Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ০৯ ভাদ্র ১৪২৬, ২২ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

চার বছর আগেই ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের তালিকায় বিদ্যালয়টি

| প্রকাশের সময় : ১৪ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৬ এএম

জুরাইন আদর্শ বালক/বালিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। পূর্ব জুরাইনে হাজী খোরশেদ আলী সরদার রোড, ঢাকা-১২০৪- এ অবস্থিত। চার তলা বিশিষ্ট বিল্ডিংয়ে বর্তমানে প্রায় ১২০০ ছাত্র/ছাত্রী লেখাপড়া করছে। বিদ্যালয়টি গত চার বছর পূর্বেই ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের তালিকাভূক্ত হয়েছে। কিন্তু এ পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোন কার্যকর পদক্ষেপ প্রশাসন থেকে গ্রহণ করা হয়নি।

সেই ছেলে বেলায় শিখেছিলাম, ডাক্তার আসিবার পূর্বেই রুগী মারা গেল। কিছু দিন আগে শিশু হাসপাতালের ছাদের পলেস্তার খসে আহত হয়েছে অনেকে। জানা গেল এ ভবনটিও গত চার বছর পূর্বে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের তালিকাভূক্ত করা হয়েছে। শিশুরা আহত হবার পর এখন শুরু হয়েছে তদন্ত। কে দায়ী? কতটুকু দায়ী?

আমাদের দেশে সড়ক দুর্ঘটনার পর জানা যায় গাড়ীর পারমিট ছিল না। লঞ্চ ডুবির পর জানা যায় লঞ্চটি মেয়াদউত্তীর্ণ , দালান ধ্বসে পড়ার পর জানা যায় বহুতল ভবনের অনুমোদন ছিল না ইত্যাদি ইত্যাদি। এই সরকারি বিদ্যালয়টি বর্তমানে স্যাঁতস্যাঁতে, জায়গায় জায়গায় পলেস্তার খসে পড়া ও রাস্তার চেয়ে নিচু হওয়ায় বিদ্যালয় আঙিনায় একটু বৃষ্টিতেই পানি জমে। তাছাড়া ভিম ছাড়া শুধু ইটের গাঁথুনীর উপর মূল ভবনটি তৈরি করা শোনা যায়, পরবর্তীতে যে চার তলা করা হয়েছে তা অনুমোদন ছাড়াই তৈরি হয়েছে।

বছর বছর এই পুরোনো, নানা জায়গায় ধ্বসে পড়া ভবনটি সংস্কার করতে গিয়ে অর্থের অপচয় হয়। অথচ ঝুঁকি থেকেই যায়।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আকুল আবেদন, দুর্ঘটনা ঘটার পর তদন্ত কমিটি গঠন না করে এখনই কার্যকর গদক্ষেপ গ্রহণ করে অগনিত শিশুর জীবনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করায় ভূমিকা রাখুন দয়াকরে।

শাকিলা নাছরিন পাপিয়া, জুরাইন, মুরাদপুর, ঢাকা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিঠিপত্র


আরও
আরও পড়ুন