত হন ছাগলনাইয়া পৌর আ. লীগের সভাপতি এম মোস্তফা ।

এ নির্বাচনে প্রথমবার মেয়র নির্বাচিত হবার পর ছাগলনাইয়া পৌরসভাকে সুপরিকল্পিত শহরে উন্নীত করতে মাস্টার প্ল্যান প্রণয়ন করেন তিনি। পৌরসভাকে ‘সার্বজনীন’ হিসেবে গড়তে সার্বক্ষণিক কাজ করে যাচ্ছেন মেয়র এম মোস্তফা । দলমত নির্বিশেষে স্থানীয় পৌরবাসীর নাগরিক সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতেই নিজেকে নিয়োজিত করছেন তিনি।প্রতিটি ওয়ার্ডে চাহিদা অনুযায়ী উন্নয়ন কাজ পরিচালনা করে একটি জনকল্যাণমূলক, আধুনিক ও আলোকিত পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করে যাচ্ছেন । পরিকল্পিত উপায়ে ছাগলনাইয়া পৌর শহরের চেহারা বদলে দেয়ারও দৃঢ় প্রত্যয় উচ্চারিত হয় তার কণ্ঠে। ছাগলনাইয়া পৌরসভার জমদ্দার বাজারের পয়:নিষ্কাশন ও পৌর শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনে অত্যাধুনিক মাস্টার ড্রেন নির্মাণ কাজ চলছে।পৌরসভার প্রত্যেক বাড়ির রাস্তাসহ পৌরসভার শেষ সীমানা পর্যন্ত রাস্তা উন্নয়ন কাজ চলছে এবং সকল ওয়ার্ড সমূহের সকল উন্নয়ন কাজ ধারাবাহিকভাবে সম্পন্ন করা হবে বলে জানান মেয়র এম মোস্তফা। ক শ্রেনীতে উন্নয়নের এ সফলতা তিনি পৌরবাসীকে উৎসর্গ করে সবার অব্যাহত সহযোগিতা কামনা করেন। অপরদিকে ছাগলনাইয়া পৌরসভায় বিগত তিন বছরে অর্ধ শতাধিক সড়ক পাকাকরণ ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়নে পৌরবাসীর নাগরিক সুবিধা বেড়েছে।

কয়েকটি জনগুরুত্ব সড়কের দু-পাশের পাকা স্থাপনা সরানোর মাধ্যমে যানচলাচলে ও নাগরিকদের চলাচলে অভূতপূর্ব উন্নতি হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। ৩৫ কোটি টাকা ব্যয়ে বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন করে আরো নতুন নতুন প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে পৌরবাসীর নাগরিক সুবিধা বৃদ্ধির লক্ষে কাজ করছেন বলে জানিয়েছেন পৌরসভার মেয়র এম মোস্তফা। তিনি বলেন, বর্জ ব্যবস্থাপনা উন্নয়নে ড্রাম্পিং ব্যবস্থা, ওয়াটার প্ল্যান, ড্রেজিং ব্যবস্থা, গত ৩ বছরে প্রায় ২শ পৌর মামলা নিষ্পত্তি, শতভাগ সেনিটেশন ও পরিষ্কার পরিচ্ছতা, ফুটপাতের অবৈধ দখলমুক্ত, হকারদের পুর্নবাসন করা হয়েছে এবং ছাগলনাইয়া পৌরসভায় প্রবেশ দ্বারে ৪টি সড়কে ৪টি গেইট নির্মানের কাজ হাতে নিয়েছেন। জানাগেছে, ২০০২সালে ২৮.৫ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের সাবেক ছাগলনাইয়া সদর ইউনিয়নকে পৌরসভা ঘোষণা করা হয়। বিগত ১০ জুলাই ২০১৬সালে ছাগলনাইয়া পৌর আ. লীগের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা আ. লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মরহুম ফয়েজ আহম্মদের ছোট ভাই এম মোস্তফা ছাগলনাইয়া পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর ৬০হাজার জনসংখ্যা অধ্যুষিত ছাগলনাইয়া পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের সমস্যা ও চাহিদা নির্ধারণ করে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ শুরু হয়। এ পর্যন্ত পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় পঁচিশটি গার্ড ওয়াল নির্মাণ করা হয়েছে। ছাগলনাইয়া পৌরসভার মসজিদগুলোতে পৌরসভার পক্ষ থেকে অর্ধশতাধিক লাশবাহী খাটিয়া, কবরস্থানের সংস্কার ও উন্নয়ন, দেয়াল নিমার্ণ কাজ শেষ হয়েছে। বিগত তিন অর্থ বছরে ছাগলনাইয়া পৌর এলাকার উন্নয়নে ৩৪ থেকে ৩৫ কোটি টাকা ব্যয়ে বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হয়েছে বলে পৌর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। আরো কয়েককোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ চলছে।পৌরবাসীর চলাচলের সুবিধার্থে ৩০০টি বাড়ির পথকে আরসিসির মাধ্যমে পাকাকরণের কাজ শুরু হয়েছে। গত তিন অর্থ বছরের বাজেটে ছাগলনাইয়া পৌরবাসীর কর না বাড়িয়ে বাজেট দেয়া হয়েছে বলেও জানাগেছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ছাগলনাইয়া পৌরসভার মেয়র এম মোস্তফা জানান, দায়িত্ব গ্রহণের পর পৌরবাসীকে যুগোপযোগী নাগরিক সুবিধা প্রদানের লক্ষ্যে দীর্ঘ মেয়াদী উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। ফেনীর রাজনীতির অভিভাবক আলা উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম ও ফেনী জেলা আ. লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপির নির্দেশনায় বাংলাদেশের মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিশন ২১ ও ৪১ বাস্তবায়নের লক্ষে পৌরবাসীর জীবনমান উন্নয়ন ও নাগরিক সুবিধা নিশ্চিতকরণে তিনি কাজ করছেন বলে জানিয়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন