Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬, ২৪ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

ভারতের ছেড়ে দেয়া পানিতে বন্যার সৃষ্টি- মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ জুলাই, ২০১৯, ৯:২৬ পিএম

অতিসম্প্রতি বাংলাদেশে অতিবৃষ্টি ও ভারত থেকে ছেড়ে দেয়া পানির ফলে বন্যার সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এজন্য দলটির স্থায়ী কমিটির বৈঠকে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে। বৈঠক থেকে অবিলম্বে বন্যাপীড়িত দূর্গত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য দলের সর্বস্তরেরে নেতা-কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছে বিএনপি। শনিবার (১৩ জুলাই) গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে রাতে স্থায়ী কমিটির বৈঠকের পর দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই সিদ্ধান্তের কথা জানান। তিনি বলেন, দলের কেন্দ্রীয় ত্রাণ যে কমিটি আছে তাকে সক্রিয় করে দূর্গত এলাকায় ত্রাণ সমাগ্রি পাঠানোর কার্যক্রম শুরু করাও সিদ্ধান্ত হয়েছে বৈঠকে।গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে বিকালে দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির এই বৈঠক হয়। লন্ডন থেকে স্কাইপিতে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এই বৈঠকে যুক্ত ছিলেন।

রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সরকার ব্যর্থ হয়েছে দাবি করে মির্জা ফখরুল বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুটি দেশের অর্থনীতি, দেশের স্বাধীনতার ওপরে বড় রকমের চাপ সৃষ্টি করেছে। এক্ষেত্রে সরকার সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে এই সমস্যা সমাধানে উপনীতি হয়ে একটা প্রক্রিয়া শুরু করতে। রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সরকার কোনো কার্যকরী উদ্যোগ নিতে পারছে না। তারা সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে। তিনি বলেন, আমরা আশা করেছিলাম চীনে প্রধানমন্ত্রী গেলে সেখান থেকে একটা পজেটিভ কোনো উত্তর পাবো। কিন্তু সেটাও আমরা দেখতে পারছি না। আমরা বরঞ্চ দেখলাম চীন তার একই অবস্থানেই আছে এবং সেখানে কোনো কনক্রিট কিছু আমাদের জন্য উপযোগী কোনো কথা চীনা কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে আমরা পাইনি।

ব্যাংকিং ব্যবস্থাপনার ভেঙে পড়া প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব বলেন, সরকারের আর্থিক ব্যবস্থাপনা চরমভাবে ভেঙে পড়েছে। বিশেষ করে ব্যাংকিং সিস্টেমটা একেবারে ভেঙে পড়েছে। তিনদিন আগে পিপলস লিজিং ফাইন্যান্স কোম্পানিটিকে আমানতকারীদের ২৩৬ কোটি টাকা ফেরত না দিয়েই বাংলাদেশ ব্যাংক প্রতিষ্ঠানটিকে অবসান করেছে। সেটা নজিরবিহীন ঘটনা। এরফলে প্রতিষ্ঠানটির কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারি ও আমানতকারীরা চরম অনিশ্চয়তা মধ্যে পড়েছে। তিনি বলেন, এ বিষয়টি গোটা ব্যাংকিং সিস্টেমের একটা প্রতিকী ঘটনা। এইভাবে গোটা ব্যাংকিং সিস্টেম ভেঙে পড়েছে। আমানতকারীদের টাকা ফেরত দেয়ার ব্যবস্থা না করে এবং ওই প্রতিষ্ঠানটি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের বিকল্প কোনো ব্যবস্থা না করে বন্ধ করে দেয়ার ঘটনার তীব্র নিন্দা জানায় বিএনপি এবং অবিলম্বে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা-কর্মচারী ও আমানতকারীদের অর্থ ফেরত দেয়ার কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানায়। এব্যাপারে পূঁজিবাজারের আমানতকারীসহ ব্যাংকিং ব্যবস্থার বেহাল অবস্থার বিষয়ে ভবিষ্যতে দলীয় কর্মসূচি দেয়া হবে বলে জানান বিএনপি মহাসচিব।

চলতি মাসের বিভাগীয় শহরগুলোতে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সমাবেশ করা হবে জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, আমাদের ১৮ তারিখে বরিশালে, ২০ তারিখ চট্টগ্রাম ও ২৫ তারিখ খুলনায় সমাবেশ এ্রখন পর্যন্ত কনফার্ম করেছি। আমরা আশা করছি, আগামী ৩০ তারিখের মধ্যে বাকী বিভাগীয় শহরগুলো সমাবেশ করতে পারবো।

খালেদা জিয়ার অসুস্থার কথা তুলে ধরে বিএনপি মহাসচিব বলেন, বেগম খালেদা জিয়া দীর্ঘকাল ধরে কারারুদ্ধ রয়েছেন এবং চিকিৎসার জন্য এখন হাসপাতালে রয়েছেন। কিন্তু আমরা খোঁজ-খবর নিয়ে জেনেছি, তার স্বাস্থ্যের কোনো উল্লেখযোগ্য উন্নতি দেখছি না। তার শারীরিক যেসব সমস্যা ছিলো তার কোনো সমাধানই হয়নি। উপরন্তু সমস্যা বেড়েই চলেছে। তিনি অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থার জন্য জোর দাবি জানান।

একাদশ সংসদ নির্বাচনের বিষয়ে কেন্দ্রভিত্তিক ফলাফল এবং সারাদেশে সংঘটিত নারী-শিশু ধর্ষণ-হত্যা-গুমের বিষয়ে দলের পক্ষ থেকে কয়েকদিনের মধ্যে আলাদা আলাদাভাবে সংবাদ সম্মেলন করে করণীয় দেশবাসীর কাছে তুলে ধরার সিদ্ধান্ত হয় স্থায়ী কমিটির সভায়।

এই বৈঠকে মহাসচিব ছাড়াও ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান উপস্থিত ছিলেন।



 

Show all comments
  • Miah Muhammad Adel ১৩ জুলাই, ২০১৯, ১০:২৮ পিএম says : 0
    সম্পাদক সাহেব, আমার ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র মন্তব্য ছাপার সৎ সাহসটুকু আপনার থাকা উচিত। ক্ষমতাশীনদের নিয়ন্ত্রিত সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়ে থাকে যে উপর থেকে আসা পানিতে বন্যা সৃষ্টি করে থাকছে। উপর বলতে তারা কি আকাশকে বুঝাতে চান? এতই শ্রদ্ধার প্রাত্র প্রতিবেশী যে তার নামটাও মুখে আনতে নাই। ছোেটবলায় শুনতাম লোকমুখে যে বড়পীর হযরত আব্দুল কাদের জিলানীর (রঃ) নাম বিনা অযুতে মুখে বললে শরীর থেকে একটা লোম খসে পড়বে। এর থেকেও নাকি গুরুতর শাস্তি পেতে হতো যা বড়পীর মহান আল্লাার নিকট প্রার্থনা করে হ্রাস করে নিয়েছিলেন। পরিবেশ ও জীববৈচিত্র রক্ষা বর্তমান সময়ে সবচেয়ে অগ্রাধিকার পেয়ে থাকছে পৃথিবীর যে কোন দেশে যে কোন স্থানে। ব্যতিক্রম শুধু বাংলাদেশ। ক্ষমতাশীনরা দেশের জনগণের প্রতিকুল পরিবেশের সহ্য ক্ষমতা অতি বর্ধিত করে অসীম করে তুলেছেন। পাছে ক্ষমতা যায় তাই প্রতিবেশীর সব অন্যায় ও অবিচার মুখ বন্ধ করে সহ্য করতে হবে। উপরন্তুু দেশের স্বার্থ বিকিয়ে দিয়েও প্রতিবেশীর স্বার্থ রক্ষায় অগ্রাধিকার দিতে হবে। সব বুঝেসুঝে কতই বা চুপ করে থাকা যায় এই গণতান্ত্রিক দেশে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিএনপি

১৮ আগস্ট, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন