Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬, ২৪ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

সান্তাহারে আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতি, একইদিনে দুটি বাড়ীতে দুর্ধর্ষ চুরি

মাদকসহ ৩ জন গ্রেফতার

আদমদীঘি (বগুড়া) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৩ জুলাই, ২০১৯, ৪:২১ পিএম

সান্তাহারে আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতি ঘটেছে। শহরে অবাধে মাদক বিক্রি, আবাসিক হোটেলে দেহব্যবসাসহ চুরি ও ছিনতাইয়ের ঘটনা ব্যাপক বৃদ্ধি পেয়েছে। দিনের বেলায় এক সাংবাদিকের বাড়িসহ শহরের দুটি বাড়ীতে দুর্ধর্ষ চুরি সংঘটিত হয়েছে। চোরেরা স্বর্ণলংকার,ল্যাফটপ,নগদ টাকা চুরি করে নিয়ে গছে।

জানাযায়, শুক্রকার দিনদুপুরে শহরের রথবাড়ী এলাকার চাতাল ব্যবসাসী মোজাম্মেলের গ্রীলকেটে বাড়ীর ভিতরে প্রবেশ করে চোরেরা আলমারী থেকে ২০ ভরি স্বণৃলংকারসহ নগদ ৭৭ নগদ টাক চুরি করে নিয়ে গাছে। মোজাম জানান, আগামী ১৭ তারিখে হজ্বে যাওয়ার জন্য ৬৫ হাজার এবং মসজিদের ১২ হাজার মোট ৭৭ হাজার ও ২০ ভরি স্বর্ণলংকার আলমারীতে রেখে বাড়ীর সবাই দাওয়াত খেতে যায় এবং বিকেলে বাড়ীতে ফিরে দেখি চোরেরা এসব মালামাল চুরি করে নিয়েগেছে। এ বিষয়ে থানায় সাধারন ডাইরী করা হয়। এছারাও একই দিন বিকেলে শহরের পাওয়ার প্লান এলাকায় স্থানীয় জনকন্ঠের সাংবাদিক হারেজের বাড়ীতে চুরি সংর্ঘটিত হয়েছে। চোরেরা মেইন গেটের তালা ভেঙ্গে বাড়ীর ভিতরে প্রবেশ করে চোরেরাআলমারী থেকে বাংবাদিকতার কাজে ব্যবহিত একটি ল্যাপটফ ও নগদ ১ হাজার টাকা নিয়েগাছে। বাংবাদিক হারেজ জানান, বিকেলে বাড়ীর মেইন গেটে তালা দিয়ে পরিবারের লোকজন প্রতিবেশীর বাড়ীতে বেরাতে গেলে চোরেরা তালা ভেঙ্গে বাড়ীর ভিতরে প্রবেশ করে উল্লেখিত মালাম চুরি করে নিয়েগাছে। এব্যাপারে পুলিশকে অবহিত করা হয়। থানা পুলিশ পৃথক দুটি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। শহরের সচেতন ব্যাক্তিরা জানিয়েছেন এলাকার আইন শৃখোলার চরম অবনতি ঘটেছে বিধায় প্রতিনিয়ত চুরি ছিনতাই, অবাধে মাদক বিক্রি ও আবাসিক হোটেলে দেহব্যবসা চলছে।
শুক্রবার সন্ধ্যায় সান্তাহার মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন এর সার্কেল সামছুল আলম শহরের চা-বাগান এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১০০ পুরিয়া হেরোইন,৭০ পীচ ইয়াবা ৪০ পীচ এ্্যাম্পলসহ সুটকি (৪২) তার স্বামী নজু (৫২) এবং তদের বিক্রিতা মিনহাজ (২২) কে গ্রেফতার করেছে। এব্যাপারে সান্তাহার মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রনের সার্কেল সামছুল আলম বাদী হয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন এবং আসামীদের স্থানীয় থানায় সোর্পদ করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বগুড়া


আরও
আরও পড়ুন