Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১ হিজরী

সিজারকালে বাচ্চার মাথা কাটলেন চিকিৎসক

যশোরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়াই অপারেশন

বিশেষ সংবাদদাতা, যশোর ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ১৩ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

 যশোর সরকারি হাসপাতালের গেটের সামনে গড়ে ওঠা প্রাইভেট হাসপাতাল কিংসে এক প্রসূতির সিজার করার সময় গর্ভের সন্তানের মাথা কেটে ফেলেছেন ডা. আতিকুর রহমান। ঘটনার দু’দিন পর শিশুটির অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় শুক্রবার তাকে যশোর আড়াইশ’ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

যশোর সদরের সতীঘাটা পান্থাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ইকরাম হোসেনের গর্ভবতী স্ত্রী নাজনীন নাহার বুধবার সন্ধ্যায় ভর্তি হন ডা. আতিকুর রহমানের মালিকানাধীন কিংস হাসপাতালে। শিশুটির পিতা ইকরাম হোসেন জানান, ভর্তির পরপরই কোন রকম পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়াই ডা. আতিকুর রহমান তাঁর স্ত্রীর অপারেশন করেন। অপারেশন করার সময় গর্ভে থাকা শিশুটির মাথায় অপারেশন কাজে ব্যবহৃত অস্ত্রের পোঁচ লাগে। প্রসূতির স্বজনরা ভুমিষ্ট শিশুর মাথায় রক্ত দেখে ু উত্তেজিত হয়ে উঠলে, ডা. আতিক তাদের ধমক দিয়ে বলেন, এটা কিছু না, সামান্য ব্যাপার। ওই অবস্থায় দু’দিন তার হাসপাতালে রেখে দেন শিশুটিকে। শিশুর অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে যশোর আড়াইশ’ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক কাজল মল্লিক জানান, শিশুটির মাথা কাটা রয়েছে। কি কারণে কাটা হয়েছে, তা জানি না। এ ব্যাপারে ডা. আতিকুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, এটা তেমন কোন বড় ঘটনা না। এটা অপারেশনের সময় হতেই পারে।
প্রসঙ্গত: ডা. আতিকুর রহমান গাইনী বিশেষজ্ঞ নন। তিনি ছিলেন যশোর আড়াইশ’ শয্যা হাসপাতালের একজন মেডিকেল অফিসার। এর এক সপ্তাহ আগে কিংস হাসপাতালে আরো একটি ঘটনা ঘটে। পাইলস অপারেশন করতে এক মহিলার জরায়ু কেটে ফেলে ।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ