Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ সফর ১৪৪১ হিজরী

রূপালী ব্যাংক রুয়েট শাখায় ডাকাতির চেষ্টা

রাবি সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ১৩ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

 রুপালী ব্যাংক লিমিটেড রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় (রুয়েট) শাখায় ডাকাতির চেষ্টা করা হয়েছে। এ ঘটনায় লিটন নামের এক প্রহরীকে গলাকেটে হত্যার চেষ্টা করে দুর্বৃত্তরা। মুমূর্ষ অবস্থায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে।

রুপালি ব্যাংক রুয়েট শাখা সূত্রে জানা গেছে, রাত ১২টা ১৪ মিনিটের পর ডাকাত ব্যাংকের গেটের তালা কেটে একজন মুখোশ পরে ব্যাংকের ভিতরে প্রবেশ করে। এ সময় সিসিটিভি ফুটেজে একজনকে মুখ ঢাকা অবস্থায় দেখা গেছে। এরপরই সিসিটিভি লাইনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় ঐ মুখোশধারী। পরে সে ব্যাংক প্রহরীকে ছুরিকাঘাত করে। এতে প্রহরী অজ্ঞান হয়ে মেঝেতে লুটিয়ে পড়ে। এরপর ডাকাতরা রড কাটা মেশিন দিয়ে ভল্টের দরজা ভাঙতে চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। পরে ফটকের পাশের দেয়াল ভাঙতে শুরু করে। দেয়ালের অর্ধেক অংশ ভেঙেও ফেলে ডাকাতদল। তবে লোকের উপস্থিতি টের পেয়ে ব্যাংক থেকে ডাকাত দল সটকে পড়ে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা। আহত প্রহরীর জ্ঞান ফিরলে অফিসের টিএনটি থেকে আশিক শৈবাল নামে এক ব্যাংক কর্মকর্তাকে ফোন দেয়। পরে ম্যনেজার ও থানা পুলিশ এসে তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে। তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। পরবর্তীতে পুলিশ ও রুয়েট কর্তৃপক্ষের সুপারিশের প্রেক্ষিতে জরুরী ভিত্তিতে অপরেশন থিয়েটারে নেওয়া হয়।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাংকের প্রধান ফটকটি কর্তন করা রয়েছে। আর একটু সামনে গিয়ে দেখা যায় অনেক রক্ত পড়ে আছে। তার পাশে টেলিফোনটিও রক্তাক্ত। প্রহরীর লুঙ্গি, গামছা, জুতা, বেডসিটটিও রক্তাক্ত হয়ে আছে। ডান পাশে ব্যাংকের ভোল্টের দরজায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তার পাশে দেয়াল কেটে ভেতরের ঢোকার চেষ্টা ও গর্ত হয়ে আছে। রক্তামাখা সরঞ্জামাদিগুলো পুলিশকে সংগ্রহ করে নিতে দেখা গেছে।
ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার আশিক শৈবাল জানান, ডাকাতিরা লিটনকে হত্যার চেষ্টা চালায়। পরে ছুরিকাঘাতে আহতবস্থায় প্রহরী লিটন অফিসের টেলিফোন থেকে বলেন, ডাকাতরা ব্যাংক ডাকাতি করতে এসেছে। আমাকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা করেছে তারা। আমাকে বাঁচান স্যার। পরে ম্যানেজার স্যারকে জানাই।

মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহাদাৎ হোসেন জানান, ম্যানেজার পুলিশে খবর দিলে দ্রæত ঘটনাস্থলে যাই। নিরাপত্তারক্ষী লিটনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। লিটন কিছু তথ্য দিয়েছে সেগুলো রেকর্ড করে রাখা হয়েছে। তবে তদন্তের স্বার্থে এখন বলা যাবে না বলে জানান তিনি।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ